,

image-443032-1626218145

হাফিজুরের ‘আর্জেন্টিনা বাড়ি’ দেখতে ভিড় জমছে

 

হাওর বার্তা ডেস্কঃ দুর্দান্ত এক টুর্নামেন্ট হয়ে গেলে বাংলাদেশ থেকে ১৫ হাজার কিলোমিটারের বেশি দূরের দেশ ব্রাজিলে।

এক কথায় টানটান উত্তেজনাপূর্ণ কোপা আমেরিকা। আর ১৫ হাজার কিমি দূরের সেই টুর্নামেন্টের উত্তাপ এসে পড়ল বাংলাদেশের ঘরে ঘরে।

বিশেষ করে আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিল দ্বৈরথ নিয়ে আলোচনা, বিতর্ক ও উন্মদনার সীমা ছাড়িয়ে গেছে।

বাংলাদেশে কোপা আমেরিকা নিয়ে এতো মাতামাতি দেখে বিস্মিত আর্জেন্টিনাও। দেশটির গণমাধ্যমেও বাংলাদেশের আর্জেন্টিনাভক্তদের কাণ্ড নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়েছে। তাই ভারতে অবস্থিত আর্জেন্টাইন দূতাবাস বাংলাদেশি ফুটবল সমর্থকদের শুভেচ্ছা জানাতে কার্পণ্য করেনি।

আর শুভেচ্ছা জানাবেই না কেন, হাফিজুরের মতো এ দেশের আর্জেন্টিনা ও মেসিভক্তরা হার মানায় আর্জেন্টাইনদেরও।

আর্জেন্টিনার পতাকার আদলের পোশাক পরেন হাফিজুর রহমান। নিজে পরেন, পরিবারের সব সদস্যেরও পরান। নিজের পুরো বাড়িটি রাঙিয়েছেন আর্জেন্টিনার পতাকার রঙে। বাড়ির নাম দিয়েছেন ‘আর্জেন্টিনা বাড়ি’। বিদেশ যাওয়া সুযোগ হলে সবার আগে আর্জেন্টিনায় ঘুরতে যেতে চান হাফিজুর।

প্রধান ফটকে এটাই লেখা রয়েছে। মেহেরপুর সদর উপজেলার পিরোজপুর গ্রামের পথ দিয়ে হেঁটে গেলে দেখা মিলবে আর্জেন্টিনা বাড়ির। হাফিজুরকে এখন এক নামে চেনে মেহেরপুরবাসী। তার আর্জেন্টিনা-প্রীতি বেশ সুনাম কুড়িয়েছে এলাকায়। হাফিজুরের ‘আর্জেন্টিনা বাড়ি’ দেখতে দূরদূরান্ত থেকে আসা মানুষ ভিড় জমাচ্ছেন। হাফিজুরের বাড়ির কারণে ওই এলাকাও জনপ্রিয়তা পেয়েছে। অনেকে ওই গ্রামকে আর্জেন্টিনা শহর বলে ডাকে।

জানা গেছে, পেশায় জুয়েলারি ব্যবসায়ী হাফিজুর রহমান ম্যারাডোনার পাড়ভক্ত ছিলেন ছেলেবেলা থেকেই। আর্জেন্টিনার জার্সিই পরে থাকেন বেশিরভাগ সময়। এমনকি তার বাড়ির ছাদে করা বাগানের টবেও আর্জেন্টিনার পতাকার লোগো আঁকা।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, রাশিয়া বিশ্বকাপ চলাকালীন নিজের বাড়িকে  ‘আর্জেন্টিনা বাড়ি’তে রূপ দেন হাফিজুর। এবারের কোপা আমেরিকায় আর্জেন্টিনা ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করলে খুশিতে ফের নতুন করে আকাশি-সাদায় রাঙিয়েছেন বাড়িটিকে।

নিজের ‘আর্জেন্টিনা বাড়ি’ নিয়ে হাফিজুর রহমান স্থানীয় সাংবাদিকদের বলেন, ফুটবল বুঝে ওঠার আগ থেকেই আমি ম্যারাডোনা ভক্ত। পরে বয়স হলে আর্জেন্টিনার জার্সি পরে তাদের সব খেলা দেখি। রাশিয়া বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা হেরে গেলেও দলকে ত্যাগ করিনি। এলাকার মানুষ আমাকে আর্জেন্টাইন বলেই ডাকে। আমার ছেলেকে আমি ফুটবলার বানাতে চাই।

হাফিজুরের ‘আর্জেন্টিনা বাড়ি’প্রসঙ্গে মেহেরপুরের জেলা প্রশাসক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ড. মুনসুর আলম খান বলেন, আর্জেন্টিনার প্রতি হাফিজুর রহমান যে ভালোবাসা দেখিয়েছেন তা সত্যিই ব্যতিক্রম ও অনন্য। এবার তার সমর্থন সার্থক হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর