,

ইউক্রেনের ৪টি অঞ্চলে রাশিয়ার বিজয় ঘোষণা

হাওর বার্তা ডেস্কঃ ইউক্রেনের অধিকৃত ৪টি অঞ্চলে গণভোটে ৯৬ শতাংশ ভোট পাওয়ার পর বিজয় ঘোষণা করেছে রাশিয়া। রাশিয়ার নিরাপত্তা পরিষদের উপপ্রধান দিমিত্রি মেদভেদেভ বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) ভোরে তার অফিসিয়াল টেলিগ্রাম চ্যানেলে লেখেন, গণভোট শেষ হয়েছে। তিনি বলেন,‘ফলাফল পরিষ্কার’। এসময় তিনি আরও বলেন, ‘রাশিয়ায় স্বাগত’।

দোনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিকের প্রধান ডেনিস পুশিলিন, টেলিগ্রামে পোস্ট করে বলেন যে, তার অঞ্চলে ভোট গণনা সম্পন্ন হয়েছে। রুশ ফেডারেশনে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার পক্ষে ভোট পড়েছে ৯৯ দশমিক ২৩ শতাংশ।

রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন রিয়া নভোস্তি নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে, খেরসন, জাপোরিঝিয়া এবং লুহানস্ক অঞ্চলেও নিরুঙ্কুশ বিজয় লাভ করেছে রাশিয়া।

মস্কোর এই ঘোষণা যুদ্ধের একটি নতুন কৌশল এবং ইউক্রেন ও পশ্চিমাদের সঙ্গে দ্বন্দ্বের নতুন মোড় নিচ্ছে।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি তার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে বুধবার এক বিবৃতিতে ফলাফল প্রত্যাখ্যান করেছেন। তিনি বলেন, ‘রাশিয়ার কোনো অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড ইউক্রেনের জন্য কিছুই পরিবর্তন করবে না’। অধিকৃত ভূখণ্ডে ‘রাশিয়ার এই প্রহসনকে গণভোটের অনুকরণও বলা যাবে না’ বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

এদিকে, এই গণভোটের নিন্দা জানিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। তিনি বলেন, জাতিসংঘ সনদ ও আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন এটি।

রাশিয়ান সৈন্যরা যে চারটি অঞ্চলে ভোট অনুষ্ঠিত হয়েছিল তার কোনো অঞ্চলই সম্পূর্ণরূপে নিয়ন্ত্রণ করছে না এবং এখনো তীব্র লড়াইয়ের খবর পাওয়া যাচ্ছে।

২৩ সেপ্টেম্বর থেকে ভোট শুরু হয় ইউক্রেনের লুহানস্ক, দোনেৎস্ক, খেরসন এবং জাপোরিঝিয়া প্রদেশে। এর আগে রুশ-সমর্থিতরা শুক্রবার থেকে মঙ্গলবার (২৩ থেকে ২৭ সেপ্টেম্বর) লুহানস্ক, দোনেৎস্ক, খেরসন এবং জাপোরিঝিয়া প্রদেশে গণভোটের ঘোষণা দেয়। যা ইউক্রেনের প্রায় ১৫ শতাংশ ভূখণ্ড বা হাঙ্গেরির আয়তনের সমান এলাকা প্রতিনিধিত্ব করছে।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন রাশিয়ার মাটি রক্ষার জন্য পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করার একটি প্রচ্ছন্ন হুমকি দিয়েছেন। যেখানে গণভোটে জয়ী হওয়ায় এই চারটি অঞ্চলও অন্তর্ভুক্ত হবে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর