ঢাকা ১২:২২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভাঙনের ঝুঁকিপূর্ণ ৫৪ এলাকা চিহ্নিত: পানিসম্পদ উপমন্ত্রী

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ০১:০৭:৪১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • ৯০ বার

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এ. কে. এম. এনামুল হক শামীম বলেছেন, সারা দেশের নদী ভাঙন রোধে দ্রুত কাজ করছে সরকার। দেশের ২২ জেলায় ভাঙনের ঝুঁকিপূর্ণ ৫৪টি এলাকা চিহ্নিত করা হয়েছে। এসব এলাকায় যেহেতু স্থায়ী প্রকল্প নেওয়া হচ্ছে, আগামী কয়েক বছরের মধ্যে বাংলাদেশের মানুষ অনেকাংশে জলাবদ্ধতা ও নদী ভাঙন থেকে রক্ষা পাবে। আর এর সুফল কয়েক বছরের মধ্যে মিলবে।

শরীয়তপুরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের চলমান প্রকল্পের অগ্রগতি পর্যালোচনা সভা শেষে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

এনামুল হক শামীম আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী প্রজন্ম নিয়ে ভাবেন, সেজন্য তিনি আগামীর বাসযোগ্য বিশ্বমানের সুবিধা সম্বলিত বাংলাদেশ গড়তে চান। এজন্য তিনি দূরদর্শী পদক্ষেপ নেন। সেজন্য তিনি ডেল্টাপ্লান বাস্তবায়নেরও ঘোষণা দিয়েছেন।

তিনি বলেন, আর এই মহাপরিকল্পনার সিংহভাগ কাজই পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় বাস্তবায়ন করবে। এ মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়ন হলে সারাদেশে নদী ভাঙন ও জলাবদ্ধতার কোনো সমস্যাই থাকবে না। এই মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় ও পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ১৪ বছরে সারাদেশে ব্যাপক উন্নয়ন ঘটিয়েছেন। এর মাধ্যমে দেশ বিশ্বে উন্নয়নের মডেলে পরিণত হয়েছে। বাংলাদেশ বিশ্বে অনন্য মর্যাদা পেয়েছে। শরীয়তপুর জেলায় প্রায় ৩ হাজার কোটি টাকার ৪টি প্রকল্প চলমান রয়েছে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

ভাঙনের ঝুঁকিপূর্ণ ৫৪ এলাকা চিহ্নিত: পানিসম্পদ উপমন্ত্রী

আপডেট টাইম : ০১:০৭:৪১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এ. কে. এম. এনামুল হক শামীম বলেছেন, সারা দেশের নদী ভাঙন রোধে দ্রুত কাজ করছে সরকার। দেশের ২২ জেলায় ভাঙনের ঝুঁকিপূর্ণ ৫৪টি এলাকা চিহ্নিত করা হয়েছে। এসব এলাকায় যেহেতু স্থায়ী প্রকল্প নেওয়া হচ্ছে, আগামী কয়েক বছরের মধ্যে বাংলাদেশের মানুষ অনেকাংশে জলাবদ্ধতা ও নদী ভাঙন থেকে রক্ষা পাবে। আর এর সুফল কয়েক বছরের মধ্যে মিলবে।

শরীয়তপুরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের চলমান প্রকল্পের অগ্রগতি পর্যালোচনা সভা শেষে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

এনামুল হক শামীম আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী প্রজন্ম নিয়ে ভাবেন, সেজন্য তিনি আগামীর বাসযোগ্য বিশ্বমানের সুবিধা সম্বলিত বাংলাদেশ গড়তে চান। এজন্য তিনি দূরদর্শী পদক্ষেপ নেন। সেজন্য তিনি ডেল্টাপ্লান বাস্তবায়নেরও ঘোষণা দিয়েছেন।

তিনি বলেন, আর এই মহাপরিকল্পনার সিংহভাগ কাজই পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় বাস্তবায়ন করবে। এ মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়ন হলে সারাদেশে নদী ভাঙন ও জলাবদ্ধতার কোনো সমস্যাই থাকবে না। এই মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় ও পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ১৪ বছরে সারাদেশে ব্যাপক উন্নয়ন ঘটিয়েছেন। এর মাধ্যমে দেশ বিশ্বে উন্নয়নের মডেলে পরিণত হয়েছে। বাংলাদেশ বিশ্বে অনন্য মর্যাদা পেয়েছে। শরীয়তপুর জেলায় প্রায় ৩ হাজার কোটি টাকার ৪টি প্রকল্প চলমান রয়েছে।