ঢাকা ০৯:৩০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দেশে গণতন্ত্র রাজনীতি কোনোটাই নেই

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১০:২৩:২৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ অগাস্ট ২০১৫
  • ২৭১ বার

চরমোনাইর পীর ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির আলহাজ মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করীম বলেছেন, সব রাজনৈতিক দলের উচিত দেশ, জনগণ ও সমগ্র মানবজাতির কল্যাণে কাজ করা। গতকাল দুপুরে চরমোনাই দরবার শরিফে বাংলাদেশ প্রতিদিনকে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি এ অভিমত প্রকাশ করেন।

যেভাবে দেশ চলছে তাতে পীর সাহেব অসন্তুষ্ট। তার মতে এভাবে দেশ চলা জনগণের জন্য অত্যন্ত অকল্যাণকর। তিনি বলেন, দেশের পরিস্থিতি এক কথায় ভয়াবহ। ইসলামী আন্দোলনের আমির বলেন, বাস্তবিক অর্থে দেশে এখন গণতন্ত্র ও রাজনীতি কোনোটাই নেই। সরকার যে পদ্ধতিতে দেশ পরিচালনা করে, তাতে বিরোধী দলের কথা বলার কোনো সুযোগ ও তাদের মতের কোনো মূল্যায়ন নেই। সরকারের দমননীতি, বিরোধী দলের ওপর যে আচরণ, তাতে বাকশালের পূর্বাভাস পাওয়া যাচ্ছে। তিনি বলেন, সরকারবিরোধীদের একটা নৈতিকতা থাকা দরকার। বিরোধী দলের উচিত দেশের কল্যাণে কাজ করা। কিন্তু আমাদের দেশের রাজনৈতিক দলগুলো সরকারে থাকলে এক রকম, আর বিরোধী দলে গেলে আরেক রকম আচরণ করে। এটা দেশের জন্য অত্যন্ত দুঃখজনক। সরকার ও বিরোধী রাজনৈতিক ময়দানে যারা আছেন, তাদের প্রতি দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি। মাগুরায় মায়ের পেটে শিশু গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনা প্রসঙ্গে পীর সাহেব বলেন, বর্বর যুগেও এ ধরনের অসভ্যতা হয়নি। তিনি বলেন, ক্রসফায়ারের নামে মানুষ হত্যা দেশের জন্য কলঙ্কজনক। ৫ জানুয়ারির নির্বাচন বিতর্কিত এবং এই নির্বাচন দেশে একটা খারাপ নজির স্থাপন করেছে উল্লেখ করে মুফতি রেজাউল করীম বলেন, আন্তর্জাতিক মহলও এই নির্বাচনকে স্বীকৃতি দেয়নি। আগামীতে শেখ হাসিনার অধীনেই যদি নির্বাচন হয় তাতে কি ইসলামী আন্দোলন অংশ নেবে? জবাবে পীর সাহেব বলেন, সামনে যদি নির্বাচনের কোনো পরিবেশ তৈরি হয় তাহলে ইসলামী আন্দোলনের নীতিনির্ধারকরা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে দলীয়ভাবে সিদ্ধান্ত নেবে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

জনপ্রিয় সংবাদ

দেশে গণতন্ত্র রাজনীতি কোনোটাই নেই

আপডেট টাইম : ১০:২৩:২৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ অগাস্ট ২০১৫

চরমোনাইর পীর ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির আলহাজ মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করীম বলেছেন, সব রাজনৈতিক দলের উচিত দেশ, জনগণ ও সমগ্র মানবজাতির কল্যাণে কাজ করা। গতকাল দুপুরে চরমোনাই দরবার শরিফে বাংলাদেশ প্রতিদিনকে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি এ অভিমত প্রকাশ করেন।

যেভাবে দেশ চলছে তাতে পীর সাহেব অসন্তুষ্ট। তার মতে এভাবে দেশ চলা জনগণের জন্য অত্যন্ত অকল্যাণকর। তিনি বলেন, দেশের পরিস্থিতি এক কথায় ভয়াবহ। ইসলামী আন্দোলনের আমির বলেন, বাস্তবিক অর্থে দেশে এখন গণতন্ত্র ও রাজনীতি কোনোটাই নেই। সরকার যে পদ্ধতিতে দেশ পরিচালনা করে, তাতে বিরোধী দলের কথা বলার কোনো সুযোগ ও তাদের মতের কোনো মূল্যায়ন নেই। সরকারের দমননীতি, বিরোধী দলের ওপর যে আচরণ, তাতে বাকশালের পূর্বাভাস পাওয়া যাচ্ছে। তিনি বলেন, সরকারবিরোধীদের একটা নৈতিকতা থাকা দরকার। বিরোধী দলের উচিত দেশের কল্যাণে কাজ করা। কিন্তু আমাদের দেশের রাজনৈতিক দলগুলো সরকারে থাকলে এক রকম, আর বিরোধী দলে গেলে আরেক রকম আচরণ করে। এটা দেশের জন্য অত্যন্ত দুঃখজনক। সরকার ও বিরোধী রাজনৈতিক ময়দানে যারা আছেন, তাদের প্রতি দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি। মাগুরায় মায়ের পেটে শিশু গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনা প্রসঙ্গে পীর সাহেব বলেন, বর্বর যুগেও এ ধরনের অসভ্যতা হয়নি। তিনি বলেন, ক্রসফায়ারের নামে মানুষ হত্যা দেশের জন্য কলঙ্কজনক। ৫ জানুয়ারির নির্বাচন বিতর্কিত এবং এই নির্বাচন দেশে একটা খারাপ নজির স্থাপন করেছে উল্লেখ করে মুফতি রেজাউল করীম বলেন, আন্তর্জাতিক মহলও এই নির্বাচনকে স্বীকৃতি দেয়নি। আগামীতে শেখ হাসিনার অধীনেই যদি নির্বাচন হয় তাতে কি ইসলামী আন্দোলন অংশ নেবে? জবাবে পীর সাহেব বলেন, সামনে যদি নির্বাচনের কোনো পরিবেশ তৈরি হয় তাহলে ইসলামী আন্দোলনের নীতিনির্ধারকরা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে দলীয়ভাবে সিদ্ধান্ত নেবে।