ঢাকা ০৭:১৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জঙ্গিদের কোনো ধর্ম নেই, বললেন আইজিপি

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১১:১১:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ অক্টোবর ২০১৬
  • ২৮৮ বার

আইজিপি একেএম শহীদুল হক বলেছেন, জঙ্গিদের কোনো ধর্ম নেই, তারা মসজিদ মন্দিরে হামলা করে এবং মুসলমান- হিন্দু যেকোনো ধর্মের লোকদের হত্যা করে। আজ বুধবার দুপুরে পবিত্র আশুরা উপলক্ষে রাজধানীর সূত্রাপুরের বিবিকা রওজা পরিদর্শন শেষে আইজিপি এসব কথা বলেন।

আইজিপি বলেন, বাংলাদেশ একটি গণতান্ত্রিক, ধর্ম নিরপেক্ষ দেশ। বাংলাদেশে জঙ্গিবাদের কোনও স্থান হবে না। গতকাল হিন্দুদের সবচেয়ে

বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা সফলভাবে শেষ হয়েছে। পূজামণ্ডপ কমিটির সদস্যরাও আমাদের সহযোগিতা করেছেন।

তিনি আরও বলেন, আজ ১০ মহররম শিয়া সম্প্রদায় তথা মুসলিম ইতিহাসে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ন একটি দিন। আমরা তাদের মিছিলের রুট নির্ধারণ করে দিয়েছি। সেই রুট মেনেই তারা মিছিল করেছেন।

আইজিপি বলেন, ছুরি, কাঁচি, বল্লম ও তলোয়ার নিয়ে মিছিল করতে নিষেধ করা হয়েছিল। এ ব্যাপারে মহরম উদযাপন কমিটি নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনার মাধ্যমে যে সিদ্ধান্ত হয়েছিল তা মেনে নিয়ে তারা অত্যন্ত সুশৃঙ্খলভাবে তাজিয়া মিছিল সম্পন্ন করেছেন। এ ব্যাপারে সকল মহল সার্বিক সহযোগিতা করায় আইজিপি সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

এসময় ডিএমপির কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়াসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

জঙ্গিদের কোনো ধর্ম নেই, বললেন আইজিপি

আপডেট টাইম : ১১:১১:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ অক্টোবর ২০১৬

আইজিপি একেএম শহীদুল হক বলেছেন, জঙ্গিদের কোনো ধর্ম নেই, তারা মসজিদ মন্দিরে হামলা করে এবং মুসলমান- হিন্দু যেকোনো ধর্মের লোকদের হত্যা করে। আজ বুধবার দুপুরে পবিত্র আশুরা উপলক্ষে রাজধানীর সূত্রাপুরের বিবিকা রওজা পরিদর্শন শেষে আইজিপি এসব কথা বলেন।

আইজিপি বলেন, বাংলাদেশ একটি গণতান্ত্রিক, ধর্ম নিরপেক্ষ দেশ। বাংলাদেশে জঙ্গিবাদের কোনও স্থান হবে না। গতকাল হিন্দুদের সবচেয়ে

বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা সফলভাবে শেষ হয়েছে। পূজামণ্ডপ কমিটির সদস্যরাও আমাদের সহযোগিতা করেছেন।

তিনি আরও বলেন, আজ ১০ মহররম শিয়া সম্প্রদায় তথা মুসলিম ইতিহাসে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ন একটি দিন। আমরা তাদের মিছিলের রুট নির্ধারণ করে দিয়েছি। সেই রুট মেনেই তারা মিছিল করেছেন।

আইজিপি বলেন, ছুরি, কাঁচি, বল্লম ও তলোয়ার নিয়ে মিছিল করতে নিষেধ করা হয়েছিল। এ ব্যাপারে মহরম উদযাপন কমিটি নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনার মাধ্যমে যে সিদ্ধান্ত হয়েছিল তা মেনে নিয়ে তারা অত্যন্ত সুশৃঙ্খলভাবে তাজিয়া মিছিল সম্পন্ন করেছেন। এ ব্যাপারে সকল মহল সার্বিক সহযোগিতা করায় আইজিপি সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

এসময় ডিএমপির কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়াসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।