,

anjan-2206110519

বলিভিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট আনেজ’র ১০ বছরের কারাদণ্ড

হাওর বার্তা ডেস্কঃ বলিভিয়ার সাবেক নারী প্রেসিডেন্ট জেনিন আনেজকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

তার প্রতিদ্বন্দ্বী ও পূর্বসুরি ইভো মোরালেসকে ক্ষমতাচ্যুত করার ষড়যন্ত্রের দায়ে তাকে এ সাজা দেওয়া হয়েছে। খবর এএফপি’র।

খবরে বলা হয়, লাপেজ নগরীর প্রথম সেন্টেন্সিং কোর্ট ঘোষিত আদেশ অনুযায়ী, আনেজ নগরীর একটি মহিলা কারাগারে ১০ বছর সাজা ভোগ করবেন। তার বিচার শুরুর তিন মাস এবং তাকে আটকের ১৫ মাস পর এ রায় ঘোষণা করা হলো।

জেনিন আনেজের বিরুদ্ধে সেই সময়কার সামরিক অভ্যুত্থানের ষড়যন্ত্র, রাষ্ট্রদ্রোহ ও সন্ত্রাসবাদের অভিযোগ আনা হয়। পরে তাঁকে লা পাজের নারী কারাগারে পাঠানো হয়। তখন থেকেই তিনি বন্দী আছেন।

২০১৯ সালে প্রেসিডেন্ট ইভো মোরালেসের বিরুদ্ধে সামরিক অভ্যুত্থানের সময় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে ২২ জন নিহত হন। তারা সবাই মোরালেসের সমর্থক ছিলেন। এসব নিহতের ঘটনার জন্য আনেজকে দায়ী করা হয়। যদিও নিজের বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ নাকচ করে দেন সাবেক এই প্রেসিডেন্ট।

নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগে বিক্ষোভের মুখে ২০১৯ সালের নভেম্বরে সাবেক প্রেসিডেন্ট ইভো মোরালেস পদত্যাগ করেন। এরপর তিনি ও তার মিত্ররা দেশ ছেড়ে পালান। মোরালেস দাবি করেছিলেন, অভ্যুত্থান করে তাকে ক্ষমতাচ্যুত করা হয়।

এরপর বলিভিয়ার অন্তবর্তী প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতায় আসেন ডানপন্থী আনেজ। ২০২০ সালের অক্টোবরে নতুন একটি নির্বাচনের পর মোরালেস নির্বাসন থেকে দেশে ফেরেন। নির্বাচনে জিতে মোরালেস–সমর্থিত বামপন্থী দল মুভমেন্ট ফর সোশ্যালিজম (এমএএস)।

প্রসঙ্গত, কিছু দিন আগে কারাগারে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন জিনিন আনেজ চাভেজ।

দীর্ঘ সময় কারাগারে থাকার কারণে আনেজ ‘তীব্র বিষাদে’ ভুগছিলেন বলে জানিয়েছিলেন তার মেয়ে ক্যারোলিনা রিবেরা। এ কারণেই তিনি আত্মহত্যার চেষ্টা করেন বলে ধারণা তার।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর