,

07

নেত্রকোণায় বাবা-ছেলের হত্যা মামলায় স্ত্রী কারাগারে

হাওর বার্তা ডেস্কঃ নেত্রকোনায় শিশুপুত্রসহ কাইয়ুম সরদারের মরদেহ উদ্ধার ঘটনায় হত্যা মামলা হয়েছে। এই মামলায় পুলিশ নিহতের স্ত্রী সালমা আক্তারকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে

শনিবার (২০ নভেম্বর) সন্ধ্যায় নেত্রকোনা মডেল থানার ওসি খন্দকার শাকের আহমেদ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নেত্রকোনা মডেল থানার ওসি খন্দকার শাকের আহমেদ জানান, শুক্রবার (১৯ নভেম্বর) কাইয়ুম সরদারের ছোটভাই মোস্তফা আহমেদ নিলু বাদী হয়ে সালমাসহ অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে এই মামলায় সালমাকে গ্রেপ্তার করে শুক্রবার (২০ নভেম্বর) সন্ধ্যায় ৭ দিনের পুলিশি হেফাজত চেয়ে নেত্রকোনা বিচারিক আদালতে সোপর্দ করা হয়। এদিকে আদালত সালমাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিলে রাতেই তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। একই সঙ্গে আদালত আগামী রোববার (২০ নভেম্বর) রিমান্ড শুনানির দিন নির্ধারণ করেন।

তিনি আরও জানান, পুলিশ সুপার আকবর আলী মুন্সী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে কিভাবে এই দুই মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে তা জানা যাবে। তাছাড়া সালমা আক্তারকে রিমান্ডে পেলে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে এই মৃত্যু রহস্য উন্মোচন হতে পারে।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ৯টার দিকে নেত্রকোনা শহরের নাগড়া এলাকায় রুহুল আমিনের ৫ তলা বাড়ির চতুর্থতলার একটি কক্ষ থেকে শিশুপুত্রসহ জেলা ওষুধ প্রশাসনের অফিস সহায়ক কাইয়ুম সরদারের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর