ঢাকা ০৫:১২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হিলিতে কমেছে পেঁয়াজের দাম

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ০৫:৫২:৫৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১ অক্টোবর ২০২৩
  • ৭৫ বার

হাওর বার্তা ডেস্কঃ এক দিনের ব্যবধানে দিনাজপুরের হিলিতে কমেছে ভারত থেকে আমদানিকৃত পেঁয়াজের দাম। কেজি প্রতি ৭ টাকা কমে বর্তমানে বিক্রি হচ্ছে ৫৩ টাকা কেজি দরে। যা গতকালকে বিক্রি হয়েছিল ৬০ টাকায়। ভারত থেকে আমদানি বেশি হওয়ার কারণে কমেছে দাম বলছেন ব্যবসায়ীরা। দাম কিছুটা কমার কারণে স্বস্তি ফিরেছে সাধারণ ক্রেতাদের মাঝে।

রোববার (১ অক্টোবর) দুপুরে হিলির কাঁচা বাজার ঘুরে এ তথ্য পাওয়া যায়।

হিলি বাজারে পেঁয়াজ কিনতে আসা মুশিউর রহমান বলেন, পেঁয়াজের বাজারে আজ কিছুটা স্বস্তি ফিরেছে। তবে একেক দিন একেক রকম দাম এতে করে আমরা অনেক সমস্যায় পড়ছি। কারণ বাজারে প্রায় সব জিনিস পত্রের দামই বেশি। কাঁচামরিচের দাম ১৫০ টাকার উপরে, আদা কেজি প্রতি ২০০ টাকা, রসুন ১৮০ টাকা, সেই সঙ্গে মসলার বাজারও চড়া। এই সময় সংসার পরিচালনা করাই কষ্টকর হয়ে পড়েছে।

হিলি বাজারের পেঁয়াজ বিক্রেতা শাকিল মাহমুদ বলেন, ভারত থেকে বেশি পরিমাণ পেঁয়াজ আমদানি হওয়ার কারণে পেঁয়াজের দাম কমেছে। বর্তমানে কেজি প্রকি ভারতীয় পেঁয়াজ ৫৩ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছি। আমরা স্থলবন্দর থেকে ৫০ টাকা কেজি পাইকারি কিনছি, সব খরচ বাদ দিয়ে আমাদের কেজি প্রতি ১ থেকে ২ টাকা লাভ হচ্ছে। এর মধ্যে অনেক পেঁয়াজ অতিরিক্ত গরমের কারণে পঁচে নষ্ট হয়। এতে আমাদের অনেক ক্ষতি হয়।

হিলি কাস্টমসের তথ্য মতে, গতকাল ভারতীয় ৪৭ ট্রাকে ১ হাজার ৩৯৫ মেট্রিকটন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

জনপ্রিয় সংবাদ

হিলিতে কমেছে পেঁয়াজের দাম

আপডেট টাইম : ০৫:৫২:৫৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১ অক্টোবর ২০২৩

হাওর বার্তা ডেস্কঃ এক দিনের ব্যবধানে দিনাজপুরের হিলিতে কমেছে ভারত থেকে আমদানিকৃত পেঁয়াজের দাম। কেজি প্রতি ৭ টাকা কমে বর্তমানে বিক্রি হচ্ছে ৫৩ টাকা কেজি দরে। যা গতকালকে বিক্রি হয়েছিল ৬০ টাকায়। ভারত থেকে আমদানি বেশি হওয়ার কারণে কমেছে দাম বলছেন ব্যবসায়ীরা। দাম কিছুটা কমার কারণে স্বস্তি ফিরেছে সাধারণ ক্রেতাদের মাঝে।

রোববার (১ অক্টোবর) দুপুরে হিলির কাঁচা বাজার ঘুরে এ তথ্য পাওয়া যায়।

হিলি বাজারে পেঁয়াজ কিনতে আসা মুশিউর রহমান বলেন, পেঁয়াজের বাজারে আজ কিছুটা স্বস্তি ফিরেছে। তবে একেক দিন একেক রকম দাম এতে করে আমরা অনেক সমস্যায় পড়ছি। কারণ বাজারে প্রায় সব জিনিস পত্রের দামই বেশি। কাঁচামরিচের দাম ১৫০ টাকার উপরে, আদা কেজি প্রতি ২০০ টাকা, রসুন ১৮০ টাকা, সেই সঙ্গে মসলার বাজারও চড়া। এই সময় সংসার পরিচালনা করাই কষ্টকর হয়ে পড়েছে।

হিলি বাজারের পেঁয়াজ বিক্রেতা শাকিল মাহমুদ বলেন, ভারত থেকে বেশি পরিমাণ পেঁয়াজ আমদানি হওয়ার কারণে পেঁয়াজের দাম কমেছে। বর্তমানে কেজি প্রকি ভারতীয় পেঁয়াজ ৫৩ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছি। আমরা স্থলবন্দর থেকে ৫০ টাকা কেজি পাইকারি কিনছি, সব খরচ বাদ দিয়ে আমাদের কেজি প্রতি ১ থেকে ২ টাকা লাভ হচ্ছে। এর মধ্যে অনেক পেঁয়াজ অতিরিক্ত গরমের কারণে পঁচে নষ্ট হয়। এতে আমাদের অনেক ক্ষতি হয়।

হিলি কাস্টমসের তথ্য মতে, গতকাল ভারতীয় ৪৭ ট্রাকে ১ হাজার ৩৯৫ মেট্রিকটন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে।