,

image-448520-1627684337

কেন ফিরতে চান প্রসূন আজাদ

হাওর বার্তা ডেস্কঃ লাক্স সুন্দরী প্রতিযোগিতায় শীর্ষ তিনে জায়গা করে আলোচনায় এসেছিলেন প্রসূন আজাদ। মডেলিং ও নাটকে অভিনয় করে অল্প সময়েই পরিচিতি তৈরি হয় তার। এক সময় ছবিতেও নাম লেখান। তিন মাধ্যমে সমানতালে কাজ করে সবার আস্থা অর্জন করেন।

কিন্তু ব্যক্তিগত জীবনের নানা ঘটনা নিয়ে মগ্ন হয়ে ধীরে ধীরে মিডিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যান তিনি। এরপর নির্মাতাদের সঙ্গেও তৈরি হয় দূরত্ব। প্রেমের টানে চলে যান অস্ট্রেলিয়ায়। সেখানে কিছুদিন বসবাস করার পর সম্পর্কছেদের কারণে দেশে ফিরলেও আর সেভাবে কাজে দেখা যায়নি এই অভিনেত্রীকে।

কাজের এই ছন্দপতনের মধ্যেই কয়েকটি ছবির কাজ করেন তিনি। এগুলো হলো- নুরুল আলম আতিকের পরিচালনায় ‘মানুষের বাগান’, রাশিদ পলাশের ‘পদ্ম পূরান’, জায়েদ রেজওয়ানের ‘মৃত্যুপুরী’ ও নিশীথ সূর্যের ‘পায়রার চিঠি’। ২০২০ সালের প্রথমদিকে সর্বশেষ অভিনয় করেছেন এই অভিনেত্রী। এরপর করোনাকাল এবং ব্যক্তিগত কিছু  কারণে তাকে নাটক কিংবা সিনেমায় অভিনয়ে দেখা যায়নি। প্রসূনের সঙ্গে এই এক বছরে তাই নির্মাতাদের এক ধরনের দূরত্ব তৈরি হয়েছে। কিন্তু প্রসূন কাজ করতে আগ্রহী।

এ প্রসঙ্গে যুগান্তরকে তিনি বলেন, মানুষের এত ভালোবাসা আমি পেয়েছি শুধুমাত্র অভিনয়ের কারণে। যদিও মাঝে কিছু সময় আমি সিনসিয়ার ছিলাম না। তারপরও অনেকেই এখনো আমাকে ভালোবাসেন। অভিভাবকরা চান না আমি অভিনয় করি। কিন্তু আমার অভিনয়ে কাজ করার ইচ্ছা এখনো প্রবল। তাই শিগগিরই আমাকে এই অঙ্গনে দেখা যাবে।

এদিকে তিনি বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন যে কোনো সময়। তার হবু বরের নাম ফারহান। লকডাউনের কারণে আটকে আছে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা। যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন জানিয়েছেন প্রসূনের অভিভাবকরা। অনুমতি পেলেই বিয়ের কাজটি সম্পন্ন হবে। মিডিয়া সংশ্লিষ্টদের ধারণা- যদি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়ে কাজ শুরু করেন তাহলে অল্প সময়ের মধ্যেই পুরনো জায়গা ফিরে পাবেন প্রসূন আজাদ।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর