,

অশ্রুসিক্ত জাভির প্রতিশ্রুতি

আবেগ সামলানোর চেষ্টা করছিলাম খুব। কিন্তু এতে কান্না আসছিল আরও- শনিবার অশ্রুসিক্ত জাভি হার্নানদেজ জানান তার এমন অনুভূতি। বার্সেলোনার জার্সি গায়ে স্প্যানিশ লা-লিগায় ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ খেলে নিলেন ৩৫ বছরের জাভি হার্নানদেজ। আর বিদায় বেলায় এবারের লা-লিগা শিরোপা হাতে যথারীতি আবেগে ভিজলেন এফসি বার্সেলোনার দীর্ঘদিনের এ সারথী। ৯৩৭৪৩ দর্শকে ঠাসা গ্যালারির উদ্দেশে বলেন, ‘মওসুমের বাকি দুই শিরোপা হাতে আমি আরেকবার ফিরছি এখানে।’ শনিবার স্প্যানিশ লা-লিগায় এবারের মওসুমের শেষ ম্যাচে মাঠে নামে বার্সেলোনা। তবে নিজ মাঠে হোঁচটে শেষ হলো বার্সার এবারের লা-লিগা মওসুম। ন্যু ক্যাম্প মাঠে ২-০তে এগিয়ে শেষে বার্সেলোনা ২-২ গোলে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে রেলিগেশন খাঁড়ার দল ডেপোর্টিভো লা করুনার সঙ্গে। ম্যাচে জোড়া গোল করেন বার্সেলোনার বিশ্বসেরা ফরোয়ার্ড লিওনেল মেসি। ২৫ বছর আগে বার্সেলোনা একাডেমিতে পা রাখেন ১০ বছরের জাভি হার্নানদেজ। বার্সেলোনা সিনিয়র দলে দাপুটের সঙ্গে খেলে যান দীর্ঘ ১৭ মওসুম। এ সময় জাভি স্বাদ নেন পৃথক ২৩টি শিরোপার। তবে ফর্ম নিয়েই ক্যারিয়ারে বার্সেলোনা অধ্যায়ের  ইতি টানলেন অধিনায়ক জাভি হার্নানদেজ। এটি ছিল বার্সেলোনার জার্সি গায়ে লা-লিগায় জাভির ৫০৫তম ম্যাচ। আর জাভির বিদায়ী ম্যাচকে ঘিরে ন্যু ক্যাম্পে ছিল আলাদা আয়োজন। জাভির সম্মানে ন্যু ক্যাম্প গ্যালারিতে শোভা পাচ্ছিল বর্ণিল ব্যানার-ফেস্টুন, বিশেষ মোজাইক। এফসি বার্সেলোনার তরফ থেকে আরও দুবছরের চুক্তির প্রস্তাব ছিল জাভির কাছে। কিন্তু দলে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ভিড়ে মাথা উঁচু করেই ন্যু ক্যাম্প ছাড়তে চান জাভি। আগামী মওসুম মধ্যপ্রাচ্যে ফুটবল মাঠ মাতাবেন বিশ্বসেরা এ মিডফিল্ড তারকা। কাতারি শীর্ষ দল আল সাদের সঙ্গে চুক্তি করেছেন জাভি হার্নানদেজ। শনিবার ডেপোর্টিভো লা করুনার বিপক্ষে ম্যাচ শেষে জমকালো উৎসবে এফসি বার্সেলোনার হাতে তুলে দেয়া হয় এবারের স্প্যানিশ লা-লিগা শিরোপা। আবেগাপ্লুত অধিনায়ক জাভি হার্নানদেজ বলেন, এখানে আমার অসংখ্য সুথস্মৃতি । জীবনের দীর্ঘ ২৫ বছর বার্সেলোনার জার্সি গায়ে কাটলো আমার। বার্সা আমাকে যতটা মিস করবে তার চেয়ে অনেক বেশি বার্সাকে আমি মিস করবো। আজ আমি বিশ্বের সবচেয়ে সুখী মানুষ। মওসুমে আমাদের আরও কাজ বাকি। কোপা দেল রে ও চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ট্রফি হাতে এখানে ফের উৎসবে যোগ দিতে চাই আমি। বার্সেলোনা কোচ লুইস এনরিকে বলেন, ‘ম্যাচ শেষে জাভির আবেগ এবং তার প্রতি দেখানো বার্সেলোনার বিদায়ী সম্মানের ছবিটা অনেক দিন মনে থাকবে আমার। এ মুহূর্তে ফুটবলে আরেকজন জাভি নেই । তার স্থান অপূরণীয়। সত্যিকার অর্থে তিনি অনন্য একজন ফুটবলার। আমি মনে করি, সেরা ফর্ম নিয়েই বার্সেলোনা দলে  কমপক্ষে আরও এক বছর খেলতে পারতেন তিনি। তবে সিদ্ধান্তটাও তার।’ বার্সা কোচ এনরিকের মনোযোগ সামনের দুই শিরোপার দিকে। বার্সার সাবেক এ তারকা বলেন, আমাদের কাজ এখনও অসম্পূর্ণ। কোপা দেল রে ও ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ শিরোপা হাতে আগামী ৭ই জুন এখানে আমরা ফের উৎসব করতে চাই। এবারের কোপা দেল রে’ ফাইনালে বার্সেলোনা নিজ মাঠে অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের বিপক্ষে লড়বে আগামী ৩০শে মে। পরে আগামী ৬ই জুন ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগে বার্সেলোনার প্রতিপক্ষ ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাস।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর