,

image-180730-1636348429bdjournal

ইউপি নির্বাচন রানীশংকৈল ও হরিপুরে আ.লীগের ৯ ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী বহিষ্কার

হাওর বার্তা ডেস্কঃ ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী হওয়ায় দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈল ও হরিপুর উপজেলার ৬ ইউনিয়নের ৯ আওয়ামী লীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দীপক কুমার রায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ১১ নভেম্বর রাণীশংকৈল উপজেলার ৫টি ইউনিয়ন ও হরিপুর উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে তাদের বহিষ্কার করা হয়েছে।

দীপক কুমার রায় জানান, নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর বিপরীতে রানীশংকৈল উপজেলায় তিনটি ইউনিয়নে ৬ জন প্রার্থী হয়েছেন। পরে রানীশংকৈল উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ সইদুল হক ও সাধারণ সম্পাদক তাজউদ্দিন আহম্মেদের স্বাক্ষরিত একটি চিঠির মাধ্যমে ওই ৬ জনের নামের তালিকা জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে পাঠানো হলে তাদেরকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়।

বহিষ্কৃত আওয়ামী লীগের নেতারা হলেন- ১নং ধর্মগড় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আকবর আলী মাষ্টার, উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক রিপন, ২নং নেকমরদ ইউনিয়নে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব আবুল হোসেন, ৪নং লেহেম্বা ইউনিয়নে উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রমবিষয়ক সম্পাদক রওশন আলী, উপজেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি খালেকুজ্জামান ও লেহেম্বা ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের সভাপতি তাহের আলী মাস্টার।

অন্যদিকে হরিপুর উপজেলার বহিষ্কৃত নেতারা হলেন- ভাতুরিয়া ইউপিতে উপজেলা আওয়ামী লীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক মো. শাহজাহান আলী সরকার, হরিপুর ইউপিতে উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মো. নজরুল ইসলাম এবং গেদুরা ইউপিতে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইউনুস আলী।

উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নগেন কুমার পাল ও সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল হাসান মুকুল স্বাক্ষরিত একটি চিঠি জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে পাঠানো হলে এই তিনজনকে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের জন্য বহিষ্কার করা হয়।

এ বিষয়ে বহিষ্কৃত প্রার্থী মো. শাহজাহান আলী সরকার বলেন, আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে মিথ্যা তথ্য দিয়ে আমাকে দলীয় মনোনয়ন থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে।

হরিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল হাসান মুকুল বলেন, মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার পর সাময়িকভাবে বহিষ্কৃত এসব আওয়ামী লীগ নেতা ও প্রার্থীদের নানাভাবে বোঝানোর চেষ্টা করা হলেও তারা বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। তাই দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে তাদের বহিষ্কার করা হয়েছে।

বহিষ্কৃত নেতারা আর দলে ফেরার সুযোগ পাবে না জানিয়ে আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, দল এবার বিদ্রোহীদের বিষয়ে কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর