ঢাকা ০৬:০৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টাঙ্গাইলে নিহত জঙ্গি হাবীব মুক্তিযোদ্ধার সন্তান

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ০২:৫১:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ অক্টোবর ২০১৬
  • ২৪৬ বার

টাঙ্গাইলে নিহত দুই জঙ্গিদের মধ্যে একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান বলে জানা গেছে। আহসান হাবীব নামের নিহত ওই জঙ্গি নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার রাজাপুর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা আলতাফ হোসেনের সন্তান। গত ৮ অক্টোবর শনিবার র‍্যাবের অভিযানে টাঙ্গাইলের কাগমারা শহরের মির্জামাঠ এলাকায় নিহত হন আহসান হাবীব।

নওগাঁ কোর্টের মুহুরি মুক্তিযোদ্ধা আলতাফ হোসেন জানান, আমার দুই সন্তান। মেয়ে বড় ও আহসান হাবীব ছোট। আহসান হাবীব রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজি বিভাগের ছাত্র ছিল। ২০১৩ সালে তৃতীয় বর্ষে থাকার সময় সে একবার অস্ত্রসহ রাজশাহীতে গ্রেফতার হয়েছিল। এরপর জামিনে মুক্ত হয়ে সে নিরুদ্দেশ হয়ে যায়। আমাদের সঙ্গে প্রায় ৩ বছর তার কোনো যোগাযোগ ছিল না। এই বিষয়ে আমি রাজশাহীর বোয়ালিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছিলাম।

র‍্যাবের কাছে থেকে আমি মঙ্গলবার জানতে পারি, গত ৮ অক্টোবর টাঙ্গাইলে জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে গোপন বৈঠক করার সময় সে র‍্যাবের অভিযানে নিহত হয়েছে।

রাণীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাবীবের চাচা মো.শরীফ হোসেন জানান, আহসান হাবীব খুব মেধাবী ছাত্র ছিল। আমরা কখনো জানতেও পারিনি যে হাবীব জঙ্গিদের সঙ্গে যুক্ত হয়ে পড়েছে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

টাঙ্গাইলে নিহত জঙ্গি হাবীব মুক্তিযোদ্ধার সন্তান

আপডেট টাইম : ০২:৫১:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ অক্টোবর ২০১৬

টাঙ্গাইলে নিহত দুই জঙ্গিদের মধ্যে একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান বলে জানা গেছে। আহসান হাবীব নামের নিহত ওই জঙ্গি নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার রাজাপুর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা আলতাফ হোসেনের সন্তান। গত ৮ অক্টোবর শনিবার র‍্যাবের অভিযানে টাঙ্গাইলের কাগমারা শহরের মির্জামাঠ এলাকায় নিহত হন আহসান হাবীব।

নওগাঁ কোর্টের মুহুরি মুক্তিযোদ্ধা আলতাফ হোসেন জানান, আমার দুই সন্তান। মেয়ে বড় ও আহসান হাবীব ছোট। আহসান হাবীব রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজি বিভাগের ছাত্র ছিল। ২০১৩ সালে তৃতীয় বর্ষে থাকার সময় সে একবার অস্ত্রসহ রাজশাহীতে গ্রেফতার হয়েছিল। এরপর জামিনে মুক্ত হয়ে সে নিরুদ্দেশ হয়ে যায়। আমাদের সঙ্গে প্রায় ৩ বছর তার কোনো যোগাযোগ ছিল না। এই বিষয়ে আমি রাজশাহীর বোয়ালিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছিলাম।

র‍্যাবের কাছে থেকে আমি মঙ্গলবার জানতে পারি, গত ৮ অক্টোবর টাঙ্গাইলে জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে গোপন বৈঠক করার সময় সে র‍্যাবের অভিযানে নিহত হয়েছে।

রাণীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাবীবের চাচা মো.শরীফ হোসেন জানান, আহসান হাবীব খুব মেধাবী ছাত্র ছিল। আমরা কখনো জানতেও পারিনি যে হাবীব জঙ্গিদের সঙ্গে যুক্ত হয়ে পড়েছে।