,

8603955f-50c2-498f-a8ab-a61e9a27f8d0

সিরিজ বাঁচানোর লক্ষ্যে যে পরিকল্পনা নিয়ে মাঠে নামতে চান মাহমুদউল্লাহ

হাওর বার্তা ডেস্কঃ তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচ বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হয়। দ্বিতীয় ম্যাচে টাইগাররা হেরেছেন ৩৫ রানে। সিরিজের তৃতীয় এবং শেষ ম্যাচ আজ। এই ম্যাচে মাঠে নামার আগে ব্যাকফুটে বাংলাদেশ। কারণ এরই মধ্যে দুই ম্যাচের সিরিজে পরিণত হওয়া টি-টোয়েন্টি ১-০ তে এগিয়ে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তাই আজ তারা নামবেন সিরিজ নিশ্চিত করতে। অপরদিকে বাংলাদেশ দলকে নামতে হচ্ছে সিরিজ বাঁচানোর লক্ষ্য নিয়ে। এ বিষয় কথা বলেছেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

 তিনি বলেন, ‘টি-টোয়েন্টি খেলাটাই এ রকম। অনেক সময় ওপেনাররা ভালো শুরু করে দেবে কিন্তু টেলএন্ডার টেনে নাও নিতে পারে। কাউকে না কাউকে দায়িত্ব নিতে হবে। যেমন আগের ম্যাচে সাকিব যে ইনিংস খেলল। আমরা ১৬০ রানের কাছাকাছি চলে গিয়েছিলাম। আমাদের দলে এমন একজনকে ব্যাটিং করতে হবে। সঙ্গে কেউ ২০-৩০ রানের ক্যামিও ইনিংস খেললে আমরা ১৬০-১৭০ রান করতে পারব।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই বিশ্বাস আছে— নিয়মিত ১৬০-১৭০ রান করতে পারলে বোলাররা সেটি ডিফেন্ড করতে পারবে। আমাদের বোলিং অ্যাটাক খুব ভালো। হয়তো আগের ম্যাচে পেসাররা সেভাবে ভালো করতে পারেনি। কিন্তু অনেক ম্যাচেই আমাদের বোলাররা ছোট রানে আটকে রেখেছিল। এখনো অগাধ বিশ্বাস আছে বোলিং বিভাগের ওপর— ওরা ইনশাআল্লাহ ঘুরে দাঁড়াবে।’

সিরিজ বাঁচাতে তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই সফরকারীদের সামনে। তবে কাজটা মোটেও সহজ নয় বাংলাদেশের জন্য। দলীয় অবস্থান আর ব্যাটারদের ধারাবাহিক ব্যর্থতায় রীতিমতো দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে গোটা দলের।

তবে খেলাটা গায়ানায় বলেই আত্মবিশ্বাসে খানিক রসদ পাচ্ছে বাংলাদেশ দল। প্রভিডেন্স স্টেডিয়ামে এর আগে কোনো টি-টোয়েন্টি না খেললেও তিনটি ওয়ানডে খেলে জয় পেয়েছে দুই ম্যাচে। কিন্তু প্রথম টি-টোয়েন্টির মতো এ ম্যাচেও সঙ্গী হয়েছে শঙ্কা। কারণ পূর্বাভাসে সুখবর নেই। বুধবার সকাল থেকে বৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে বৃহস্পতিবার ম্যাচের দিন। তাতে ম্যাচ পণ্ড হয়ে যাওয়ার শঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।

যদিও ম্যাচ হবে ধরে নিয়েই পরিকল্পনা সাজাচ্ছে বাংলাদেশ দল। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ তো একাদশে পরিবর্তনেরও ইঙ্গিত দিয়েছেন। পেসার তাসকিন আহমেদের পরিবর্তে ফিরতে পারেন বাঁহাতি স্পিনার নাসুম আহমেদ। কারণ  গায়ানার উইকেট অনেকটা উপমহাদেশর মতো। স্পিনাররা সহায়তা পেয়ে থাকেন। পরিসংখ্যাও স্পিনারদের হয়ে কথা বলছে। সে হিসাবে তিন পেসারের পরিবর্তনে দুই পেসার খেলানোর ভাবনা বাংলাদেশের।

আবহাওয়া আর কন্ডিশন যেমনি হোক, মানিয়ে নেওয়ার বার্তা দিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। অধিনায়ক বলেন, ‘দিকনির্দেশনার কিছু নেই, মানিয়ে নিতে হবে। সবসময় মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকতে হবে— এটিই বড় কথা। তার পর যেমন পরিস্থিতিই হোক চেষ্টা করব মানিয়ে নিয়ে আমাদের ক্রিকেট চালিয়ে যাওয়ার।’

এ ম্যাচে বাংলাদেশ দলের ভাবনার জায়গা ব্যাটিং বিভাগ। ধারাবাহিকভাবে ব্যর্থ হচ্ছেন ব্যাটাররা। সবশেষ ম্যাচে তবু সাকিব আল হাসান একাই লড়াই করেছেন। তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে তার মতো আরেকজনকে দেখতে চান অধিনায়ক। সব মিলিয়ে ১৬০-১৭০ রানে পুঁজি বোলারদের এনে দিতে পারলে ম্যাচ জেতা সম্ভব বলে মনে করছেন তিনি।

বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ
এনামুল হক বিজয়, লিটন দাস, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), আফিফ হোসেন ধ্রুব, নুরুল হাসান সোহান, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, শেখ মেহেদী হাসান, মোস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলাম ও নাসুম আহমেদ।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর