,

1641869313_IMG-20220110-WA0025

শিগগিরই কলিং ভিসায় কর্মী নিয়োগের আবেদন অনলাইনে

হাওর বার্তা ডেস্কঃ মালয়েশিয়ার কোম্পানি বা নিয়োগকর্তারা খুব শিগগিরই সোর্স কান্ট্রিগুলো থেকে কলিং ভিসায় অনুমোদিত কর্মসংস্থানের জন্য প্রতিটি সেক্টরে বিদেশী কর্মী নিয়োগের প্রক্রিয়ার জন্য অনলাইন আবেদন জমা দিতে পারবেন বলে জানিয়েছেন মালয়েশিয়ার মানব সম্পদ মন্ত্রী দাতুক সেরি এম সারাভানান। আজ সোমবার স্থানীয় সময় বিকেলে এক বিবৃতিতে মানব সম্পদ মন্ত্রী সারাভানান বলেছেন, খুব শিগগিরই মালয়েশিয়ার কোম্পানি বা মালিকদের কলিং ভিসায় বিদেশি কর্মী নিয়োগের জন্য অনলাইনে আবেদনের তারিখ ঘোষণা করা হবে।  এই বিষয়ে আমি নিয়োগকর্তাদের পরামর্শ দিতে চাই যে আবেদন প্রক্রিয়া দ্রুততর করার উদ্দেশ্যে কোন দালাল মধ্যস্থতাকারী বা তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে কোনও অর্থ প্রদান করা থেকে বিরত থাকবেন। আজ রাতে মালয়েশিয়া থেকে প্রবাসী সাংবাদিক এম এ আবির এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মানব সম্পদ মন্ত্রী বলেন, ২০২১ সালের ১০ ডিসেম্বর দেশটির মন্ত্রিসভার জরুরি বৈঠকে সম্মত হয়েছিলাম যে বিদেশী কর্মী নিয়োগে বৃক্ষরোপণ খাত ছাড়া অন্য সব খাতে বিদেশি কর্মী নিয়োগ দিতে পারবে, যেমন কৃষি, উৎপাদন,পরিষেবা, খনি ও খনন, নির্মাণ এবং গৃহস্থালি পরিষেবাগুলির জন্য উন্মুক্ত থাকবে।
উল্লেখ্য, দীর্ঘ দিন যাবত মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রফতানি বন্ধ রয়েছে। বহু কূটনৈতিক উদ্যোগের পর গত মাসে মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে দেশটিতে জনশক্তি রফতানি সংক্রান্ত বাংলাদেশ-মালয়েশিয়ার মধ্যে দ্বি-পাক্ষিক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। মালয়েশিয়ার মানব সম্পদ মন্ত্রী এম সাভারানান ও বাংলাদেশের প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ইমরান আহমদ উল্লেখিত স্বারকে স্বাক্ষর করেন। বায়রার সাধারণ সদস্যরা দীর্ঘ দিন যাবত সকল বৈধ রিক্রুটিং এজেন্সি যাতে দেশটিতে কর্মী প্রেরণের সুযোগ পায় সে দাবি জানিয়ে আসছে। মন্ত্রী সারাভানান আজ বিবৃতিতে মালয়েশিয়ার নিয়োগকর্তাদের সতর্ক করে বলেন, যাহারা বিদেশি কর্মী নিয়োগ দিতে চান তাদের নিজস্ব আবেদন জমা দিতে হবে এবং বিদেশী কর্মীদের প্রকৃত চাহিদার ভিত্তিতে।
যে নিয়োগকর্তারা বেসরকারী কর্মসংস্থান সংস্থাগুলোর পরিষেবাগুলি ব্যবহার করেন তাদের অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে যে সংস্থাগুলো সরকার নিবন্ধিত এবং ব্যক্তিগত কর্মসংস্থান সংস্থা আইন ১৯৮১ এর অধীনে জনশক্তি উপদ্বীপ মালয়েশিয়া বিভাগ দ্বারা প্রত্যয়িত লাইসেন্স রয়েছে। সরকার পূর্বে জানিয়েছিল যে বিদেশী কর্মীদের মালয়েশিয়া প্রবেশের ক্ষেত্রে অবশ্যই স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং পদ্ধতি (এসওপি) মেনে চলতে হবে যা গত ১৪ ডিসেম্বর ২০২১-এ কোভিড-১৯ মন্ত্রী পর্যায়ের সভা দ্বারা অনুমোদিত হয়েছিল। মনে রাখতে হবে বিদেশি কর্মীদের কোয়ারেন্টাইন অবশ্যই বাধ্যতামূলক।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর