,

হঠাৎ পুতিন মারা গেলে কি হবে?

হাওর বার্তা ডেস্কঃ সাম্প্রতিক সময়ে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের স্বাস্থ্যের বিষয়টি বেশ কয়েকবার আলোচনায় এসেছে। কেউ কেউ দাবি করেছে পুতিনের ক্যান্সার হয়েছে, তার পারকিনসন রোগ হয়েছে। এমনকি বলা হয়েছে, কয়েকদিন আগে তাকে হত্যা করার চেষ্টা করা হয়েছে।

এখন পর্যন্ত অবশ্য পুতিনের শারীরিক অবস্থা নিয়ে কোনো ডাক্তারি রিপোর্ট পাওয়া যায়নি।

তবে যদি হঠাৎ করে রুশ প্রেসিডেন্ট মারা যান তাহলে কি হবে?

গণমাধ্যম আল জাজিরাকে রাজনৈতিক বিশ্লেষক তাতিনা স্তানোভায়া বলেছেন, পুতিন চাইলে ১০ বছর বা তারও বেশি সময় ক্ষমতায় থাকতে পারবেন, এটি পুরোটিই নির্ভর করে পারিপার্শ্বিক অবস্থার ওপর। আমি পুতিনের স্বাস্থ্যের বিষয়টির দিকে খুব বেশি নজর দেব না।

যদি ৬৯ বছর বয়সী পুতিন হঠাৎ করে মারা যান বা প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব ছেড়ে দেন, তাহলে ফেডারেশন কাউন্সিল ১৪ দিনের মধ্যে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করবে। যদি তারা না পারে তাহলে নির্বাচন কমিশন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করবে।

এই সময়টার মধ্যে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী মিখাইল মিসুসতিন ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট হবেন। তবে মিখাইল পুতিনের এতটা ঘনিষ্ঠ ব্যক্তি না। তাছাড়া নির্বাচনের প্রার্থীতার ক্ষেত্রেও তার খুব বেশি একটা গ্রহণযোগ্যতা নেই।

রাজনৈতিক বিশ্লেষক তাতিনা স্তানোভায়া মনে করেন, তার বদলে (এলিট) ধনী ব্যবসায়ী, নিরাপত্তা কর্মকর্তারা (প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই সোইগুর মতো ব্যক্তিরা) ক্ষমতার দখল নিয়ে মাঠে নামবেন।

তাতিনা স্তানাভায়া বলেন, যদি প্রেসিডেন্ট পুতিন কালই মারা যান তাহলে প্রেসিডেন্টের ক্ষমতা দখল নিয়ে খুব বেশি ঝামেলা হবে না। কিন্তু সময় যত গড়াবে বিষয়টি ততই কঠিন হয়ে যাবে।

মার্ক গালেত্তি নামে একজন নিরাপত্ত কর্মকর্তা আল জাজিরাকে বলেছেন, বর্তমানে পুতিনের শারীরিক জটিলতার কোনো লক্ষণ নেই। এমনকি ইউক্রেনে হামলা করার কারণেও তার রাজনৈতিক অঙ্গন থেকে সরে যাওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই, যদি না তার কাছের ব্যক্তিরা তাকে সরিয়ে দিতে তৎপর না হয়।

এদিকে ২০০০ সাল থেকে রাশিয়ার ক্ষমতায় আছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ২০০০ সাল থেকে শুরু করে ২০০৮ সাল পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট ছিলেন তিনি। এরপর  ২০১২ সালে ফের প্রেসিডেন্ট হয়ে এখন পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।

২০০৮ থেকে ২০১২ পর্যন্ত মাঝের সময়টায় রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ছিলেন দিমিত্রি মেদভেদেভ। তখন প্রধানমন্ত্রী ছিলেন পুতিন। কিন্তু বলা হয়ে থাকে প্রধানমন্ত্রী হলেও পুতিনই ছিলেন আসল ক্ষমতাধর।

পুতিনের বর্তমান প্রেসিডেন্টের সময়ের সমাপ্তি হবে ২০২৪ সালে। কিন্তু ২০২০ সালে রাশিয়ার সংবিধানে পরিবর্তন আনা হয়। এর মাধ্যমে ছয় বছর করে আরও দুইবার অর্থাৎ ২০৩৬ সাল পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট থাকতে পারবেন পুতিন। ওই সময় তার বয়স হবে ৮৬ বছর।

সূত্র: আল জাজিরা

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর