ঢাকা ১২:৫৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে লাগবে ৪০০ ভোটারের সমর্থন

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১০:০৩:১৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ৪ নভেম্বর ২০১৫
  • ৩৭৭ বার

পৌর নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে মেয়র পদে ৪০০ এবং কাউন্সিলর পদে ৫০ ভোটারের সমর্থনযুক্ত তালিকা মনোনয়নপত্রের সঙ্গে জমা দিতে হবে। আর দলীয়ভাবে পৌর নির্বাচনে অংশগ্রহণকারীরা এক লাখের বেশি টাকা খরচ করতে পারবেন না। এ সব বিধান রেখে বুধবার পৌরসভা নির্বাচন বিধিমালা সংশোধন করছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

ইসির যুগ্ম সচিব জেসমিন টুলী জানান, প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও চার নির্বাচন কমিশনার এ সংক্রান্ত খসড়া অনুমোদনের পর বুধবারই তা ভেটিংয়ের জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরো জানান, দলীয়ভাবে স্থানীয় সরকার নির্বাচন হওয়ায় এসব সংশোধনী আনা হয়েছে। প্রার্থীদের নির্বাচনী ব্যয় বিদ্যমান বিধিমালায় ঠিক করে দেয়া আছে। এবার দলভিত্তিক ভোট হবে বলে দলীয় নির্বাচনী ব্যয়ের সীমা নির্ধারণ করে দেয়া হচ্ছে।

জানা যায়, মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পেলে নির্বাচন বিধিমালা, আচরণ বিধিমালা ও সমর্থন যাচাই বিধিমালা প্রজ্ঞাপন আকারে জারি করবে ইসি। এই প্রথমবারের মতো স্থানীয় সরকারের পৌরসভা নির্বাচন হতে যাচ্ছে দলীয় মনোনয়নের ভিত্তিতে। সে অনুযায়ী দলীয় প্রার্থী মনোনয়ন, দলীয় ব্যয়, স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়নসহ বেশ কিছু বিষয়ে সংশোধনী আনা হচ্ছে এই বিধিমালায়।

ওই বিধিতে আরো উল্লেখ আছে, কোনো দল ভোটের খরচ মেটাতে অনুদান নিলে ২০ হাজার টাকার বেশি চেক নিতে পারবে না। দলের ক্ষেত্রে এসব বিধি লঙ্ঘন হলে সর্বোচ্চ ৫ লাখ টাকা জরিমানারও বিধান রাখা হয়েছে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে লাগবে ৪০০ ভোটারের সমর্থন

আপডেট টাইম : ১০:০৩:১৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ৪ নভেম্বর ২০১৫

পৌর নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে মেয়র পদে ৪০০ এবং কাউন্সিলর পদে ৫০ ভোটারের সমর্থনযুক্ত তালিকা মনোনয়নপত্রের সঙ্গে জমা দিতে হবে। আর দলীয়ভাবে পৌর নির্বাচনে অংশগ্রহণকারীরা এক লাখের বেশি টাকা খরচ করতে পারবেন না। এ সব বিধান রেখে বুধবার পৌরসভা নির্বাচন বিধিমালা সংশোধন করছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

ইসির যুগ্ম সচিব জেসমিন টুলী জানান, প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও চার নির্বাচন কমিশনার এ সংক্রান্ত খসড়া অনুমোদনের পর বুধবারই তা ভেটিংয়ের জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরো জানান, দলীয়ভাবে স্থানীয় সরকার নির্বাচন হওয়ায় এসব সংশোধনী আনা হয়েছে। প্রার্থীদের নির্বাচনী ব্যয় বিদ্যমান বিধিমালায় ঠিক করে দেয়া আছে। এবার দলভিত্তিক ভোট হবে বলে দলীয় নির্বাচনী ব্যয়ের সীমা নির্ধারণ করে দেয়া হচ্ছে।

জানা যায়, মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পেলে নির্বাচন বিধিমালা, আচরণ বিধিমালা ও সমর্থন যাচাই বিধিমালা প্রজ্ঞাপন আকারে জারি করবে ইসি। এই প্রথমবারের মতো স্থানীয় সরকারের পৌরসভা নির্বাচন হতে যাচ্ছে দলীয় মনোনয়নের ভিত্তিতে। সে অনুযায়ী দলীয় প্রার্থী মনোনয়ন, দলীয় ব্যয়, স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়নসহ বেশ কিছু বিষয়ে সংশোধনী আনা হচ্ছে এই বিধিমালায়।

ওই বিধিতে আরো উল্লেখ আছে, কোনো দল ভোটের খরচ মেটাতে অনুদান নিলে ২০ হাজার টাকার বেশি চেক নিতে পারবে না। দলের ক্ষেত্রে এসব বিধি লঙ্ঘন হলে সর্বোচ্চ ৫ লাখ টাকা জরিমানারও বিধান রাখা হয়েছে।