ঢাকা ০৪:৪৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আগের চড়া দামেই বিক্রি হচ্ছে শসা, লেবু, বেগুন

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ০৮:৫২:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১ এপ্রিল ২০২৩
  • ৬৬ বার

রাজধানীর মহাখালীর কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা যায়, আগের চড়া দামেই বিক্রি হচ্ছে শসা, লেবু, বেগুন। অপরিবর্তিত রয়েছে তেল, ডাল, পেঁয়াজ, চিনি, ডিম, গরু, খাসির মাংসের দাম।

শনিবার ধরণ ভেদে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ৩৫ থেকে ৪৫ টাকায়, খোলা চিনির সরবরাহ কিছুটা বাড়লেও দাম অপরিবর্তিত। খোলা চিনি ১০৭ টাকা ও প্যাকেটজাত চিনি ১১২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিক্রেতারা।

ব্রয়লার মুরগির দাম ২২০ টাকা কেজি, ডিম বিক্রি হচ্ছে ৪৫ টাকা হালি। এদিকে, গরু ৭৫০ টাকা ও খাসি ১১০০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

ক্রেতারা বলছেন, কেবল ব্রয়লার মুরগির দামই কমেছে বাকি অন্য নিত্যপণ্যের বাজারে দামের কোন পরিবর্তন নেই। ছোলা ৯০ থেকে ৮৫ টাকা ও মশুর ডাল ১০০ থেকে ১৪০ টাকা কেজি, সয়াবিন তেল ১৮৫ টাকা লিটার বিক্রি হচ্ছে।

এর আগে, শুক্রবার মধ্যরাত ১২টার দিকে রাজধানীর দু’টি বাজারে ব্রয়লার মুরগীর বাজার দর নিয়ে মনিটরিং করে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। সংস্থাটির কর্মকর্তারা পাকা রশিদ দেয়ার নির্দেশনা দেন মুরগীর খামারীদের প্রতি। অধিদপ্তরের পরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। বাজার পর্যালোচনা করে সংস্থাটির কর্মকর্তরা মনে করেন, ব্রয়লার মুরগীর দাম বৃদ্ধির পেছনে পাইকারদের কারসাজি রয়েছে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

আগের চড়া দামেই বিক্রি হচ্ছে শসা, লেবু, বেগুন

আপডেট টাইম : ০৮:৫২:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১ এপ্রিল ২০২৩

রাজধানীর মহাখালীর কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা যায়, আগের চড়া দামেই বিক্রি হচ্ছে শসা, লেবু, বেগুন। অপরিবর্তিত রয়েছে তেল, ডাল, পেঁয়াজ, চিনি, ডিম, গরু, খাসির মাংসের দাম।

শনিবার ধরণ ভেদে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ৩৫ থেকে ৪৫ টাকায়, খোলা চিনির সরবরাহ কিছুটা বাড়লেও দাম অপরিবর্তিত। খোলা চিনি ১০৭ টাকা ও প্যাকেটজাত চিনি ১১২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিক্রেতারা।

ব্রয়লার মুরগির দাম ২২০ টাকা কেজি, ডিম বিক্রি হচ্ছে ৪৫ টাকা হালি। এদিকে, গরু ৭৫০ টাকা ও খাসি ১১০০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

ক্রেতারা বলছেন, কেবল ব্রয়লার মুরগির দামই কমেছে বাকি অন্য নিত্যপণ্যের বাজারে দামের কোন পরিবর্তন নেই। ছোলা ৯০ থেকে ৮৫ টাকা ও মশুর ডাল ১০০ থেকে ১৪০ টাকা কেজি, সয়াবিন তেল ১৮৫ টাকা লিটার বিক্রি হচ্ছে।

এর আগে, শুক্রবার মধ্যরাত ১২টার দিকে রাজধানীর দু’টি বাজারে ব্রয়লার মুরগীর বাজার দর নিয়ে মনিটরিং করে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। সংস্থাটির কর্মকর্তারা পাকা রশিদ দেয়ার নির্দেশনা দেন মুরগীর খামারীদের প্রতি। অধিদপ্তরের পরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। বাজার পর্যালোচনা করে সংস্থাটির কর্মকর্তরা মনে করেন, ব্রয়লার মুরগীর দাম বৃদ্ধির পেছনে পাইকারদের কারসাজি রয়েছে।