ঢাকা ১০:২৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দেশসেরা ২০ প্রতিষ্ঠান

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ০৪:৪৮:০১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩১ মে ২০১৫
  • ৪০৭ বার

এসএসসি পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে প্রতিবারের মতো এবারও সেরা ২০ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তালিকা করা হয়েছে। পাঁচটি মানদণ্ডের ভিত্তিতে এই তালিকা তৈরি করা হয়েছে। সেগুলো হচ্ছে- নিবন্ধিত শিক্ষার্থীদের মধ্যে নিয়মিত পরীক্ষার্থীর শতকরা হার, শতকরা পাসের হার, মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিও-৫ প্রাপ্তির হার, পরীক্ষার সংখ্যা ও প্রতিষ্ঠানের গড় জিপিএ।  ফলাফলের ভিত্তিতে রাজউক উত্তরা মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজকে পেছনে ফেলে এবার এসএসসিতে সেরা হয়েছে  ডেমরার শামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড কলেজ। গত বছরের  দেশসেরা রাজউকের অবস্থান দ্বিতীয়। তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ। প্রথম স্থান দখল করা শামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড
কলেজের  মোট পয়েন্ট ৯৭ দশমিক ৮৮। এই স্কুল থেকে ৭৭৯ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে সবাই পাস করেছে, জিপিএ-৫  পেয়েছে ৭৪০ জন। ৯৬ দশমিক ৬৭ পয়েন্ট দ্বিতীয় স্থানে থাকা রাজউক উত্তরা মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে ৫৪৬ জন পরীক্ষা দিয়ে পাস করেছে ৫৪৪ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৯৬ জন। ৯৬ দশমিক ৫৪ পয়েন্ট পেয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ। এই কলেজ থেকে এক হাজার ৫৮১ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাস করেছে এক হাজার ৫৭৮ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে এক হাজার ৪১৬ জন। ৯৫ দশমিক ২২ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে রয়েছে রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ। এই প্রতিষ্ঠান থেকে এক হাজার ৫০৩ জন পরীক্ষা দিয়ে পাস করেছে এক হাজার ৫০১ জন; জিপিএ-৫ পেয়েছে এক হাজার ২৯০ জন। চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুল ৯৫ দশমিক ৯৭ পয়েন্ট পেয়ে পঞ্চম স্থানে রয়েছে। স্কুলটি  থেকে ৪০৩ জন পরীক্ষা দিয়ে সবাই পাস করেছে। জিপিএ-৫  পেয়েছে ৩৭৭ জন। কুমিল্লা জিলা স্কুল ৯৪ দশমিক ০৯ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে। শতভাগ পাস করা ঐতিহ্যবাহী এ স্কুল থেকে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিলেন ৪০১ শিক্ষার্থী। