ঢাকা ০৯:২২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মৃত্যুদণ্ডের মুখে ইরানের ১০০ বিক্ষোভকারী

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১২:৪০:৩৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ডিসেম্বর ২০২২
  • ৮৯ বার

হাওর বার্তা ডেস্কঃ হিজাব বিরোধী বিক্ষোভের সাথে জড়িত অন্তত ১০০ জনকে মৃত্যুদণ্ড দিতে যাচ্ছে বা মূল অপরাধে জড়িত অভিযোগে অভিযুক্ত করা হচ্ছে। একটি অধিকার গোষ্ঠীর বরাত দিয়ে বিবিসি এ তথ্য জানিয়েছে।

নরওয়েভিত্তিক ইরান হিউম্যান রাইটস (আইএইচআর) জানিয়েছে, মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের ঝুঁকিতে থাকা পাঁচ নারী এদের মধ্যে রয়েছেন।

মৃত্যুদণ্ডের মুখোমুখি প্রতিবাদকারীদের প্রকৃত সংখ্যা অনেক বেশি বলে মনে করা হয়েছিল। কারণ গ্রেপ্তারকৃতদের পরিবারগুলোকে শান্ত থাকার জন্য চাপ দেওয়া হচ্ছে।

সংগঠনটি জানিয়েছে, চলতি মাসে বিক্ষোভে জড়িত থাকার অভিযোগে দুই ব্যক্তিকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছিল। এদের মধ্যে এক জন মোহসেন শেখারি এবং অপর জন মাজিদ্রেজা রাহনাভার্ড। তাদের দুজনের বয়সই ২৩ বছর। জাতীয় নিরাপত্তা ভঙ্গের অভিযোগে বিপ্লবী আদালত তাদের দোষী সাব্যস্ত করেছিল।

১৬ সেপ্টেম্বর নীতি পুলিশের হেফাজতে ২২ বছর বয়সী মাহসা আমিনির মৃত্যু হয়। এর জের ধরে দেশজুড়ে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। তবে ইরানি কর্তৃপক্ষ সাফ জানিয়েছে, বিক্ষোভকারীদের দাবির সঙ্গে তারা একমত নয়। সরকার বিক্ষোভকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ ইরানের শত্রুদের একটি চক্রান্ত হিসাবে বর্ণনা করেছে। বিক্ষোভে এখনও পর্যন্ত ৪৭৬ জন নিহত হয়েছে এবং এদের মধ্যে ৬৪ জন শিশু ও ৩৪ জন নারী রয়েছে বলে দাবি করেছে আইএইচআর।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

মৃত্যুদণ্ডের মুখে ইরানের ১০০ বিক্ষোভকারী

আপডেট টাইম : ১২:৪০:৩৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ডিসেম্বর ২০২২

হাওর বার্তা ডেস্কঃ হিজাব বিরোধী বিক্ষোভের সাথে জড়িত অন্তত ১০০ জনকে মৃত্যুদণ্ড দিতে যাচ্ছে বা মূল অপরাধে জড়িত অভিযোগে অভিযুক্ত করা হচ্ছে। একটি অধিকার গোষ্ঠীর বরাত দিয়ে বিবিসি এ তথ্য জানিয়েছে।

নরওয়েভিত্তিক ইরান হিউম্যান রাইটস (আইএইচআর) জানিয়েছে, মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের ঝুঁকিতে থাকা পাঁচ নারী এদের মধ্যে রয়েছেন।

মৃত্যুদণ্ডের মুখোমুখি প্রতিবাদকারীদের প্রকৃত সংখ্যা অনেক বেশি বলে মনে করা হয়েছিল। কারণ গ্রেপ্তারকৃতদের পরিবারগুলোকে শান্ত থাকার জন্য চাপ দেওয়া হচ্ছে।

সংগঠনটি জানিয়েছে, চলতি মাসে বিক্ষোভে জড়িত থাকার অভিযোগে দুই ব্যক্তিকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছিল। এদের মধ্যে এক জন মোহসেন শেখারি এবং অপর জন মাজিদ্রেজা রাহনাভার্ড। তাদের দুজনের বয়সই ২৩ বছর। জাতীয় নিরাপত্তা ভঙ্গের অভিযোগে বিপ্লবী আদালত তাদের দোষী সাব্যস্ত করেছিল।

১৬ সেপ্টেম্বর নীতি পুলিশের হেফাজতে ২২ বছর বয়সী মাহসা আমিনির মৃত্যু হয়। এর জের ধরে দেশজুড়ে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। তবে ইরানি কর্তৃপক্ষ সাফ জানিয়েছে, বিক্ষোভকারীদের দাবির সঙ্গে তারা একমত নয়। সরকার বিক্ষোভকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ ইরানের শত্রুদের একটি চক্রান্ত হিসাবে বর্ণনা করেছে। বিক্ষোভে এখনও পর্যন্ত ৪৭৬ জন নিহত হয়েছে এবং এদের মধ্যে ৬৪ জন শিশু ও ৩৪ জন নারী রয়েছে বলে দাবি করেছে আইএইচআর।