ঢাকা ১২:৪৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মাছে মানুষের মতো দাঁত

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ০৫:২২:১০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৭ জুন ২০১৫
  • ৪৪৫ বার

বিষয়টি অকল্পনীয় ও মজারও। মাছে মানুষের দাঁত। বললেও কেউই বিশ্বাস করতে চাইবেন না। তারপরও ঘটনাটি একেবারেই বাস্তব।

মাছে সাধারণত মানুষের দাঁতের মতো ধারালো দাঁত দেখা যায় না। কিন্তু এবার মাছে মিলেছে হুবহু মানুষের দাঁতের মতো দাঁত। মাছটি ধরে মুখ খুললে দেখা যাবে, মুখের ভেতর নিচের পাটিতে রয়েছে, অবিকল মানুষের দাঁতের মতো দাঁত।

সম্প্রতি, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সির ফিলাডেলফিয়ার একটি শহরের লেকে এক শিশু ও তার বাবা বড়শি দিয়ে মাছ ধরছিলেন। হঠাৎ করেই তাদের বড়শিতে অদ্ভুত আকৃতির এই মাছটি উঠে আসে।

প্রথমে তারা ভাবেন, এটি হয়ত পিরানহা মাছ। পরে তারা জানতে পারেন, এটি মূলত আমাজন অঞ্চলের এবং এ মাছগুলো মূলত অ্যাকুরিয়ামে পোষা হয়।

এ প্রজাতির মাছটি মূলত আমাজন অঞ্চলের মাছ। তবে এর আদিবাস ব্রাজিল। একে বলা হয়, পাকু মাছ (Pacu Fish)।

সংবাদমাধ্যম জানায়, সম্প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সি অঙ্গরাজ্যের ফিলাডেলফিয়ার ডেলরানের একটি লেকে রন রোসি ও তার ছেলে ফ্রাঙ্ক মাছ ধরছিলেন। হঠাৎ তাদের বড়শিতে পিরানহা আকৃতির মাছ উঠে আসে।

মাছে মানুষের মতো ধারালো দাঁত দেখে তারা স্থানীয় প্রাণিসম্পদ বিভাগের কর্মকর্তাদের দেখান। তাদের কাছ থেকে জানা জানা যায়, এ মাছের মূল আবাস ছিল মূলত ব্রাজিলে। পরে সেখান থেকে আমাজন অঞ্চলসহ প্যারিস, স্ক্যান্ডেনেভিয়া ও ওসেনিয়ায় দেখা যায়।

পাপুয়া নিউগিনিতে এ মাছকে বলা হয়, ‘বল কাটার’ (Ball Cutter)। সেখানে এ মাছের কামড়ে দুই ব্যক্তির পুরুষাঙ্গ থেকে অতিরিক্ত রক্তরক্ষণ হয় এবং পরে তাদের মৃত্যু হয়। এ জন্য গবেষকরা মজা করে বলেছেন, পুরুষের জন্য ভয়ঙ্কর মাছ, পাকু মাছ।

এ মাছের বিষয়ে ডেলরানের ডিপার্টমেন্ট অব এনভায়রনমেন্ট প্রোটেকশনের কর্মকর্তারা জানান, এই প্রজাতির মাছ দক্ষিণ আমেরিকার অনেক দেশে অ্যাকুরিয়ামে রেখে পোষা হয়।

তারা জানান, এই মাছ চার ফুট পর্যন্ত লম্বা হতে পারে। হয়ত কেউ লেকে এই মাছ ছেড়েছেন।

এদিকে, এই ভয়ঙ্কর মাছ ধরা পড়ার পর ফিলাডেলফিয়ায় বিরূপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। স্থানীয়রা এই রাক্ষুস মাছ সেখানে থাকায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। তারা বলেছেন, মানুষের জন্য ক্ষতিকর মাছ দেখতে চান না।

এর আগে ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বরে নিউ জার্সিতে ১০ ইঞ্চি লম্বা একই প্রজাতির মাছ ধরা পড়ে। ওয়াশিংটন স্টেটে ধরা পড়ে ১৭ ইঞ্চি ও এর দুই মাস পর সাউদার্ন ইলিনয়সে ধরা পড়ে ২০ ইঞ্চি লম্বা একই প্রজাতির আরো একটি মাছ।

এ ছাড়া গত গ্রীষ্মে মিশিগানের সেইন্ট ক্লেয়ার লেকে ১৪ ইঞ্চি লম্বা আরো একটি এই মাছ ধরা পড়ে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

জনপ্রিয় সংবাদ

মাছে মানুষের মতো দাঁত

আপডেট টাইম : ০৫:২২:১০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৭ জুন ২০১৫

বিষয়টি অকল্পনীয় ও মজারও। মাছে মানুষের দাঁত। বললেও কেউই বিশ্বাস করতে চাইবেন না। তারপরও ঘটনাটি একেবারেই বাস্তব।

মাছে সাধারণত মানুষের দাঁতের মতো ধারালো দাঁত দেখা যায় না। কিন্তু এবার মাছে মিলেছে হুবহু মানুষের দাঁতের মতো দাঁত। মাছটি ধরে মুখ খুললে দেখা যাবে, মুখের ভেতর নিচের পাটিতে রয়েছে, অবিকল মানুষের দাঁতের মতো দাঁত।

সম্প্রতি, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সির ফিলাডেলফিয়ার একটি শহরের লেকে এক শিশু ও তার বাবা বড়শি দিয়ে মাছ ধরছিলেন। হঠাৎ করেই তাদের বড়শিতে অদ্ভুত আকৃতির এই মাছটি উঠে আসে।

প্রথমে তারা ভাবেন, এটি হয়ত পিরানহা মাছ। পরে তারা জানতে পারেন, এটি মূলত আমাজন অঞ্চলের এবং এ মাছগুলো মূলত অ্যাকুরিয়ামে পোষা হয়।

এ প্রজাতির মাছটি মূলত আমাজন অঞ্চলের মাছ। তবে এর আদিবাস ব্রাজিল। একে বলা হয়, পাকু মাছ (Pacu Fish)।

সংবাদমাধ্যম জানায়, সম্প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সি অঙ্গরাজ্যের ফিলাডেলফিয়ার ডেলরানের একটি লেকে রন রোসি ও তার ছেলে ফ্রাঙ্ক মাছ ধরছিলেন। হঠাৎ তাদের বড়শিতে পিরানহা আকৃতির মাছ উঠে আসে।

মাছে মানুষের মতো ধারালো দাঁত দেখে তারা স্থানীয় প্রাণিসম্পদ বিভাগের কর্মকর্তাদের দেখান। তাদের কাছ থেকে জানা জানা যায়, এ মাছের মূল আবাস ছিল মূলত ব্রাজিলে। পরে সেখান থেকে আমাজন অঞ্চলসহ প্যারিস, স্ক্যান্ডেনেভিয়া ও ওসেনিয়ায় দেখা যায়।

পাপুয়া নিউগিনিতে এ মাছকে বলা হয়, ‘বল কাটার’ (Ball Cutter)। সেখানে এ মাছের কামড়ে দুই ব্যক্তির পুরুষাঙ্গ থেকে অতিরিক্ত রক্তরক্ষণ হয় এবং পরে তাদের মৃত্যু হয়। এ জন্য গবেষকরা মজা করে বলেছেন, পুরুষের জন্য ভয়ঙ্কর মাছ, পাকু মাছ।

এ মাছের বিষয়ে ডেলরানের ডিপার্টমেন্ট অব এনভায়রনমেন্ট প্রোটেকশনের কর্মকর্তারা জানান, এই প্রজাতির মাছ দক্ষিণ আমেরিকার অনেক দেশে অ্যাকুরিয়ামে রেখে পোষা হয়।

তারা জানান, এই মাছ চার ফুট পর্যন্ত লম্বা হতে পারে। হয়ত কেউ লেকে এই মাছ ছেড়েছেন।

এদিকে, এই ভয়ঙ্কর মাছ ধরা পড়ার পর ফিলাডেলফিয়ায় বিরূপ প্রতিক্রিয়া হয়েছে। স্থানীয়রা এই রাক্ষুস মাছ সেখানে থাকায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। তারা বলেছেন, মানুষের জন্য ক্ষতিকর মাছ দেখতে চান না।

এর আগে ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বরে নিউ জার্সিতে ১০ ইঞ্চি লম্বা একই প্রজাতির মাছ ধরা পড়ে। ওয়াশিংটন স্টেটে ধরা পড়ে ১৭ ইঞ্চি ও এর দুই মাস পর সাউদার্ন ইলিনয়সে ধরা পড়ে ২০ ইঞ্চি লম্বা একই প্রজাতির আরো একটি মাছ।

এ ছাড়া গত গ্রীষ্মে মিশিগানের সেইন্ট ক্লেয়ার লেকে ১৪ ইঞ্চি লম্বা আরো একটি এই মাছ ধরা পড়ে।