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৫৩ জন। সপ্তম স্থান দখল করা রংপুর ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ পেয়েছে ৯৪ দশমিক ৯৯ পয়েন্ট। এই প্রতিষ্ঠান থেকে ৩৪০ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে সবাই পাস করেছে; জিপিএ-৫  পেয়েছে ৩৩৯ জন। বগুড়া ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ ৯৩ দশমিক ১৯ পয়েন্ট নিয়ে অষ্টম স্থানে রয়েছে। এই প্রতিষ্ঠানের ৩৪২ জন পরীক্ষা দিয়ে সকলেই পাস করেছে; জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩২০ জন। ৯৩ দশমিক ২৭ পয়েন্ট নিয়ে সারা দেশে নবম হয়েছে টাঙ্গাইলের বিন্দুবাসিনী সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়। ৩৭৩ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষা দিয়ে সবাই পাস করেছে এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে; জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৩০ জন। ৯২ দশমিক ২৬ পয়েন্ট নিয়ে  দেশের মধ্যে দশম স্থানে রয়েছে মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়। এই স্কুল থেকে ৪১৫ জন পরীক্ষা দিয়ে সবাই পাস করেছে; জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৪১ জন। ১১তম স্থানে রয়েছে মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়, ১২তম স্থানে রয়েছে টঙ্গীর সাইফুদ্দিন সরকার একাডেমি, ১৩তম স্থানে রয়েছে  ময়মনসিংহ জিলা স্কুল, ১৪তম স্থানে রয়েছে ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল কলেজ, ১৫তম স্থানে রয়েছে মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের  ডেমরা দারুননাজাত সিদ্দিকীয়া কামিল মাদরাসা,১৬তম স্থানে রয়েছে  চট্টগ্রামের ড. কাস্টাগির গভ. হাইস্কুল, ১৭তম স্থানে রয়েছে রাজশাহী বোর্ডের বগুড়া জিলা স্কুল। ১৮তম স্থানে একই পয়েন্ট পেয়ে এই স্থানে রয়েছে দশম ময়মনসিংহ গার্লস ক্যাডেট কলেজ, নরসিংদীর এনকেএম হাইস্কুল অ্যান্ড হোমস, রাজশাহী ক্যাডেট কলেজ, ফেনী গার্লস ক্যাডেট কলেজ, ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজ, বরিশাল ক্যাডেট কলেজ, রংপুর ক্যাডেট কলেজ ও সিলেট ক্যাডেট কলেজ। ১৯তম স্থানে রয়েছে রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুল, ২০তম স্থানে রয়েছে রংপুরে দ্যা মিলেনিয়াম স্টারস স্কুল অ্যান্ড কলেজ। এদিকে মাদরাসা বোর্ডে দাখিল পরীক্ষায় সারা দেশে প্রথম হয়েছে ঢাকার ঐতিহ্যবাহী দারুননাজাত সিদ্দিকীয়া কামিল মাদরাসা। প্রতিষ্ঠানের সর্বমোট ৩৬০ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩০৬ জন। পাসের হার শতভাগ। গতকাল আট শিক্ষা বোর্ডের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়েছে। এবার সাধারণ শিক্ষা  বোর্ডগুলোর সঙ্গে মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ড মিলিয়ে সম্মিলিত পাসের হার ৮৭ দশমিক ০৪ শতাংশ, যা গতবছরের তুলনায় ৪ দশমিক ৩ শতাংশ কম। জিপিএ-৫  পেয়েছেন ১ লাখ ১১ হাজার ৯০১ জন, যা গতবার ছিল ১ লাখ ৪২ হাজার ২৭৬।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

দেশসেরা ২০ প্রতিষ্ঠান

আপডেট টাইম : ০৪:৪৮:০১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩১ মে ২০১৫

এসএসসি পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে প্রতিবারের মতো এবারও সেরা ২০ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তালিকা করা হয়েছে। পাঁচটি মানদণ্ডের ভিত্তিতে এই তালিকা তৈরি করা হয়েছে। সেগুলো হচ্ছে- নিবন্ধিত শিক্ষার্থীদের মধ্যে নিয়মিত পরীক্ষার্থীর শতকরা হার, শতকরা পাসের হার, মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিও-৫ প্রাপ্তির হার, পরীক্ষার সংখ্যা ও প্রতিষ্ঠানের গড় জিপিএ।  ফলাফলের ভিত্তিতে রাজউক উত্তরা মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজকে পেছনে ফেলে এবার এসএসসিতে সেরা হয়েছে  ডেমরার শামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড কলেজ। গত বছরের  দেশসেরা রাজউকের অবস্থান দ্বিতীয়। তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ। প্রথম স্থান দখল করা শামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড
কলেজের  মোট পয়েন্ট ৯৭ দশমিক ৮৮। এই স্কুল থেকে ৭৭৯ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে সবাই পাস করেছে, জিপিএ-৫  পেয়েছে ৭৪০ জন। ৯৬ দশমিক ৬৭ পয়েন্ট দ্বিতীয় স্থানে থাকা রাজউক উত্তরা মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে ৫৪৬ জন পরীক্ষা দিয়ে পাস করেছে ৫৪৪ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৯৬ জন। ৯৬ দশমিক ৫৪ পয়েন্ট পেয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ। এই কলেজ থেকে এক হাজার ৫৮১ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাস করেছে এক হাজার ৫৭৮ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে এক হাজার ৪১৬ জন। ৯৫ দশমিক ২২ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে রয়েছে রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ। এই প্রতিষ্ঠান থেকে এক হাজার ৫০৩ জন পরীক্ষা দিয়ে পাস করেছে এক হাজার ৫০১ জন; জিপিএ-৫ পেয়েছে এক হাজার ২৯০ জন। চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুল ৯৫ দশমিক ৯৭ পয়েন্ট পেয়ে পঞ্চম স্থানে রয়েছে। স্কুলটি  থেকে ৪০৩ জন পরীক্ষা দিয়ে সবাই পাস করেছে। জিপিএ-৫  পেয়েছে ৩৭৭ জন। কুমিল্লা জিলা স্কুল ৯৪ দশমিক ০৯ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে। শতভাগ পাস করা ঐতিহ্যবাহী এ স্কুল থেকে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিলেন ৪০১ শিক্ষার্থী। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৫৩ জন। সপ্তম স্থান দখল করা রংপুর ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ পেয়েছে ৯৪ দশমিক ৯৯ পয়েন্ট। এই প্রতিষ্ঠান থেকে ৩৪০ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে সবাই পাস করেছে; জিপিএ-৫  পেয়েছে ৩৩৯ জন। বগুড়া ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ ৯৩ দশমিক ১৯ পয়েন্ট নিয়ে অষ্টম স্থানে রয়েছে। এই প্রতিষ্ঠানের ৩৪২ জন পরীক্ষা দিয়ে সকলেই পাস করেছে; জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩২০ জন। ৯৩ দশমিক ২৭ পয়েন্ট নিয়ে সারা দেশে নবম হয়েছে টাঙ্গাইলের বিন্দুবাসিনী সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়। ৩৭৩ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষা দিয়ে সবাই পাস করেছে এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে; জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৩০ জন। ৯২ দশমিক ২৬ পয়েন্ট নিয়ে  দেশের মধ্যে দশম স্থানে রয়েছে মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়। এই স্কুল থেকে ৪১৫ জন পরীক্ষা দিয়ে সবাই পাস করেছে; জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৪১ জন। ১১তম স্থানে রয়েছে মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়, ১২তম স্থানে রয়েছে টঙ্গীর সাইফুদ্দিন সরকার একাডেমি, ১৩তম স্থানে রয়েছে  ময়মনসিংহ জিলা স্কুল, ১৪তম স্থানে রয়েছে ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল কলেজ, ১৫তম স্থানে রয়েছে মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের  ডেমরা দারুননাজাত সিদ্দিকীয়া কামিল মাদরাসা,১৬তম স্থানে রয়েছে  চট্টগ্রামের ড. কাস্টাগির গভ. হাইস্কুল, ১৭তম স্থানে রয়েছে রাজশাহী বোর্ডের বগুড়া জিলা স্কুল। ১৮তম স্থানে একই পয়েন্ট পেয়ে এই স্থানে রয়েছে দশম ময়মনসিংহ গার্লস ক্যাডেট কলেজ, নরসিংদীর এনকেএম হাইস্কুল অ্যান্ড হোমস, রাজশাহী ক্যাডেট কলেজ, ফেনী গার্লস ক্যাডেট কলেজ, ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজ, বরিশাল ক্যাডেট কলেজ, রংপুর ক্যাডেট কলেজ ও সিলেট ক্যাডেট কলেজ। ১৯তম স্থানে রয়েছে রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুল, ২০তম স্থানে রয়েছে রংপুরে দ্যা মিলেনিয়াম স্টারস স্কুল অ্যান্ড কলেজ। এদিকে মাদরাসা বোর্ডে দাখিল পরীক্ষায় সারা দেশে প্রথম হয়েছে ঢাকার ঐতিহ্যবাহী দারুননাজাত সিদ্দিকীয়া কামিল মাদরাসা। প্রতিষ্ঠানের সর্বমোট ৩৬০ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩০৬ জন। পাসের হার শতভাগ। গতকাল আট শিক্ষা বোর্ডের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়েছে। এবার সাধারণ শিক্ষা  বোর্ডগুলোর সঙ্গে মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ড মিলিয়ে সম্মিলিত পাসের হার ৮৭ দশমিক ০৪ শতাংশ, যা গতবছরের তুলনায় ৪ দশমিক ৩ শতাংশ কম। জিপিএ-৫  পেয়েছেন ১ লাখ ১১ হাজার ৯০১ জন, যা গতবার ছিল ১ লাখ ৪২ হাজার ২৭৬।