,

y-2111032127

ঘুমের ওষুধে যেসব মারাত্মক ক্ষতি

হাওর বার্তা ডেস্কঃ আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই আছেন, যাদের রাতে ঘুমের ওষুধ না খেলে ঘুম হয় না। তাই তারা নিয়ম করে প্রতি রাতে ঘুমের ওষুধ খেয়ে থাকেন। দেখা যায়, প্রথম দিকে যে ওষুধ সহজে ঘুম পাড়িয়ে দেয়, কয়েক বছর পরে সেটিই আর ঠিকভাবে কাজ করে না।

তখন ঘুমানোর জন্য আরো চড়া মাত্রার ঘুমের ওষুধের দরকার হয়। কিন্তু কখনো কি ভেবে দেখেছেন, রোজ এভাবে ঘুমের ওষুধ খাওয়ার ফলে কী হয়? চলুন তবে জেনে নেয়া যাক ঘুমের ওষুধ আমাদের যেসব মারাত্মক ক্ষতি করে সেগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত-

যারা নিয়মিত ঘুমের ওষুধ খান, তাদের মস্তিষ্কের বিভিন্ন অংশে এই ওষুধের প্রভাব পড়ে। ফলে আচরণ বদলে যেতে পারে। এমনকি কমে যেতে পারে বুদ্ধিও।

নিয়মিত ঘুমের ওষুধ খেলে সার্বিকভাবে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে। তাছাড়া মানসিক চাপ বাড়িয়ে দেওয়ার হরমোনগুলির ক্ষরণও বাড়ে। তাতে ক্যান্সারের মতো অসুখের আশঙ্কাও বেড়ে যায়।

রোজ ঘুমের ওষুধ খেলে ফুসফুসের ক্ষমতা কমতে থাকে। অল্প পরিশ্রমেই শ্বাসকষ্ট হয়। সিঁড়ি দিয়ে ওঠা বা বেশি হাঁটাহাঁটি করতে গেলেই সমস্যা হয়। সব মিলিয়ে কমতে থাকে ফুসফুসের ক্ষমতা।

নিয়মিত ঘুমের ওষুধ খেলে অবসাদের সমস্যাও বাড়তে পারে। যাদের ইতিমধ্যেই এই সমস্যা রয়েছে, তারা যদি রোজ ঘুমের ওষুধ খান, তাহলে সেই সব হরমোনের ক্ষরণ বেড়ে যায়, যেগুলি অবসাদের জন্য দায়ী।

সম্প্রতি ব্রিটিশ মেডিক্যাল জার্নালে প্রকাশিত একটি নিবন্ধে দাবি করা হয়েছে, রোজ ঘুমের ওষুধ খেলে আয়ু কমতে পারে। কারণ সার্বিক ভাবে গোটা শরীরের উপরেই এই ওষুধের প্রভাব পড়ে। তাতে সব অঙ্গেরই অল্পবিস্তর ক্ষতি হয়। ফলে আয়ু কমতে থাকে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর