,

Clitoria_ternatea-1233-2201061107

নীল অপরাজিতা : যেমন রূপ, তেমন গুণ

হাওর বার্তা ডেস্কঃ ফুল পছন্দ করে না এমন লোক খুঁজে পাওয়া যাবে না। যুগ যুগ ধরে সৌন্দর্যবর্ধনের পাশাপাশি নানা প্রয়োজনে ব্যবহার হয়ে আসছে নানা ধরনের ফুল। তবে কিছু কিছু ফুল সৌন্দর্যবর্ধনের পাশাপাশি বেশ ওষধি গুণাগুণ সম্পন্ন হয়ে থাকে। আমাদের নানান ধরনের জটিল রোগ থেকে বেশ খানিকটা প্রশান্তি দিতে পারে কিছু ফুল। তেমনি গুণসম্পন্ন ফুল হচ্ছে অপরাজিতা।

বেশির ভাগ ক্ষেত্রে আমাদের দেশে সাধারণত সাদা কিংবা নীল, এই দুই প্রজাতির অপরাজিতা ফুলের দেখা পাওয়া যায়। সাদা কিংবা নীল, দুটোই তার সৌন্দর্যের জন্য সমান জনপ্রিয়। এই অপারজিতা গাছটির বৈজ্ঞানিক নাম হলো Clitoria ternatea।

অপারজিতায় রয়েছে মানবশরীরের জন্য অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং সেই সঙ্গে এটি আমাদের শরীরে ফ্রি রেডিক্যাল নিরাময়ের ক্ষেত্রে কার্যকর ভূমিকা পালন করে থাকে। যে কারণে শরীরে ক্যানসার নিরাময়ের ক্ষেত্রে এটা বেশ কার্যকর।

এ ছাড়া আমাদের শরীরের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ফাইটোকেমিক্যাল জমিন, ফলিফেনোল, স্যাপোনিন, ট্যানিন, অন্থসায়ানিন ইত্যাদি সরবরাহ করে থাকে।

অন্যান্য চায়ের তুলনায় অপরাজিতা চায়ের ভেষজ গুণ অনেক বেশি। এই চা রোগপ্রতিরোধ বৃদ্ধি করার পাশাপাশি ঠান্ডাজনিত সমস্যা দূর করতে সাহায্য কর। সারাদিনের ক্লান্তি দূর করতে সকালের শুরুটা এককাপ অপরাজিতার চা দিয়ে করা ভালো। অ্যান্টি অক্সিডেন্টের গুণে ভরপুর অপরাজিতার চা শরীরে বয়সের ছাপ পড়তে দেয় না। শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কয়েকগুণ বাড়িয়ে তোলে।

এজন্য অপরাজিতা ফুল শুকিয়ে একটা বয়ামে রাখতে হবে। চা তৈরির সময় দেড় কাপ পানিতে ৫ থেকে ৬টি শুকনো অপরাজিতা দিয়ে পানি ফুটাতে হবে। ধীরে ধীরে ফুটন্ত পানি নীল হয়ে আসলে কাপে ঢেলে চিনি মেশাতে হবে। স্বাদ বাড়াতে লেবু যোগ করা যায়, তবে এতে নীল রঙ পালটে মেজেন্টা হয়ে যাবে। বাড়তি স্বাদ ও গন্ধের জন্য এলাচ, মধু, পুদিনাপাতা যোগ করতে পারেন।

অনেকে বারান্দায় কিংবা ছাদে রোপণ করে থাকে এই গাছটি। বাড়ির সামনে জায়গা থাকলে মাটিতেও রোপণ করা যায়। অল্প বা বৃহৎ পরিসরে, দুভাবেই অপরাজিতা অনায়াসে বেড়ে ওঠে।

তবে যেকোনো গাছের ক্ষেত্রে পরিপূর্ণরূপে বৃদ্ধির জন্য রোদ খুব প্রয়োজন। অপরাজিতাও তার ব্যতিক্রম নয়। আপনার বারান্দাতে যদি পরিপূর্ণ রোদ থাকে, তাহলে বারান্দাতেই খুব সুন্দর করে বেড়ে উঠতে পারে এই গাছটি।

নানা গুণে গুণান্বিত এই উপকারী অপরাজিতা গাছটি আপনি চাইলে সংরক্ষণ করে নিতে পারেন নিজের বাড়িতে। এতে আপনি যেমন সুস্থ থাকতে কার্যকর সমাধান পেতে পারেন এবং সেই সাথে বাড়ির সৌন্দর্যবর্ধনে বেশ কাজে দিতে পারে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর