,

download (8)

ভারতে মহানবীকে নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্যে ক্ষুব্ধ কাতার, রাষ্ট্রদূতকে তলব

হাওর বার্তা ডেস্কঃ নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) কে নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্যের জেরে উত্তপ্ত ভারত। সেই উত্তাপ ছড়িয়েছে আরবের দেশগুলোতেও। মুহাম্মদ (সা.) কে নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি নেতাদের অবমাননাকর মন্তব্যের জেরে ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে কাতার। যদিও ইতোমধ্যে রবিবার বিজেপি উত্তর প্রদেশ শাখার মুখপাত্র নূপুর শর্মা ও তার সহকর্মী নাভিন কুমার জিন্দালকে তাদের মন্তব্যের জন্য দল থেকে বহিষ্কার করেছে।

ভারতের সরকারের এমন সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরও ভারতের ওপর আরব দেশগুলোর ক্ষোভ থামেনি। ভারতীয় পণ্য ও সিনেমা বয়কটের ডাক সেখানকার সামাজিক মাধ্যমে ট্রেন্ডিংয়ের তালিকায় উঠে এসেছে।

এর আগে আজ কাতারে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূত দীপক মিত্তাল দেশটির পররাষ্ট্র দফতরে বৈঠক করেন। যেখানে কাতার নূপুর শর্মা এবং নবীন কুমার জিন্দালের মন্তব্য নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে। বিজেপির পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছে কাতারের পক্ষ থেকে মিত্তালকে বলা হয়েছে, এই মন্তব্যের জন্য কাতার ভারত সরকারের কাছ থেকে জনসাধারণের কাছে ক্ষমা এবং অবিলম্বে নিন্দা আশা করছে।

এক বিবৃতিতে কাতার বলেছে, রাষ্ট্রদূতকে বলা হয়েছে যে বিনা শাস্তিতে এই ধরনের ইসলামবিদ্বেষী মন্তব্য চালিয়ে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া মানবাধিকার সুরক্ষার জন্য একটি গুরুতর বিপদের কারণ। তবে কাতারে ভারতীয় দূতাবাস বলেছে, রাষ্ট্রদূত জানিয়েছেন টুইটগুলো কোনোভাবেই ভারত সরকারের মতামতকে প্রতিফলিত করে না।

ভারতের আলোচিত জ্ঞানবাপী মসজিদ ইস্যুতে গত সপ্তাহে এক টেলিভিশন টকশোতে মহানবী (সা.) প্রসঙ্গে অবমাননাকর মন্তব্য করেন নূপুর শর্মা। এ ঘটনায় কানপুরের মুসলিমদের মধ্যে বিক্ষোভ তৈরি হয়। এছাড়া নবীকে নিয়ে নাভিন কুমার জিন্দালও টুইটারে পোস্ট করেন। এতে মুসলিমদের মধ্যে আরও ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। যদিও তিনি এই টুইট পরবর্তীতে মুছে দেন।

এর জেরে গত শুক্রবারে কানপুরের একপক্ষ স্থানীয় বাজার বন্ধ করার আহ্বান জানালে অপরপক্ষ পাল্টা অবস্থান নেয়। এর পরে সংঘর্ষে অন্তত ৪০ জন আহত হয়। এর মধ্যে ২০ জন পুলিশ সদস্য। ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। এছাড়া এই ঘটনায় পুলিশ ৩৬ জনকে গ্রেফতার করেছে, মামলা দায়ের করেছে ১ হাজার ৫০০ লোকের বিরুদ্ধে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর