,

image-495580-1638872534

হাফেজ হারুন৫ লাখ টাকা পেলে বেঁচে যাবেন

হাওর বার্তা ডেস্কঃ ৫ লাখ টাকার অভাবে চিকিৎসা করাতে পারছেন না চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার হাফেজ মাওলানা হারুনুর রশিদ (৩৩)। মেরুদন্ডে (স্পাইনাল কর্ডে) সমস্যা রয়েছে তার। নিজের জন্য না হলেও তার দুই সন্তানের জন্য সুস্থভাবে বাঁচতে চান তিনি।

হারুনুর রশিদ উপজেলার লোহাগাড়া সদর ইউনিয়নের রশিদের পাড়ার মৃত বজল আহমদ বাহাদুরের ছেলে ও নুরিয়া আয়শা ছিদ্দিকা (র.) মাদ্রাসার সহ-প্রধানশিক্ষক।

তিনি ২০০০ সালে কোরআন হিফজ করেন। ২০০২ সালে  হঠাৎ জ্বরে আক্রান্ত হয়ে পুরো শরীর অবশ হয়ে যায়। চিকিৎসার পর মোটামুটি সুস্থ হন। এরপর ২০১৫ সালে চুনতী হাকিমিয়া কামিল মাদ্রাসা থেকে কামিল (এমএ) পাশ করেন। গ্রামের পার্শ্ববর্তী নুরিয়া আয়শা ছিদ্দিকা (র.) মাদ্রাসায় শিক্ষকতা শুরু করেন। তিন ও এক বছর বয়সী দুই ছেলে সন্তানসহ ৫ সদস্যের পরিবার পরিজন নিয়ে সবকিছু ঠিকঠাকমতোই চলছিল তার।কিন্তু হঠাৎ গত দুই বছর ধরে তার শরীর আবার দিনদিন খারাপ হতে থাকে।

বর্তমানে তিনি চলাফেরা করতে পারেন না বললেই চলে। ডাক্তার দেখানোর পর জানতে পারেন তার মেরুদন্ডে (স্পাইনাল কর্ডে) সমস্যা রয়েছে। যদি দ্রুত অপারেশন না করেন যেকোনো সময় পুরাপুরি পঙ্গু  হয়ে যেতে পারেন তিনি। ডাক্তারের মতে চিকিৎসার জন্য প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকার প্রয়োজন, যা তার পরিবারের পক্ষে বহন করা দুঃসাধ্য।

হাফেজ মাওলানা হারুনুর রশিদ জানান, তিনি নিজেকে নিয়ে যতটা না চিন্তিত তার চেয়ে বেশি চিন্তিত পরিবারের সদস্যদের নিয়ে। সংসারের হাল ধরে রাখতে তার সুস্থ হওয়া খুবই প্রয়োজন।

তিনি চিকিৎসার খরচ বহনে অক্ষম উল্লেখ করে হৃদয়বান সকল মানুষকে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার অনুরোধ জানান।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর