,

image-464805-1631589127

উপজেলা উপনির্বাচন জয়ের পথে ৭ চেয়ারম্যান ভাইস চেয়ারম্যান

হাওর বার্তা ডেস্কঃ উপজেলা পরিষদ উপনির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয় পেতে যাচ্ছেন সাত চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান। তাদের মধ্যে ছয়জনই উপজেলা চেয়ারম্যান এবং একজন ভাইস চেয়ারম্যান। সবাই ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থী। সোমবার মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিনে এসব উপজেলায় একজন করে প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেন। বাছাইয়ে মনোনয়নপত্র টিকে গেলে তাদের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী ঘোষণা করবেন সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তারা। একই দিন কুমিল্লা-৭ আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীসহ চারজন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। ইসি সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

২ সেপ্টেম্বর কুমিল্লা-৭ এবং স্থানীয় সরকারের ২৩টি প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন পদে আগামী ৭ অক্টোবর ভোটের তারিখ নির্ধারণ করে তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। স্থানীয় সরকারের এ ২৩ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১২টি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বা ভাইস চেয়ারম্যান, একটি পৌরসভার মেয়র ও পাঁচটিতে একটি করে ওয়ার্ড এবং চার সিটি করপোরেশনের পাঁচটি ওয়ার্ড রয়েছে। সোমবার এসব নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ছিল। জমা হওয়া মনোনয়নপত্র আজ বাছাই করবেন সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তারা। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন আগামী ১৯ সেপ্টম্বর এবং প্রতীক বরাদ্দ ও প্রচার শুরু ২০ সেপ্টম্বর।

সূত্র জানায়, ১২টি উপজেলা পরিষদের মধ্যে ৯টিতে চেয়ারম্যান ও বাকি তিনটিতে ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচন হচ্ছে। ছয়টি উপজেলায় চেয়ারম্যান এবং নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে একজন প্রার্থী হয়েছেন। যে ছয়টিতে চেয়ারম্যান পদে একক প্রার্থী হয়েছেন সেগুলো হচ্ছে-নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ, নরসিংদী সদর, নেত্রকোনার খালিয়াজুরী, বাগেরহাটের কচুয়া, কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর ও ফেনী সদর। এ ছাড়া চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলায় তিনজন, যশোর সদরে তিনজন, মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে চারজন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে পাঁচজন ও ভোলার তজুমদ্দিনে তিনজন প্রার্থী হয়েছেন। রাজশাহীর গোদাগাড়ী পৌরসভার মেয়র পদে উপনির্বাচনে পাঁচজন প্রার্থী হয়েছেন।

জয়ের পথে থাকা প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন-সোনারগাঁ উপজেলায় অ্যাডভোকেট সামসুল ইসলাম ভূঁইয়া, খালিয়াজুরীতে রাব্বানী জব্বার ও বাজিতপুরে মো. রাকিবুল হাসান শিবলী।

চান্দিনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধি জানান, কুমিল্লা-৭ আসনের উপনির্বাচনে চারজন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র রিটার্নিং কর্মকর্তা ও কুমিল্লার আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. দুলাল তালুকদারের কার্যালয়ে জমা দিয়েছেন। তারা হলেন- আওয়ামী লীগের প্রার্থী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মো. লুৎফুর রেজা খোকন, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির (ন্যাপ) মনিরুল ইসলাম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মাওলানা সালেহ সিদ্দিকী।

সোমবার দুপুর ১টায় রিটার্নিং কর্মকর্তার হাতে মনোনয়নপত্র জমা দেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা-৬ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহার, কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মু. রুহুল আমিন, সদ্য প্রয়াত সংসদ সদস্য অধ্যাপক মো. আলী আশরাফের ছেলে চান্দিনা উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মুনতাকিম আশরাফ টিটু প্রমুখ। বিকালে একই কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেন জাতীয় পার্টির প্রার্থী মো. লুৎফুর রেজা খোকন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আহ্বায়ক এআর আহমেদ সেলিম, যুগ্ম আহ্বায়ক মোহন চেয়ারম্যান ও গোলাম বায়জিদ, চান্দিনা উপজেলা সাধারণ সম্পাদক ছাদেক পাঠান, কৃষক পার্টি সভাপতি আব্দুল মালেক, যুব সংহতি সভাপতি আকতার মেম্বার, ওলামা পার্টি সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হোসাইন এবং তরুণ পার্টির সভাপতি মো. আহসান। এর আগে মনোনয়নপত্র জমা দেন ন্যাপ প্রার্থী মনিরুল ইসলাম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মাওলানা সালেহ সিদ্দিকী।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর