,

07

আজ বিপিএলের সব জট খুলবে

হাওর বার্তা ডেস্কঃ সাকিব আল হাসান বরিশালের এবারের অটো চয়েজ। মাশরাফি হতে যাচ্ছেন ঢাকার পছন্দ। সঙ্গে খালেদ মাহমুদ সুজন বরিশালের হেড কোচ। মোহাম্মদ সালাউদ্দীন এবারও কুমিল্লারই দ্রোণাচার্য্য। এসব খবরে ছেয়ে গেছে ক্রিকেটাঙ্গন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আরও অনেক খবরই ছড়িয়ে পড়েছে। ডালপালা, শাখাপ্রশাখা গজিয়েছে।

এর কোনটা সত্য? কোনোটার এখন পর্যন্ত শক্ত কোনো ভিত্তি খুঁজে পাওয়া যায়নি। সবচেয়ে বড় কথা হলো, বিসিবি আর বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এখন পর্যন্ত কিছুই জানানো হয়নি।

তবে কারা কোন দলের ফ্র্যাঞ্চাইজি, সেটা আগে ভাগেই কর্পোরেট হাউজগুলোকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। গত ১৯ ডিসেম্বরই আগ্রহী ফ্র্যাঞ্চাইজিদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, কে কোন দল পেয়েছে।

৫টি নয়, শেষ পর্যন্ত ৬ দল নিয়েই হতে যাচ্ছে এবারের বিপিএল। আজ ২২ ডিসেম্বর বুধবার হয়তো বিপিএলের সব জট খুলবে। দুপুরে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সভা আছে। ধারণা করা হচ্ছে, তা শেষে মিলবে সব কৌতুহলি প্রশ্নের জবাব।

বেক্সিমকো, বসুন্ধরা আর জেমকন গ্রুপ এবার দল পরিচালনায় থাকছে না। আর পুরনো এবং প্রতিষ্ঠিত ফ্র্যাঞ্চাইজিদের মধ্যে সাবেক বিসিবি, এসিসি ও আইসিসি প্রধান আ হ ম মোস্তফা কামাল তনয়া নাফিসা কামাল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের থাকা অনেক আগেই নিশ্চিত হয়েছে।

বাকি ৫ আগ্রহী কর্পোরেট হাউজের মধ্যে আগেও চট্টগ্রামের টিম স্পন্সর হওয়া আখতার গ্রুপ মোটামুটি নিশ্চিতই ছিল। শেষ খবর, এবারও আখতার গ্রুপ (আখতার ফার্নিশার্স) চট্টগ্রামের ফ্র্যাঞ্চাইজি। এর বাইরে ৪টি নতুন কর্পোরেট হাউজ এবার ফ্র্যাঞ্চাইজি স্বত্ত্ব পেয়েছে। এর মধ্যে ফরচুন গ্রুপ বরিশালের আর মাইন্ড ট্রি খুলনার ফ্র্যাঞ্চাইজি হয়েছে।

বলে রাখা ভালো, খুলনা যখন একবার খুলনা টাইগার্স নাম নিয়ে বিপিএলে অংশ নিয়েছে, সেবারও এই মাইন্ড ট্রি‘ই ছিল ফ্র্যাঞ্চাইজি। এবারও সেই হাউজই খুলনার মালিক। এর বাইরে ঢাকার ফ্র্যাঞ্চাইজি হচ্ছে রুপা ও মার্ন গ্রুপ। অন্যদিকে সিলেটের ফ্র্যাঞ্চাইজির নাম প্রগতি গ্রুপ।

স্থানীয় ক্রিকেটারদের ক্যাটাগরি ও পারিশ্রমিক নির্ধারিত হয়ে গেছে। এবার আইকন প্রথা বাদ দিয়ে অটো চয়েজ করা হয়েছে। আর এ প্লাস টাইপ ক্যাটাগরির বদলে সরাসরি এ, বি, সি, ডি, ই এবং এফ- ৬ ক্যাটাগরিতে প্লেয়ার্স পেমেন্ট দেওয়ার সিদ্ধান্তও একরকম চূড়ান্ত। শুধু বাকি আনুষ্ঠানিক ঘোষণা।

এবারের প্লেয়ার্স পেমেন্টের ৬ ক্যাটাগরি হচ্ছে : এ-৭০ লাখ, বি-৪০ লাখ, সি-২৫ লাখ, ডি-১৮ লাখ, ই-১২ লাখ এবং এফ-৫ লাখ টাকা। আগামী ২৭ ডিসেম্বর প্লেয়ার্স ড্রাফটের সম্ভাব্য দিন চূড়ান্ত করার কথা ভাবছে বিপিএল কর্তৃপক্ষ।

এদিকে আজ দুপুরে বসছে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। সব কিছু ঠিক থাকলে আজ বিকেলে মধ্যেই হয়তো বিপিএলের জট খুলবে। সবই আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হবে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর