ঢাকা ১১:৩২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কুকুরের আহার থেকে ফেরা ফাইজা এখন ভিআইপি শিশু

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১১:২৪:৩২ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ অক্টোবর ২০১৫
  • ৫৪৫ বার

কুকুরের আহার থেকে ফেরা ফাইজা এখন আজিমপুর ছোটমনি নিবাসের ভিআইপি শিশু। গতকাল রোববার ফাইজাকে সমাজসেবা অধিদপ্তর পরিচালিত ছোটমণি নিবাসে হস্তান্তর করা হয়। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নবজাতক বিভাগে ছোটমণি নিবাসের উপ-তত্ত্বাবধায়ক সেলিনা আক্তারের হাতে তাকে হস্তান্তর করা হয়।

ছোটমণি নিবাসে ফাইজাকে হস্তান্তর করার পর তাকে একনজর দেখার জন্য অনেকেই ছুটে আসছেন। সোমবার সকাল থেকেই রাজধানী ঢাকা ও ঢাকার বাইরের বিভিন্ন এলাকা থেকে শিশুটিকে দেখতে ছোটমণি নিবাসে ছুটে আসেন অনেক নারী-পুরুষ। তাদের কেউ কেউ শিশুটিকে লালন-পালনের জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেন।

সমাজসেবা অধিদফতর পরিচালিত এ নিবাসটিতে দুই বছর বয়সী ২৬ জন পিতৃমাতৃহীন, পরিত্যক্ত, দাবিদারহীন ও উদ্ধারকৃত শিশু বসবাস করলেও এখন সবার নজর ফাইজার দিকে।

শতাধিক নারী-পুরুষ শিশুটিকে একনজর দেখে লালন পালনের জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেন বলে জানান নিবাসটির উপ-তত্ত্বাবধায়ক সেলিনা আক্তার। আগতদের তিনি আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে যোগাযোগের পরামর্শ দেন।

তিনি জানান, মায়ের দুধ থেকে বঞ্চিত ফাইজাকে লেকটোজেন ব্রান্ডের দুধ প্রতি দুই ঘণ্টা পর পর ৬০ এমএল করে খাওয়ানো হচ্ছে। কুকুরের কামড়ে আহত ঠোঁট ও মুখে মলম লাগানোসহ ওষুধপত্র সেবন করানো হচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত ১৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর পুরাতন বিমানবন্দরের কাছের একটি জঙ্গলে কুকুরে কামড়ানো শিশুটিকে তানিয়া আক্তার ও লিপি আক্তার নামে দুই নারী উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে আসেন। এরপর শিশুটির চিকিৎসায় মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়। চিকিৎসা শেষে গতকাল শিশুটিকে ছোটমণি নিবাসে হস্তান্তর করা হয়।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

কুকুরের আহার থেকে ফেরা ফাইজা এখন ভিআইপি শিশু

আপডেট টাইম : ১১:২৪:৩২ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ অক্টোবর ২০১৫

কুকুরের আহার থেকে ফেরা ফাইজা এখন আজিমপুর ছোটমনি নিবাসের ভিআইপি শিশু। গতকাল রোববার ফাইজাকে সমাজসেবা অধিদপ্তর পরিচালিত ছোটমণি নিবাসে হস্তান্তর করা হয়। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নবজাতক বিভাগে ছোটমণি নিবাসের উপ-তত্ত্বাবধায়ক সেলিনা আক্তারের হাতে তাকে হস্তান্তর করা হয়।

ছোটমণি নিবাসে ফাইজাকে হস্তান্তর করার পর তাকে একনজর দেখার জন্য অনেকেই ছুটে আসছেন। সোমবার সকাল থেকেই রাজধানী ঢাকা ও ঢাকার বাইরের বিভিন্ন এলাকা থেকে শিশুটিকে দেখতে ছোটমণি নিবাসে ছুটে আসেন অনেক নারী-পুরুষ। তাদের কেউ কেউ শিশুটিকে লালন-পালনের জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেন।

সমাজসেবা অধিদফতর পরিচালিত এ নিবাসটিতে দুই বছর বয়সী ২৬ জন পিতৃমাতৃহীন, পরিত্যক্ত, দাবিদারহীন ও উদ্ধারকৃত শিশু বসবাস করলেও এখন সবার নজর ফাইজার দিকে।

শতাধিক নারী-পুরুষ শিশুটিকে একনজর দেখে লালন পালনের জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেন বলে জানান নিবাসটির উপ-তত্ত্বাবধায়ক সেলিনা আক্তার। আগতদের তিনি আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে যোগাযোগের পরামর্শ দেন।

তিনি জানান, মায়ের দুধ থেকে বঞ্চিত ফাইজাকে লেকটোজেন ব্রান্ডের দুধ প্রতি দুই ঘণ্টা পর পর ৬০ এমএল করে খাওয়ানো হচ্ছে। কুকুরের কামড়ে আহত ঠোঁট ও মুখে মলম লাগানোসহ ওষুধপত্র সেবন করানো হচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত ১৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর পুরাতন বিমানবন্দরের কাছের একটি জঙ্গলে কুকুরে কামড়ানো শিশুটিকে তানিয়া আক্তার ও লিপি আক্তার নামে দুই নারী উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে আসেন। এরপর শিশুটির চিকিৎসায় মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়। চিকিৎসা শেষে গতকাল শিশুটিকে ছোটমণি নিবাসে হস্তান্তর করা হয়।