,

received_1236239697184553

কলমাকান্দায় ডায়রিয়ায় এক সপ্তাহে আক্রান্ত অর্ধশতাধিক

বিজয় দাস, প্রর্তিনিধি নেত্রকোনাঃ নেত্রকোনার সীমান্তে কলমাকান্দায় বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হলেও বেড়েছে ডায়রিয়ার প্রকোপ। গত এক সপ্তাহে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছেন ৫৬ জন।

কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, গত ১৯ জুন থেকে সোমবার পর্যন্ত ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৫৬ জন চিকিৎসা নিয়েছেন। এর মধ্যে ছিল শিশু ২৭ জন, পুরুষ ১৬ জন ও মহিলা ১৩ জন। ভর্তি হওয়া রোগীদের মধ্যে ৪৬ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।

কলমাকান্দা বাজারের ব্যবসায়ী কাজল দাস জানান, কলমাকান্দা বাজারের পানি কমে গেছে।কমে যাচ্ছে উব্ধাখালি নদীর পানি। কিন্তু বন্যার পানিতে চলাচল ও স্নানসহ জিনিস পত্র ধোঁয়া মোছা করছেন। ফলে অনেকেই আক্রান্ত হচ্ছে ডায়রিয়াতে। তবে সরকারিভাবে মেডিকেল টিম কাজ করছে।

দৈনিক জনতা পত্রিকার উপজেলা প্রর্তিনিধি লীনা হায়াৎ বলেছেন, আমাদের আরো সতর্ক হওয়া উচিত বলে মনে করি। পানি ফুটিয়ে খাওয়া উচিত। বনলতার পানিতে হাত-পা ধোঁয়া ও গোসল করা উচিত নয়। পানি পানের আগে বিশুদ্ধকরণ বড়ি ব্যবহার করতে হবে। পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে। তখনই সম্ভব ডায়রিয়া ও পেটের রোগ প্রতিরোধ করা।

কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আল মামুন বলেন, বন্যায় পানিবন্দি মানুষের স্বাস্থ্যসেবার জন্য উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের একটি করে মেডিকেল টিম কাজ করছে। পানিবন্দি মানুষদের পানিশোধন ট্যাবলেট, খাবার স্যালাইন, চিকিৎসাসহ প্রয়োজনীয় ওষুধ পত্র দেওয়া হচ্ছে। পূর্বের তুলনায় হাসপাতালে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা কিছুটা বেশি।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর