,

হাওর বার্তা ডেস্কঃ  চুলের যত্নে সচেতন যারা, তাদের কাছে পরিচিত নাম আমলকি। কারণ বাড়তি পুষ্টির জন্য বিভিন্ন তেলে যোগ করা হয় আমলকির রস। আমলকি আমাদের ত্বক ও চুলের যত্নে বিশেষ উপকারী। এটি চুলের গোড়া মজবুত রাখে, চুল উজ্জ্বল করে। আমলকিতে আছে প্রচুর ভিটামিন সি। এই ভিটামিন চুলের জন্য ভালো। চুল সুন্দর ও সুস্থ রাখতে আমলকির ব্যবহার ও উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নিন-

আমলকির তেল ব্যবহার

বাজারে আপনি আমলকির তেল কিনতে পাবেন। সেটি কিনে ব্যবহার করতে পারেন। আমলকির তেল ভালোভাবে ‍চুলের গোড়ায় লাগিয়ে নিন। এর ফলে চুল পড়ার পরিমাণ কমে আসবে। কারণ আমলকির তেল চুলের ফলিকল শক্ত করে। চুলে নিয়মিত মাসাজ করলে স্ক্যাল্পে রক্ত সঞ্চালন ভালো হয়। আমলকিতে থাকা অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল গুণ সব ধরনের ইনফেকশন থেকে দূরে রাখতে সাহায্য করে। যে কারণে আমলকির তেল ব্যবহার করলে খুশকি বা মাথার ত্বকের চুলকানির সমস্যা কমে। এই তেল ব্যবহার করার আগে সামান্য গরম করে নিতে হবে। এরপর ভালোভাবে মাসাজ করুন। সপ্তাহে অন্তত দুইদিন ব্যবহার করবেন।

আমলকি ও দইয়ের হেয়ার মাস্ক

অতিরিক্ত চুল পড়া নিয়ে সমস্যায় পড়েন অনেকে। যারা এমন চুল পড়ার সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য ভালো একটি হেয়ার মাস্ক হতে পারে আমলকি ও দইয়ের মিশ্রণ। এটি চুলের গোড়া শক্ত করার পাশাপাশি চুল পড়া বন্ধ করে। এই হেয়ার মাস্ক তৈরি করার জন্য প্রথমে দুই চা চামচ আমলকির গুঁড়া নেবেন। এরপর তার সঙ্গে মেশাবেন সামান্য গরম পানি। একটি পেস্ট তৈরি করুন। এরপর এর সঙ্গে মেশান দুই চা চামচ টক দই ও এক চা চামচ মধু। সব উপকরণ ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। এবার মিশ্রণটি চুলের গোড়ায় এবং মাথার ত্বকে ভালোভাবে লাগিয়ে নিন। এভাবে আধা ঘণ্টা রেখে ধুয়ে ফেলুন।

আমলকির রস

আমলকির রসের অন্যতম উপকারিতা হলো এটি চুলের গোড়া শক্ত করতে কার্যকরী। চুলে আমলকির রস ব্যবহার করলে কোলাজেনের মাত্রা বৃদ্ধি পায়। এর ফলে চুল দ্রুত লম্বা হয়। এটি ব্যবহার করার জন্য একটি পাত্রে আমলকির রস নিন। রসটুকু সব চুলের গোড়ায় ভালোভাবে লাগান। এভাবে রেখে দিন মিনিট পাঁচেক। এরপর আরেকবার মালিশ করে আরও দশ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর হালকা ধরনের কোনো শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

 

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর