,

05

জাকির নায়েককে মালয়েশিয়া থেকে বের করার দাবি ৩ মন্ত্রীর

হাওর বার্তা ডেস্কঃ ভারতের আলোচিত ধর্মীয় আলোচক জাকির নায়েককে মালয়েশিয়া থেকে বের করা এবং স্থায়ীভাবে তাকে নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়েছেন দেশটির তিন মন্ত্রী। বুধবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে তারা এ দাবি জানান। তারা মনে করছেন, নায়েকের বক্তৃতা ঘৃণা উসকে দিতে পারে যা দেশটির নিরাপত্তার জন্য হুমকি হয়ে উঠতে পারে।

সম্প্রতি মালয়েশিয়ার হিন্দু সম্প্রদায় নিয়ে এক মন্তব্য করে সমালোচনার মুখে পড়েন জাকির নায়ে। তিনি বলেছেন, ভারতের সংখ্যালঘু মুসলিমদের চেয়ে মালয়েশিয়ার সংখ্যালঘু হিন্দুরা ১০০ গুণ বেশি অধিকার ভোগ করে।

দেশটির ওই তিন মন্ত্রী জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বলেছেন, মালয়েশিয়ার মুসলিমদের সঙ্গে অমুসলিমদের দূরত্ব তৈরি করার উদ্দেশে এ মন্তব্য করেছেন নায়েক। তবে জাকির নায়েক তার বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

মালয়েশিয়ার যোগাযোগ ও মাল্টিমিডিয়া বিষয়ক মন্ত্রী গোবিন্দ সিং দেও এক বিবৃতিতে বলেন, ‘আমরা আমাদের অবস্থান জানিয়েছি। যেন জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিয়ে তাকে আর মালয়েশিয়ায় থাকার অনুমতি না দেয়া হয়।’

এই মন্ত্রী মনে করেন, অর্থপাচার ও ঘৃণা প্রচারের অভিযোগে ভারতে গিয়ে জাকির নায়েকের বিচারের মুখোমুখি হওয়া উচিত।

মালয়েশিয়ার মানবসম্পদবিষয়ক মন্ত্রী এম কুলাসেগারান বলেন, জাকির নায়েক এখানে স্থায়ী বসবাসের অধিকার রাখেন না।

ভারতে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ আনা হয়েছে, তা বরাবরই প্রত্যাখ্যান করে আসছেন তিনি।

বুধবার সাংবাদিকদের জাকির নায়েক বলেন, হিন্দু সংখ্যালঘুদের ওপর মালয়েশিয়া সরকারের ন্যায্য ও ইসলামিক আচরণ নিয়ে আমার মন্তব্য ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। রাজনৈতিক সুবিধা ও সাম্প্রদায়িক বিভাজন ঘটাতেই এমনটি করা হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

মালয়েশিয়ার সংবাদ সংস্থা বারনামা দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদের উদ্ধৃতি দিয়ে বলছে, ভারতে হত্যাকাণ্ডের শিকার হতে পারেন, এমন আশঙ্কায় জাকির নায়েককে সেখানে ফেরত পাঠানো হবে না।

তিনি বলেন, যদি অন্য কোনো দেশ তাকে আশ্রয় দিতে চায়, তবে তাদের স্বাগত।-খবর রয়টার্সের।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর