ঢাকা ১২:২১ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নেইমার মূলত ২টি কারণে বার্সেলোনা ছাড়ছে

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ০৯:৫৯:২৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০১৫
  • ৩২৭ বার

বর্তমান ফুটবল বিশ্বে বিশ্বসেরা ফুটবলার লিউনেল মেসি এবং ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমার ক্লাব ফুটবলে বার্সেলোনার হয়ে খেলছেন। তবে সম্প্রতি শোনা যাচ্ছে নেইমার বার্সেলোনা ছেড়ে অন্য ক্লাবে যোগ দিতে যাচ্ছেন। আরও স্পস্ট করে বললে দাঁড়ায়, নেইমার মূলত ম্যানচেস্টর ইউনাইটেডে যোগ দিতে যাচ্ছেন। কিন্তু বিশ্বের সেরা ফুলবল ক্লাব বার্সা থেকে নেইমার হঠাৎ কেন সরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। নেইমারের আকস্মিক এই সিদ্ধান্তটি চুলচেরা বিশ্লেষণ করলে আমরা দুটি কারণ খুজে পাই। নেইমার মুলত এই ২টি কারণেই বার্সা ছেড়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যোগ দিচ্ছে। ২৩ বছর বয়সী নেই এখন মেসির অনুপস্থিতিতে কাতালান ক্লাবটির মধ্যমনি। তবে, এটা তারও ভাল ভাবেই জানা আছে যে, মেসি ফিরলে তাকে প্রয়োজনে সাইড বেঞ্চও গরম করা লাগতে পারে। চলতি মৌসুমটা বেশ ভালই যাচ্ছে সাবেক এই স্যান্তোস ফরোয়ার্ডের। বার্সার হয়ে ১১ টি ম্যাচে আট গোল করার পাশাপাশি ছয়টি গোলের উৎস ছিলেন তিনি। সাম্প্রতিক সময়ে লা লিগায় ব্রাজিলিয়ান এই ফরোয়ার্ডের ভবিষ্যত নিয়ে চলছে নানারকম জল্পনা-কল্পনা। স্কাই স্পোর্টসের স্প্যানিশ ফুটবল বিশেষজ্ঞ গুইলেম ব্যালাগও মনে করেন বার্সেলোনায় আর খুব বেশিদিন নেই নেইমার। তার মতে, ঠিক এই মুহূর্তে না হলেও খুব দ্রুতই বার্সা ছাড়বেন নেইমার। তার মতে এর পিছনের ব্যাখ্যাটা হল, ‘আমার মনে হয় ও (নেইমার) এটা ভাবছে যে, যতক্ষণ মেসি আছে ততক্ষণ বার্সেলোনায় থেকে ওর পক্ষে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় হওয়া সম্ভব নয়। সেক্ষেত্রে ওর হাতে দু’টো পথ খোলা থাকে – মেসির বার্সেলোনা ছাড়ার জন্য অপেক্ষা করা, না হয় নিজেই বার্সেলোনা ছেড়ে বড় কোন ক্লাবে যাওয়া। আর ও সেই দলটাতেই যাবে যেখানে ওকে ঘিরেই বাকি সব কিছু সাজানো হবে।’ আর এর মাঝে নেইমার কোন পথটা বেছে নেবেন সেটা বলে দিলেন বার্সেলোনা ক্লাবের সাবেক সভাপতি হুয়ান লাপোর্তে। আর এখানেও তিনি টেনে আনলেন মেসির প্রসঙ্গ। বললেন, ‘মেসি কখনওই বার্সেলোনা ছাড়বে না। ও আমাদের ক্লাবের প্রতীক, আমাদের হৃদয়ের অবিচ্ছেদ্য অংশ। আমি যখন সভাপতি ছিলাম তখন বেশ কয়েকটা প্রস্তাব পেয়েছি। এর মধ্যে ইন্টার মিলানও ছিল, যারা ওর রিলিজ ক্লজও মিটিয়ে দিতে চেয়েছিল। কিন্তু, তারপরও আমরা ওকে ছাড়িনি।’ আর, নেইমারের ক্ষেত্রে ক্লাবের ভাবনাটা যে ভিন্ন সেটাও লাপোর্তে সাফ জানিয়ে দিলেন, ‘নেইমারের ক্ষেত্রে ব্যাপারটা অবশ্যই ভিন্ন। এই মুহূর্তে ক্লাবের আর্থিক অবস্থা সুবিধার না। এই মুহূর্তে হয় ক্লাবের সম্পত্তি না হয় খেলোয়াড় বিক্রী করতে হবে। আর সমস্যা সমাধানের সবচেয়ে ভাল উপায় হচ্ছে, শীর্ষ পর্যায়ের একজন খেলোয়াড়কে বিক্রী করে দেয়া।’ আর নেইমারকে পেতে যে রেড ডেভিলরা উঠে পড়ে লেগেছে সেটাও লাপোর্তে অস্বীকার করলেন না, ‘হ্যা, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের প্রস্তাব নিয়ে একটা আলোচনা চলছে।’ আর ২০১৩ সালে ব্রাজিলের স্যান্তোস ছেড়ে বার্সেলোনায় আসা নেইমারের বাবা নেইমার সিনিয়রও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের প্রস্তাবের কথা গণমাধ্যমের কাছে স্বীকার করে নিয়েছেন। যদিও তিনি এই প্রস্তাব নিয়ে খুব একটা আশাবাদী নন। বললেন, ‘প্রস্তাবটা বার্সেলোনা ক্লাবের কাছে পৌঁছেছে। এখন এখানে আমরা আগ্রহী কি না – সেটা গুরুত্বপূর্ণ নয়। ব্যাপার হল, বার্সেলোনা এখন ওকে ছাড়তে চায় না, কারণ চুক্তির মেয়াদে এখনও তিন বছর বাকি। তবে, প্রস্তাবটা আলোচনার টেবিলে আছে। দেখা যাক কি হয়!’ স্প্যানিশ পত্রিকা ডন ব্যালনও মনে করছে এই মুহূর্তে দল বদলানোর ব্যাপারটা বেশ গুরুত্বের সাথেই ভাবছেন নেইমার। তাদের মধ্যে, তিনি ইউরোপিয়ান কোন বড় দলের মধ্যমনি হতে চান। আর সেটা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। আর একই সাথে, নেইমার ফিফা-ব্যালন ডি’অর জিততে মরিয়া যেটা, বার্সেলোনায় মেসির পাশে খেলে অর্জন করা সম্ভব নয়। এবার প্রশ্ন হল, কবে নেইমার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যাবেন? প্রশ্নের উত্তরটা দিলেন গুইলেম ব্যালাগ। বললেন, ‘এই নাটকটা আরও বছরখানেক চলবে বলে অনুমান করছি। নতুন চুক্তি সই করানোর জন্য দরকষাকষি করবে বার্সেলোনা। বার্সেলোনা এখনই ওকে সই করিয়ে ফেলতে চায়। কিন্তু, নেইমারের কোন তাড়া নেই। আর এমন একটা ব্যাপার যে আসলেই ঘটছে সেটা বলে দিলো ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য সান। তাদের রিপোর্টে বলা হয়, নেইমারের সাথে যে নতুন চুক্তির প্রস্তাব বার্সেলোনা দিয়েছে তাতে প্রতি সপ্তাহে ৫ লাখ পাউন্ড করে পাবেন এই ফরোয়ার্ড। আর এটা সত্য হলে, সতীর্থ লিওনেল মেসি ও রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগিজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর পর তৃতীয় সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া ফুটবলার হতে যাচ্ছেন নেইমার। নাটকটা শুরু হয়ে গেছে, এখন কেবল এর শেষ দেখার অপেক্ষা!

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

নেইমার মূলত ২টি কারণে বার্সেলোনা ছাড়ছে

আপডেট টাইম : ০৯:৫৯:২৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০১৫

বর্তমান ফুটবল বিশ্বে বিশ্বসেরা ফুটবলার লিউনেল মেসি এবং ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমার ক্লাব ফুটবলে বার্সেলোনার হয়ে খেলছেন। তবে সম্প্রতি শোনা যাচ্ছে নেইমার বার্সেলোনা ছেড়ে অন্য ক্লাবে যোগ দিতে যাচ্ছেন। আরও স্পস্ট করে বললে দাঁড়ায়, নেইমার মূলত ম্যানচেস্টর ইউনাইটেডে যোগ দিতে যাচ্ছেন। কিন্তু বিশ্বের সেরা ফুলবল ক্লাব বার্সা থেকে নেইমার হঠাৎ কেন সরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। নেইমারের আকস্মিক এই সিদ্ধান্তটি চুলচেরা বিশ্লেষণ করলে আমরা দুটি কারণ খুজে পাই। নেইমার মুলত এই ২টি কারণেই বার্সা ছেড়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যোগ দিচ্ছে। ২৩ বছর বয়সী নেই এখন মেসির অনুপস্থিতিতে কাতালান ক্লাবটির মধ্যমনি। তবে, এটা তারও ভাল ভাবেই জানা আছে যে, মেসি ফিরলে তাকে প্রয়োজনে সাইড বেঞ্চও গরম করা লাগতে পারে। চলতি মৌসুমটা বেশ ভালই যাচ্ছে সাবেক এই স্যান্তোস ফরোয়ার্ডের। বার্সার হয়ে ১১ টি ম্যাচে আট গোল করার পাশাপাশি ছয়টি গোলের উৎস ছিলেন তিনি। সাম্প্রতিক সময়ে লা লিগায় ব্রাজিলিয়ান এই ফরোয়ার্ডের ভবিষ্যত নিয়ে চলছে নানারকম জল্পনা-কল্পনা। স্কাই স্পোর্টসের স্প্যানিশ ফুটবল বিশেষজ্ঞ গুইলেম ব্যালাগও মনে করেন বার্সেলোনায় আর খুব বেশিদিন নেই নেইমার। তার মতে, ঠিক এই মুহূর্তে না হলেও খুব দ্রুতই বার্সা ছাড়বেন নেইমার। তার মতে এর পিছনের ব্যাখ্যাটা হল, ‘আমার মনে হয় ও (নেইমার) এটা ভাবছে যে, যতক্ষণ মেসি আছে ততক্ষণ বার্সেলোনায় থেকে ওর পক্ষে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় হওয়া সম্ভব নয়। সেক্ষেত্রে ওর হাতে দু’টো পথ খোলা থাকে – মেসির বার্সেলোনা ছাড়ার জন্য অপেক্ষা করা, না হয় নিজেই বার্সেলোনা ছেড়ে বড় কোন ক্লাবে যাওয়া। আর ও সেই দলটাতেই যাবে যেখানে ওকে ঘিরেই বাকি সব কিছু সাজানো হবে।’ আর এর মাঝে নেইমার কোন পথটা বেছে নেবেন সেটা বলে দিলেন বার্সেলোনা ক্লাবের সাবেক সভাপতি হুয়ান লাপোর্তে। আর এখানেও তিনি টেনে আনলেন মেসির প্রসঙ্গ। বললেন, ‘মেসি কখনওই বার্সেলোনা ছাড়বে না। ও আমাদের ক্লাবের প্রতীক, আমাদের হৃদয়ের অবিচ্ছেদ্য অংশ। আমি যখন সভাপতি ছিলাম তখন বেশ কয়েকটা প্রস্তাব পেয়েছি। এর মধ্যে ইন্টার মিলানও ছিল, যারা ওর রিলিজ ক্লজও মিটিয়ে দিতে চেয়েছিল। কিন্তু, তারপরও আমরা ওকে ছাড়িনি।’ আর, নেইমারের ক্ষেত্রে ক্লাবের ভাবনাটা যে ভিন্ন সেটাও লাপোর্তে সাফ জানিয়ে দিলেন, ‘নেইমারের ক্ষেত্রে ব্যাপারটা অবশ্যই ভিন্ন। এই মুহূর্তে ক্লাবের আর্থিক অবস্থা সুবিধার না। এই মুহূর্তে হয় ক্লাবের সম্পত্তি না হয় খেলোয়াড় বিক্রী করতে হবে। আর সমস্যা সমাধানের সবচেয়ে ভাল উপায় হচ্ছে, শীর্ষ পর্যায়ের একজন খেলোয়াড়কে বিক্রী করে দেয়া।’ আর নেইমারকে পেতে যে রেড ডেভিলরা উঠে পড়ে লেগেছে সেটাও লাপোর্তে অস্বীকার করলেন না, ‘হ্যা, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের প্রস্তাব নিয়ে একটা আলোচনা চলছে।’ আর ২০১৩ সালে ব্রাজিলের স্যান্তোস ছেড়ে বার্সেলোনায় আসা নেইমারের বাবা নেইমার সিনিয়রও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের প্রস্তাবের কথা গণমাধ্যমের কাছে স্বীকার করে নিয়েছেন। যদিও তিনি এই প্রস্তাব নিয়ে খুব একটা আশাবাদী নন। বললেন, ‘প্রস্তাবটা বার্সেলোনা ক্লাবের কাছে পৌঁছেছে। এখন এখানে আমরা আগ্রহী কি না – সেটা গুরুত্বপূর্ণ নয়। ব্যাপার হল, বার্সেলোনা এখন ওকে ছাড়তে চায় না, কারণ চুক্তির মেয়াদে এখনও তিন বছর বাকি। তবে, প্রস্তাবটা আলোচনার টেবিলে আছে। দেখা যাক কি হয়!’ স্প্যানিশ পত্রিকা ডন ব্যালনও মনে করছে এই মুহূর্তে দল বদলানোর ব্যাপারটা বেশ গুরুত্বের সাথেই ভাবছেন নেইমার। তাদের মধ্যে, তিনি ইউরোপিয়ান কোন বড় দলের মধ্যমনি হতে চান। আর সেটা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। আর একই সাথে, নেইমার ফিফা-ব্যালন ডি’অর জিততে মরিয়া যেটা, বার্সেলোনায় মেসির পাশে খেলে অর্জন করা সম্ভব নয়। এবার প্রশ্ন হল, কবে নেইমার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যাবেন? প্রশ্নের উত্তরটা দিলেন গুইলেম ব্যালাগ। বললেন, ‘এই নাটকটা আরও বছরখানেক চলবে বলে অনুমান করছি। নতুন চুক্তি সই করানোর জন্য দরকষাকষি করবে বার্সেলোনা। বার্সেলোনা এখনই ওকে সই করিয়ে ফেলতে চায়। কিন্তু, নেইমারের কোন তাড়া নেই। আর এমন একটা ব্যাপার যে আসলেই ঘটছে সেটা বলে দিলো ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য সান। তাদের রিপোর্টে বলা হয়, নেইমারের সাথে যে নতুন চুক্তির প্রস্তাব বার্সেলোনা দিয়েছে তাতে প্রতি সপ্তাহে ৫ লাখ পাউন্ড করে পাবেন এই ফরোয়ার্ড। আর এটা সত্য হলে, সতীর্থ লিওনেল মেসি ও রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগিজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর পর তৃতীয় সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া ফুটবলার হতে যাচ্ছেন নেইমার। নাটকটা শুরু হয়ে গেছে, এখন কেবল এর শেষ দেখার অপেক্ষা!