,

work-from-home-2107171115

দীর্ঘক্ষণ বসে কাজ করা যেভাবে মৃত্যুর ঝুঁকি বাড়ায়

হাওর বার্তা ডেস্কঃ অফিসে কমবেশি সবাইকেই দীর্ঘক্ষণ বসে কাজ করতে হয়। মাঝেমধ্যে কাজের চাপ এতোটাই বেশি থাকে যে টানা পাঁচ, ছয় ঘণ্টা বসেই কাটাতে হয়। যা মোটেও সঠিক কাজ নয়। জানলে অবাক হবেন যে, বেশিক্ষণ বসে থাকার মধ্যেই লুকিয়ে আছে মারাত্মক বিপদ!

সারা বিশ্বে প্রতি বছর যত মানুষের মৃত্যু হয়, তার মধ্যে ৪ শতাংশ মৃত্যু হয় দীর্ঘক্ষণ বসে থাকার কারণে। সংখ্যাটা ৪ লাখ ৩৩ হাজার। গবেষণায় উঠে এসেছে, ৩ ঘণ্টার বেশি টানা বসে থাকলে বা বসে কাজ করার কারণে ডায়াবেটিস, হার্ট অ্যাটাক ও ক্যান্সারের সম্ভাবনা বেড়ে যায়। এমনকি এর ফলে মৃত্যু পর্যন্তও হতে পারে।

দীর্ঘ সময় বসে কাজ করলে আরো যে মারাত্মক সমস্যাগুলো হতে পারে সেগুলো হলো-

একটানা বসে কাজ করলে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটে।

দীর্ঘ সময় বসে কাজ করলে শরীরে ওজন বাড়ার প্রবণতা বাড়ে।

যারা দীর্ঘ সময় বসে কাজ করেন তাদের বেশিরভাগেরই ঘাড়, কাঁধ, কোমর এবং পিঠে ব্যথায় ভুগতে দেখা যায়।

গবেষণায় দেখা গেছে, দীর্ঘক্ষণ বসে কাজ করার কারণে ফুসফুস, মূত্রনালী ও কোলন ক্যান্সারের প্রবণতা বেড়ে যায়।

দীর্ঘক্ষণ বসে কাজ করলে পায়ের ওপরও চাপ পড়ে। এতে পায়ের শিরায় রক্ত চলাচলে সমস্যা হয়। মাঝেমধ্যে পা ফুলেও যেতে পারে।

খাওয়ার পর পরই যদি বসে পরেন, তাহলে খাবার ঠিক মতো হজম হতে পারে না। ফলে বদ হজম এবং গ্যাস-অম্বল সহ একাধিক পেটের রোগ হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দেয়।

অনেকক্ষণ ধরে একইভাবে বসে কাজ করার ফলে উচ্চ রক্ত ​​চাপ ও উচ্চ মাত্রায় কলেস্টেরল বাড়তে পারে। এই কার্ডিওভাসকুলার জটিলতা আপনার জীবনে ঝুঁকি নিয়ে আসতে পারে।

মাত্র একদিন দীর্ঘ সময় বসে থাকলেই ইনসুলিন ঠিক মতো কাজ করতে পারে না। কারণ বেশি সময় বসে থাকলে শরীরে ইনসুলিনের উৎপাদন বেড়ে যায়।

একটানা বসে থাকলে শরীরের নয়টি অঙ্গ ভীষণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়- মাথা, হাত, পা, পায়ের পাতা, ঘাড়, পিঠ, ফুসফুস, পাকস্থলী এবং হার্ট।

স্পেনের সান জর্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা বলছেন, খুব কম বিরতিতে একভাবে বসে কাজ করলে, টিভি বা কম্পিউটারের সামনে বসে থাকলে টাইপ-২ ডায়াবেটিসের ঝুঁকি ৯০ শতাংশ, ৫০ শতাংশের বেশি হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি, ৫৪ শতাংশ ফুসফুস ক্যান্সার, ৬৬ শতাংশ জরায়ু ক্যান্সার ও কোলন ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে।

দীর্ঘক্ষণ বসে থাকলে শরীরে যে চর্বি জমা হয় সেগুলো ঝরে যাওয়ার কোন সুযোগ থাকে না। তখন শরীরে ফ্যাটি অ্যাসিডের পরিমাণ বেড়ে জটিলতা তৈরি হয়।

বসে থাকার সময় আমাদের শরীরে রক্তচলাচল খুব কমে যায়। ফলে দেহে জমে থাকা ফ্যাটের গলন কম পরিমাণে হতে থাকে। এতে ফ্যাটি অ্যাসিডের কারণে হার্টের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা বহুগুণে বেড়ে যায়। প্রসঙ্গত, আমেরিকান কলেজ অব কার্ডিওলজিতে প্রকাশিত এক গবেষণা পত্র অনুসারে যারা দিনে ১০ ঘণ্টা বা তার বেশি সময় বসে কাজ করেন, তাদের হার্টের রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা যারা ৫ ঘণ্টার কম সময় বসে থাকেন তাদের থেকে বেশি হয়।

বসে থাকার সময় শিরদাঁড়ার উপর মারাত্মক চাপ পরে। ফলে দীর্ঘ সময় বসে থাকলে পিঠে ব্যথা হওয়ার মতো রোগের প্রকোপ বৃদ্ধি পায়। একাধিক কেস স্টাডি করে দেখা গেছে পিঠে ব্যথার কারণে যারা কষ্ট পাচ্ছেন, তাদের মধ্যে প্রায় ৪০ শতাংশেরই দীর্ঘ সময় বসে কাজ করার অভ্যাস রয়েছে।

এ সমস্যা থেকে মুক্তির উপায়

ঘড়ি ধরে এক ঘণ্টা পর পর অন্তত ৫ মিনিট কাজ বন্ধ করে দাঁড়িয়ে থাকুন, পাড়লে হাঁটা- হাঁটি করুন।

পিঠে ব্যথা থাকলে ৩০ মিনিট পর পর ফ্রি হ্যাণ্ড ব্যায়াম করুন।

লিফটের পরিবর্তে সিঁড়ি ব্যবহার করুন।

চেয়ারে সোজা হয়ে বসুন।

ভিটামিন ডি ও ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার খাবেন।

চা, কফি, সফট ড্রিংকস কম খাবেন।

সকাল সন্ধ্যা নিয়মিত যোগ ব্যায়াম করুন।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর