ঢাকা ০৩:৩৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আজ পবিত্র আশুরা

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১১:২০:২৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৫
  • ৪৮২ বার

আজ শনিবার পবিত্র আশুরা। কারবালার শোকাবহ ঘটনাবহুল এদিন মুসলমানদের কাছে ধর্মীয়ভাবে বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ। দিনটি মুসলিম বিশ্বে ত্যাগ ও শোকের প্রতীকের পাশাপাশি বিশেষ পবিত্র দিবস হিসেবে পালন করা হয়। মুসলিম বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও আজ শনিবার যথাযোগ্য মর্যাদায় পবিত্র আশুরা পালিত হবে। আজ সরকারি ছুটির দিন। বার্তা সংস্থা বাসস জানিয়েছে, পবিত্র আশুরা উপলক্ষে রাজধানী ঢাকাসহ দেশব্যাপী বিভিন্ন ধর্মীয় সংগঠন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। প্রায় এক হাজার ৩৩৩ বছর আগে এই দিনে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর দৌহিত্র হজরত ইমাম হোসেন (রা.) কারবালা প্রান্তরে শহীদ হন। এ ছাড়া ১০ মহররম আশুরার দিন মহান আল্লাহতায়ালা পৃথিবী সৃষ্টি করেছেন এবং আবার এদিন কেয়ামত হবে। এর বাইরে এদিন হজরত ইব্রাহিম (আ.) নমরুদের অগ্নিকু- থেকে রক্ষা পেয়েছেন, হজরত ইউনুস (আ.) মাছের পেট থেকে মুক্তি পান। এ রকম অসংখ্য ঘটনায় তাৎপর্যম-িত এ দিনটি। এ দিন অর্থাৎ ১০ মহররম হজরত ইমাম হোসেন (রা.) এবং তাঁর পরিবার ও অনুসারীরা সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে যুদ্ধ করতে গিয়ে ফোরাত নদীর তীরে কারবালা প্রান্তরে ইয়াজিদ বাহিনীর হাতে শহীদ হন। এ ঘটনা স্মরণ করে বিশ্ব মুসলিম সম্প্রদায় যথাযোগ্য মর্যাদায় দিনটি পালন করে থাকে। শান্তি ও সম্প্রীতির ধর্ম ইসলামের মহান আদর্শকে সমুন্নত রাখতে তাঁদের এই আত্মত্যাগ মানবতার ইতিহাসে সমুজ্জ্বল হয়ে রয়েছে। কারবালার এই শোকাবহ ঘটনা ও পবিত্র আশুরার শাশ্বত বাণী সবাইকে অন্যায় ও অত্যাচারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে এবং সত্য ও সুন্দরের পথে চলতে প্রেরণা জোগায়। রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণী পবিত্র আশুরা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, কারবালার শোকাবহ ঘটনার স্মৃতিতে ভাস্বর পবিত্র আশুরার শাশ্বত বাণী অন্যায় ও অত্যাচারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে আমাদের উদ্বুদ্ধ করে। সত্য ও সুন্দরের পথে চলার প্রেরণা জোগায়। কারবালা প্রান্তরে শাহাদাতবরণকারীসহ সব শহীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে মো. আবদুল হামিদ বলেন, পূর্ণাঙ্গ জীবন বিধান হিসেবে ইসলামে সব সময় আল্লাহর একত্ববাদ ও ইসলামী অনুশাসন প্রতিষ্ঠার ওপর গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। পবিত্র আশুরা সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার জন্য, সমগ্র মুসলিম উম্মাহর জন্য এক তাৎপর্যময় ও শোকের দিন উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, সত্য প্রতিষ্ঠা করতে গিয়েই হজরত ইমাম হোসেন (রা.) ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা এ দিন ইয়াজিদের সৈন্যদের হাতে কারবালায় শহীদ হন। ইসলামের সুমহান আদর্শকে সমুন্নত রাখার জন্য তাঁদের এই আত্মত্যাগ ইতিহাসে সমুজ্জ্বল হয়ে আছে। ইসলাম শান্তি ও সম্প্রীতির ধর্ম উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি আরো বলেন, এখানে হানাহানি, হিংসা, দ্বেষ বা বিভেদের কোনো স্থান নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব অন্যায় ও অবিচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে দেশবাসীকে জাতীয় জীবনে সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে আশুরার মহান শিক্ষার প্রতিফলন ঘটাতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। পবিত্র আশুরা উপলক্ষে দেওয়া এ বাণীতে তিনি এ আহ্বান জানান। পবিত্র আশুরা মানব ইতিহাসে একটি তাৎপর্যপূর্ণ দিন উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, এ দিনটি বিশ্বের মুসলমানদের কাছে অত্যন্ত পবিত্রতম একটি দিন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, হিজরি ৬১ সালের ১০ মহররম মহানবী হজরত মুহাম্মদ (স.)-এর দৌহিত্র হজরত ইমাম হোসেন (রা.) ও তাঁর পরিবারবর্গ কারবালা প্রান্তরে শাহাদাতবরণ করেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠায় তাঁদের এ আত্মত্যাগ মুসলিম উম্মাহর জন্য এক উজ্জ্বল ও অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত হয়ে আছে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

আজ পবিত্র আশুরা

আপডেট টাইম : ১১:২০:২৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৫

আজ শনিবার পবিত্র আশুরা। কারবালার শোকাবহ ঘটনাবহুল এদিন মুসলমানদের কাছে ধর্মীয়ভাবে বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ। দিনটি মুসলিম বিশ্বে ত্যাগ ও শোকের প্রতীকের পাশাপাশি বিশেষ পবিত্র দিবস হিসেবে পালন করা হয়। মুসলিম বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও আজ শনিবার যথাযোগ্য মর্যাদায় পবিত্র আশুরা পালিত হবে। আজ সরকারি ছুটির দিন। বার্তা সংস্থা বাসস জানিয়েছে, পবিত্র আশুরা উপলক্ষে রাজধানী ঢাকাসহ দেশব্যাপী বিভিন্ন ধর্মীয় সংগঠন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। প্রায় এক হাজার ৩৩৩ বছর আগে এই দিনে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর দৌহিত্র হজরত ইমাম হোসেন (রা.) কারবালা প্রান্তরে শহীদ হন। এ ছাড়া ১০ মহররম আশুরার দিন মহান আল্লাহতায়ালা পৃথিবী সৃষ্টি করেছেন এবং আবার এদিন কেয়ামত হবে। এর বাইরে এদিন হজরত ইব্রাহিম (আ.) নমরুদের অগ্নিকু- থেকে রক্ষা পেয়েছেন, হজরত ইউনুস (আ.) মাছের পেট থেকে মুক্তি পান। এ রকম অসংখ্য ঘটনায় তাৎপর্যম-িত এ দিনটি। এ দিন অর্থাৎ ১০ মহররম হজরত ইমাম হোসেন (রা.) এবং তাঁর পরিবার ও অনুসারীরা সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে যুদ্ধ করতে গিয়ে ফোরাত নদীর তীরে কারবালা প্রান্তরে ইয়াজিদ বাহিনীর হাতে শহীদ হন। এ ঘটনা স্মরণ করে বিশ্ব মুসলিম সম্প্রদায় যথাযোগ্য মর্যাদায় দিনটি পালন করে থাকে। শান্তি ও সম্প্রীতির ধর্ম ইসলামের মহান আদর্শকে সমুন্নত রাখতে তাঁদের এই আত্মত্যাগ মানবতার ইতিহাসে সমুজ্জ্বল হয়ে রয়েছে। কারবালার এই শোকাবহ ঘটনা ও পবিত্র আশুরার শাশ্বত বাণী সবাইকে অন্যায় ও অত্যাচারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে এবং সত্য ও সুন্দরের পথে চলতে প্রেরণা জোগায়। রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণী পবিত্র আশুরা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, কারবালার শোকাবহ ঘটনার স্মৃতিতে ভাস্বর পবিত্র আশুরার শাশ্বত বাণী অন্যায় ও অত্যাচারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে আমাদের উদ্বুদ্ধ করে। সত্য ও সুন্দরের পথে চলার প্রেরণা জোগায়। কারবালা প্রান্তরে শাহাদাতবরণকারীসহ সব শহীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে মো. আবদুল হামিদ বলেন, পূর্ণাঙ্গ জীবন বিধান হিসেবে ইসলামে সব সময় আল্লাহর একত্ববাদ ও ইসলামী অনুশাসন প্রতিষ্ঠার ওপর গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। পবিত্র আশুরা সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার জন্য, সমগ্র মুসলিম উম্মাহর জন্য এক তাৎপর্যময় ও শোকের দিন উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, সত্য প্রতিষ্ঠা করতে গিয়েই হজরত ইমাম হোসেন (রা.) ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা এ দিন ইয়াজিদের সৈন্যদের হাতে কারবালায় শহীদ হন। ইসলামের সুমহান আদর্শকে সমুন্নত রাখার জন্য তাঁদের এই আত্মত্যাগ ইতিহাসে সমুজ্জ্বল হয়ে আছে। ইসলাম শান্তি ও সম্প্রীতির ধর্ম উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি আরো বলেন, এখানে হানাহানি, হিংসা, দ্বেষ বা বিভেদের কোনো স্থান নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব অন্যায় ও অবিচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে দেশবাসীকে জাতীয় জীবনে সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে আশুরার মহান শিক্ষার প্রতিফলন ঘটাতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। পবিত্র আশুরা উপলক্ষে দেওয়া এ বাণীতে তিনি এ আহ্বান জানান। পবিত্র আশুরা মানব ইতিহাসে একটি তাৎপর্যপূর্ণ দিন উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, এ দিনটি বিশ্বের মুসলমানদের কাছে অত্যন্ত পবিত্রতম একটি দিন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, হিজরি ৬১ সালের ১০ মহররম মহানবী হজরত মুহাম্মদ (স.)-এর দৌহিত্র হজরত ইমাম হোসেন (রা.) ও তাঁর পরিবারবর্গ কারবালা প্রান্তরে শাহাদাতবরণ করেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠায় তাঁদের এ আত্মত্যাগ মুসলিম উম্মাহর জন্য এক উজ্জ্বল ও অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত হয়ে আছে।