ঢাকা ১১:৩৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কূটনৈতিক জোন নিয়ে উদ্বিগ্ন রওশন এরশাদ

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ০৮:০৬:৫২ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৫
  • ২১৮ বার

জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ ঢাকায় কূটনৈতিক-পাড়া খ্যাত গুলশান ও বারিধারা ‘অরক্ষিত’ আখ্যা দিয়ে বলেছেন, ওইসব এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা আবারও ঢিলেঢালা হয়ে পড়ায় সেখানে অপরাধমূলক নানা ঘটনা ঘটেই চলেছে। সৌদি দূতাবাস কর্মকর্তা খালাফ আল-আলি গুলিতে নিহত হওয়ার পর দূতাবাস পল্লীর নিরাপত্তা ব্যবস্থা ব্যাপক জোরদার করা হলেও সাম্প্রাতিক সময়ে আবার তা ঝিমিয়ে পড়েছে, তার প্রমাণ মিলে ইতালির নাগরিক তাবেলা সিজার খুন হওয়ার ফলে।
বুধবার সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে সহিংস ওই ঘটনার নিন্দা জানানোর পাশাপাশি দ্রুত তদন্তের মাধ্যমে বর্বরোচিত হত্যায় জড়িত ব্যক্তিদের বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করাতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বিরোধীদলীয় নেতা।
বিরোধীদলীয় নেতা বলেন, বাংলাদেশের জনগণ বিশেষ করে সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা লোকজনের সহায়তায় আসা উন্নয়নকর্মীর বিরুদ্ধে এ ধরনের অপরাধ যারা করেছে তা নিন্দনীয়। এ হত্যাকাণ্ডকে সন্ত্রাসী অপরাধ হিসেবে অভিহিত করে দ্রুত তদন্তের মাধ্যমে বর্বরোচিত এই হত্যায় দোষীদের শাস্তি দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিরোধীদলীয় নেতা। একইসঙ্গে তাবেলার পরিবার ও বন্ধুদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি।
তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে উন্নতি লাভ করছে এবং সেটা বিশ্ব সমাজেও স্বীকৃত। আর এ ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভাল রাখা অপরিহার্য শর্ত। এ ক্ষেত্রে নাশকতা ও অন্তর্ঘাত বিষয়ে সম্পূর্ণ সতর্ক থাকার আহ্বান জানান তিনি।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

কূটনৈতিক জোন নিয়ে উদ্বিগ্ন রওশন এরশাদ

আপডেট টাইম : ০৮:০৬:৫২ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৫

জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ ঢাকায় কূটনৈতিক-পাড়া খ্যাত গুলশান ও বারিধারা ‘অরক্ষিত’ আখ্যা দিয়ে বলেছেন, ওইসব এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা আবারও ঢিলেঢালা হয়ে পড়ায় সেখানে অপরাধমূলক নানা ঘটনা ঘটেই চলেছে। সৌদি দূতাবাস কর্মকর্তা খালাফ আল-আলি গুলিতে নিহত হওয়ার পর দূতাবাস পল্লীর নিরাপত্তা ব্যবস্থা ব্যাপক জোরদার করা হলেও সাম্প্রাতিক সময়ে আবার তা ঝিমিয়ে পড়েছে, তার প্রমাণ মিলে ইতালির নাগরিক তাবেলা সিজার খুন হওয়ার ফলে।
বুধবার সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে সহিংস ওই ঘটনার নিন্দা জানানোর পাশাপাশি দ্রুত তদন্তের মাধ্যমে বর্বরোচিত হত্যায় জড়িত ব্যক্তিদের বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করাতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বিরোধীদলীয় নেতা।
বিরোধীদলীয় নেতা বলেন, বাংলাদেশের জনগণ বিশেষ করে সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা লোকজনের সহায়তায় আসা উন্নয়নকর্মীর বিরুদ্ধে এ ধরনের অপরাধ যারা করেছে তা নিন্দনীয়। এ হত্যাকাণ্ডকে সন্ত্রাসী অপরাধ হিসেবে অভিহিত করে দ্রুত তদন্তের মাধ্যমে বর্বরোচিত এই হত্যায় দোষীদের শাস্তি দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিরোধীদলীয় নেতা। একইসঙ্গে তাবেলার পরিবার ও বন্ধুদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি।
তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে উন্নতি লাভ করছে এবং সেটা বিশ্ব সমাজেও স্বীকৃত। আর এ ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভাল রাখা অপরিহার্য শর্ত। এ ক্ষেত্রে নাশকতা ও অন্তর্ঘাত বিষয়ে সম্পূর্ণ সতর্ক থাকার আহ্বান জানান তিনি।