,

দুই নৌকায় পা দিতে চাই না

আইরিন সুলতানার শুরু র‌্যাম্প মডেল হিসেবে। এখন পুরোপুরি সিনেমার নায়িকা। ২০১৩ সালের নভেম্বরে মুক্তি পায় আইরিন অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র ‘ভালোবাসা জিন্দাবাদ’। এর পর চুক্তিবদ্ধ হন বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে।

আইরিন অভিনীত দ্বিতীয় চলচ্চিত্র ‘ইউটার্ন’ মুক্তি পাচ্ছে শুক্রবার। আলভী আহমেদের এ সিনেমায় টেলিভিশন কর্মকর্তার ভূমিকায় অভিনয় করছেন তিনি। ‘ইউটার্ন’ ও অন্যান্য প্রসঙ্গে দ্য রিপোর্টের সঙ্গে কথা বলেছেন এই গ্ল্যামার কন্যা। আলাপচারিতার চুম্বক অংশ পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল—

ইউটার্ন মুক্তি পাচ্ছে শুক্রবার। এ প্রসঙ্গে বলুন-

‘ইউটার্ন’ আমার জন্য একটা বড় চ্যালেঞ্জ। ২০১৩ সালে ‘ভালোবাসা জিন্দাবাদ’ মুক্তি পাওয়ার পর দর্শক আমাকে অনেক ভালবাসা জানিয়েছেন। তার পর মুক্তি পাচ্ছে ‘ইউটার্ন’। এটি আমার অভিনীত দ্বিতীয় চলচ্চিত্র। ‘ভালোবাসা জিন্দাবাদ’-এর মতোই এই সিনেমাটি গ্রহণ করবে দর্শক— এটাই আমার প্রত্যাশা। আশা করি, সবাই হলে এসে সিনেমাটি দেখবেন।

সিনেমাটিতে প্রযোজকের সঙ্গে অভিনয় করেছেন। এটা তো নতুন অভিজ্ঞতা-

এই সিনেমাটিতে অনেকগুলো ঘটনাই প্রথম ঘটেছে। নির্মাতা আলভী আহমেদের সঙ্গেও আমার প্রথম কাজ। সিনেমার সহশিল্পী হিসেবে আরশাদ আদনান, শিপন, সোনিয়া, মৌটুসী, ইরফান সাজ্জাদসহ অনেকের সঙ্গেই প্রথম অভিনয় করেছি। এতে আমার বিপরীতে অভিনয় করেছেন প্রযোজক আরশাদ আদনান। তিনি সহশিল্পী হিসেবে অসাধারণ। দর্শক দেখলেই বুঝতে পারবেন।

আপনার চরিত্রটি কেমন?

‘ইউটার্ন’-এ টিভি চ্যানেলে কর্মরত একটি মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছি। আমার চরিত্রটির নাম আনুশকা। খুবই স্মার্ট, বুদ্ধিমতি টাইপের একটি মেয়ে। কিন্তু সিনেমার অর্ধেক দৃশ্যের পর অন্যরকমভাবে হাজির হয়। এখানেই একটা চমক আছে। এই চমকটাই পুরো সিনেমাটাকে ভিন্ন এক জায়গায় নিয়ে যায়। এই চমকটা এখনই বলতে চাই না। দর্শক হলে এসে দেখবেন আশা করছি।

অন্যান্য সিনেমার খবর জানতে চাই-

আরও তিনটি সিনেমা মুক্তির অপেক্ষায় আছে। কয়েকটি সিনেমা নির্মাণ হচ্ছে। এর মধ্যে সাইফ চন্দন পরিচালিত ‘টার্গেট’ ও ‘ছেলেটি আবোল তাবোল মেয়েটি পাগল পাগল’ এবং গাজী রহমানের ‘এই তুমি সেই তুমি’ শিগগিরই মুক্তি পাবে। এ ছাড়া এস এ হক অলিক পরিচালিত ‘এক পৃথিবী প্রেম’ সিনেমার শুটিং শেষ হয়েছে। এ বছরেই সিনেমাটি মুক্তি পাবে। কয়েকটি সিনেমায় এখন অভিনয় করছি। এর মধ্যে রয়েছে সুস্ময় সুমন পরিচালিত ‘তোকে হেব্বি লাগছে’। জুলাই থেকে শুরু হবে সোহানুর সোহান পরিচালিত ‘লাভার বয়’।

এক সময় আপনাকে টিভি নাটকে দেখা গেছে-

এখন আর টিভি নাটকে অভিনয় করছি না। পুরোপুরি সিনেমাতেই সময় দিচ্ছি। সিনেমা নিয়েই ব্যস্ত থাকতে চাই। আরও কিছু সিনেমা নিয়ে কথা হচ্ছে। সিনেমার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করার একটা ব্যাপার থাকে। আমি আসলে প্রতিদিন নিজেকে সিনেমার জন্যই প্রস্তুত করছি। সামনে ভাল কিছু সিনেমায় দর্শক আমাকে ভিন্ন লুকে দেখতে পাবেন।

র‌্যাম্প দিয়ে আপনার ক্যারিয়ার শুরু হয়েছিল। এখন কি র‌্যাম্পে সময় দেওয়া হয়?

এখন আসলে সময় দিতে পারি না। সিনেমা ও র‌্যাম্প দুটো আলাদা ইন্ডাস্ট্রি। কাজের ক্ষেত্রে আমি একসঙ্গে দুই নৌকায় পা দিতে চাই না। র‌্যাম্পের প্রস্তাব এখনো আসছে। আমি আসলে সিনেমার জন্য র‌্যাম্পে সময় দিতে পারছি না। অনেক সময় দিতে হবে সিনেমার জন্য। আর বাংলাদেশে র‌্যাম্পে এখনো পেশাদারিত্ব তৈরি হয়নি।

কেন?

আমাদের দেশে র‌্যাম্পের নিয়মিত শো থাকে না। একটা সিজনে কিছু কাজ হয়। ফলে সারাবছর তেমন কাজ করার সুযোগ থাকে না। এ ছাড়া র‌্যাম্পের সমন্বয় করার জন্য তেমন পেশাদার প্রতিষ্ঠানও তৈরি হয়নি। কয়েকটা আছে, তবে সেটা দিয়ে একটা ইন্ডাস্ট্রি তৈরি হয় না। আমি এখন র‌্যাম্প নিয়ে ভাবছি না। সিনেমার জন্যই নিজেকে তৈরি করছি।

তাহলে সিনেমাকে ঘিরেই আপনার স্বপ্ন?

হ্যাঁ, সিনেমায় অভিনয়কে ঘিরেই আমার স্বপ্ন। মানুষের হৃদয়ে অভিনয় দিয়েই জায়গা করে নিতে চাই। ভাল সিনেমা হলে মানুষ গ্রহণ করে। দর্শক অনেক প্রত্যাশা নিয়েই টিকিট কেটে হলে যান। দর্শক যেন আমার সিনেমা দেখে নিরাশ না হন, সেভাবেই নিজেকে তৈরি করছি।

‘ইউটার্ন’ কি সে প্রত্যাশা পূরণ করবে?

আমরা সবাই মিলে চেষ্টা করেছি। একটা ভাল সিনেমার সকল গুণই আছে ইউটার্নে। আলভী আহমেদ নির্মাতা হিসেবে সবার কাছে বেশ পরিচিত। তবে সিনেমায় এটাই তার প্রথম কাজ। প্রথম কাজেই সবাইকে মুগ্ধ করবেন আশা করছি। বাকিটা দর্শকের কাছ থেকেই শুনতে চাই।

সিনেমা মুক্তিতে দর্শকের কাছে কোন মেসেজ পাঠাতে চান?

সবার কাছে আমার শুধু একটাই বক্তব্য। আপনারা হলে আসুন। সিনেমাটি দেখে প্রতিক্রিয়া জানান। আমরা অনেকগুলো মানুষ মিলে চেষ্টা করেছি আপনাদের ভাললাগার মতো একটা সিনেমা নির্মাণ করতে। সিনেমাটি দেখলে মুগ্ধ হবেন। টিকিটের পয়সাটা জলে ভাসবে না।

আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ও শুভ কামনা।

আপনাকেও ধন্যবাদ। দ্য রিপোর্টের সবার জন্য শুভ কামনা।

একনজরে আইরিন : যশোরের নওয়াপাড়ার মেয়ে আইরিন সুলতানা। বাবা মতিয়ার রহমান ব্যবসায়ী ও মা শামসুন্নাহার গৃহিণীl দুই ভাই-বোনের মধ্যে আইরিন সবার ছোটl একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমবিএ সম্পন্ন করেছেনl

আইরিন ক্যারিয়ার শুরু করেন র‌্যাম্পে। এর পর টিভি নাটকে অভিনয় করে আলোচনায় আসেন। অভিনয় করেছেন আশুতোষ সুজনের ধারাবাহিক নাটক ‘ম্যানপাওয়ার’, তানভীর হাসান প্রবালের ‘তবুও সংশয়’ ও আফসানা মিমির ‘পৌষ ফাগুনের পালা’তে। এর বাইরে বেশকিছু বিজ্ঞাপনের মডেলও হয়েছেন আইরিনl এখন পুরোপুরি ব্যস্ত চলচ্চিত্রে অভিনয় নিয়ে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর