,

২৫ মিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে লাদেনের তথ্য দেয় পাক-গোয়েন্দা

২৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের বিনিময়ে পাকিস্তানে আল-কায়েদার শীর্ষ নেতা ওসামা বিন লাদেনের আস্তানার তথ্য দেয় দেশটির একজন গোয়েন্দা কর্মকর্তা। যুক্তরাষ্ট্রের অনুসন্ধানী সাংবাদিক সিমর হার্স তার এক নতুন বইয়ে এ দাবি করেছেন।

বইয়ে তিনি লিখেছেন, পাকিস্তানের লাদেনের অবস্থান খুঁজে পাওয়া নিয়ে এত দিন যুক্তরাষ্ট্র যেসব তথ্য দিয়েছে, তার অধিকাংশই ছিল ভুল।

২০১১ সালের মে মাসে পাকিস্তানের অ্যাবোটাবাদে যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ নৌকমান্ড লাদেন বধে যে অভিযান পরিচালনা করে, সিমর হার্স এবার তা নিয়ে কিছু বিস্ফোরক তথ্য হাজির করেছেন।

হার্সের ভাষ্য মতে, ২০০৬ সাল থেকে পাকিস্তানে দেশটির সামরিক গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টার সার্ভিস ইন্টেলিজেন্সের (আইএসআই) তত্ত্বাবধানে কারাগারে ছিলেন বিন লাদেন। পাকিস্তান সেনাবাহিনীর তৎকালীন সেনাপ্রধান আশফাক পারভেজ কিয়ানি এবং আইএসআইয়ের মহাব্যবস্থাপক জেনারেল আহমেদ সুজা পাশা দুজনেই বিন লাদেনের অবস্থান জানতেন। মার্কিন নৌকমান্ডের দুটি হেলিকপ্টার পূর্বসতর্কতা ছাড়াই পাকিস্তানের আকাশসীমায় প্রবেশ করার কথাও তারা জানতেন।

অ্যাবোটাবাদে বিন লাদেনের অবস্থান নিয়ে প্রাথমিক তথ্য জানতেন, এমন একজন গোয়েন্দা কর্মকর্তার কাছ থেকে এসব তথ্য পেয়েছেন সাংবাদিক সিমর হার্স।

পাকিস্তানের যে গোয়েন্দা কর্মকর্তা যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থার (সিআইএ) কাছে বিন লাদেনের অবস্থানের তথ্য বিক্রি করেছিলেন, তিনি এখন যুক্তরাষ্ট্রে আছেন। সিআইয়ের তদন্ত কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করছেন তিনি।

তথ্যসূত্র : জি নিউজ অনলাইন।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর