ঢাকা ১২:৫৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মোশতাক মার্কা লোক এখনো আমাদের দলে আছে

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১০:১০:২০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ অগাস্ট ২০১৫
  • ৪৯০ বার

রোববার সন্ধ্যায় সিদ্ধিরগঞ্জ পুল এলাকায় সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগ আয়োজিত শোক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ-৪ (সিদ্ধিরগঞ্জ-ফতুল্লা) আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমান বলেছেন, সবচেয়ে বেশি ষড়যন্ত্র করে সুশীলরা। তারা হিলারিকে দিয়ে জিএসপি বন্ধ করে দেয়, তারা হিলারিকে দিয়ে পদ্মা সেতুর লোন বন্ধ করে দেয়। তারা যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বিতর্কিত করতে ষ্টেটমেন্ট দেয়। কিন্তু ওরা পাইরা উঠতেছে না আর পাইরা উঠবে না।

এ সময় শামীম ওসমান আরো বলেন, জাতিসঙ্ঘে বক্তব্য দেয়াকালে বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, পৃথিবী দুইভাবে বিভক্ত। শোষক আর শোষিত। আমি শোষিতের পক্ষে। এতে করে শোষিতদের মাথা খারাপ হয়ে যায়। বঙ্গবন্ধুকে আমেরিকা আর পাকিস্তানের সোলজার এসে মারে নাই। মারছে এদেশের মানুষ। বঙ্গবন্ধু একবার মাছকে খাবার খাওয়াচ্ছিলেন। মোশতাক ওই স্থানে আসার পর সব মাছ চলে যায়। তখন বঙ্গবন্ধু মোস্তাককে উদ্দেশ করে বলেছিলেন, দেখ মোশতাক মাছও চেনে তুমি কে?

শামীম ওসমান বলেন, অনেক বড় বড় মানুষ এদেশে এসেছিল তারা কেউ পারে নাই। একমাত্র বঙ্গবন্ধুই পারছে এদেশকে স্বাধীন করতে। শামীম ওসমান বলেন, আমি শেখ হাসিনার বাইরে কাউকে চিনি না। তার মত দেশপ্রেমিক আল্লাহওয়ালা আমি আর দেখি নাই। দেশে প্রচন্ড রকম খেলা হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘দোয়া কইরেন যেন শেখ হাসিনা বেঁচে থাকে। তবেই দেশ উন্নত হবে। বিশ্বের দরবারে মাথা উঁচু করে বাংলাদেশ বলবে, আমি নিজ পায়ে দাঁড়িয়ে।’

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু আর শেখ হাসিনার মধ্যে পার্থক্য হলো বঙ্গবন্ধু সবাইকে বিশ্বাস করেছেন। আর শেখ হাসিনা বিশ্বাসঘাতকদের চিনে নিয়েছেন।

খালেদা জিয়ার প্রসঙ্গ টেনে শামীম ওসমান বলেন, কেক কাটা বন্ধ করতে আমাদের দলের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফ অনুরোধ করেছিলেন। কিন্তু তিনি সেই অনুরোধ রাখেননি। তিনি কেক কেটেছেন। তিনি (খালেদা জিয়া) কেক কাটেননি। তিনি শেখ হাসিনার বুকে ছুরি চালিয়েছেন। তাই গণতন্ত্রের চর্চা করা তাদের সাথে সম্ভব না। তাদের সাথে আলোচনার দরজা বন্ধ।

অভার কনফিডেন্ট আমাদের ক্ষতি করবে উল্লেখ করে শামীম ওসমান বলেন, ষড়যন্ত্রকারীরা ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। মোশতাক মার্কা লোক এখনো আমাদের দলে আছে, নারায়ণগঞ্জে আছে। শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে কেউ কথা বলবেন, তা হবে না। ওয়ান ইলেভেনের খেলা খেলবেন, তা হবে না। সাবেক সংসদ গিয়াসউদ্দিনকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, আপনি ক্ষমতা পাওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। সেই স্বপ্ন বাস্তবায়িত হবে না। আপনার কোনো বেইল নেই। ষড়যন্ত্রকারীদের এইবার আর ছাড় দেয়া হবে না।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে শোক সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় শ্রমিকলীগের সাবেক সভাপতি আব্দুল মতিন মাষ্টার, মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহা, ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাইফুল্লাহ বাদল, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ইয়াছিন মিয়া, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবলীগের আহ্বায়ক মতিউর রহমান মতি, স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল হক রাজু প্রমুখ।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

জনপ্রিয় সংবাদ

মোশতাক মার্কা লোক এখনো আমাদের দলে আছে

আপডেট টাইম : ১০:১০:২০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ অগাস্ট ২০১৫

রোববার সন্ধ্যায় সিদ্ধিরগঞ্জ পুল এলাকায় সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগ আয়োজিত শোক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ-৪ (সিদ্ধিরগঞ্জ-ফতুল্লা) আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমান বলেছেন, সবচেয়ে বেশি ষড়যন্ত্র করে সুশীলরা। তারা হিলারিকে দিয়ে জিএসপি বন্ধ করে দেয়, তারা হিলারিকে দিয়ে পদ্মা সেতুর লোন বন্ধ করে দেয়। তারা যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বিতর্কিত করতে ষ্টেটমেন্ট দেয়। কিন্তু ওরা পাইরা উঠতেছে না আর পাইরা উঠবে না।

এ সময় শামীম ওসমান আরো বলেন, জাতিসঙ্ঘে বক্তব্য দেয়াকালে বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, পৃথিবী দুইভাবে বিভক্ত। শোষক আর শোষিত। আমি শোষিতের পক্ষে। এতে করে শোষিতদের মাথা খারাপ হয়ে যায়। বঙ্গবন্ধুকে আমেরিকা আর পাকিস্তানের সোলজার এসে মারে নাই। মারছে এদেশের মানুষ। বঙ্গবন্ধু একবার মাছকে খাবার খাওয়াচ্ছিলেন। মোশতাক ওই স্থানে আসার পর সব মাছ চলে যায়। তখন বঙ্গবন্ধু মোস্তাককে উদ্দেশ করে বলেছিলেন, দেখ মোশতাক মাছও চেনে তুমি কে?

শামীম ওসমান বলেন, অনেক বড় বড় মানুষ এদেশে এসেছিল তারা কেউ পারে নাই। একমাত্র বঙ্গবন্ধুই পারছে এদেশকে স্বাধীন করতে। শামীম ওসমান বলেন, আমি শেখ হাসিনার বাইরে কাউকে চিনি না। তার মত দেশপ্রেমিক আল্লাহওয়ালা আমি আর দেখি নাই। দেশে প্রচন্ড রকম খেলা হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘দোয়া কইরেন যেন শেখ হাসিনা বেঁচে থাকে। তবেই দেশ উন্নত হবে। বিশ্বের দরবারে মাথা উঁচু করে বাংলাদেশ বলবে, আমি নিজ পায়ে দাঁড়িয়ে।’

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু আর শেখ হাসিনার মধ্যে পার্থক্য হলো বঙ্গবন্ধু সবাইকে বিশ্বাস করেছেন। আর শেখ হাসিনা বিশ্বাসঘাতকদের চিনে নিয়েছেন।

খালেদা জিয়ার প্রসঙ্গ টেনে শামীম ওসমান বলেন, কেক কাটা বন্ধ করতে আমাদের দলের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফ অনুরোধ করেছিলেন। কিন্তু তিনি সেই অনুরোধ রাখেননি। তিনি কেক কেটেছেন। তিনি (খালেদা জিয়া) কেক কাটেননি। তিনি শেখ হাসিনার বুকে ছুরি চালিয়েছেন। তাই গণতন্ত্রের চর্চা করা তাদের সাথে সম্ভব না। তাদের সাথে আলোচনার দরজা বন্ধ।

অভার কনফিডেন্ট আমাদের ক্ষতি করবে উল্লেখ করে শামীম ওসমান বলেন, ষড়যন্ত্রকারীরা ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। মোশতাক মার্কা লোক এখনো আমাদের দলে আছে, নারায়ণগঞ্জে আছে। শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে কেউ কথা বলবেন, তা হবে না। ওয়ান ইলেভেনের খেলা খেলবেন, তা হবে না। সাবেক সংসদ গিয়াসউদ্দিনকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, আপনি ক্ষমতা পাওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। সেই স্বপ্ন বাস্তবায়িত হবে না। আপনার কোনো বেইল নেই। ষড়যন্ত্রকারীদের এইবার আর ছাড় দেয়া হবে না।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে শোক সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় শ্রমিকলীগের সাবেক সভাপতি আব্দুল মতিন মাষ্টার, মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহা, ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাইফুল্লাহ বাদল, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ইয়াছিন মিয়া, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবলীগের আহ্বায়ক মতিউর রহমান মতি, স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল হক রাজু প্রমুখ।