ঢাকা ০৪:০৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চীনের বিশ্ববিদ্যালয়ে চালু হচ্ছে বাংলা বিভাগ

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ০৩:৩১:৩১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২০ মে ২০১৫
  • ৩৭৩ বার

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সহায়তায় চীনের বেইজিং ফরেন স্টাডিজ ইউনিভার্সিটিতে আগামী বছর থেকে চালু হচ্ছে বাংলা বিভাগ।

বুধবার (২০ মে) বেইজিং ফরেন স্টাডিজ ইউনিভার্সিটির উপ-পরিচালক অধ্যাপক ড. মা লিন ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক আরেফিন সিদ্দিকের সঙ্গে এক সাক্ষাতে এ কথা জানান।

অধ্যাপক ড. মা লিন’র নেতৃত্বে দুই সদস্যের একটি দল ঢাবি উপাচার্যের সঙ্গে তার কার্যালয়ে সাক্ষাত করেন। প্রতিনিধি দলের অন্য সদস্য ছিলেন চীন আন্তর্জাতিক বেতারের বাংলা বিভাগের কো-অর্ডিনেটর ইয়াং ওয়েই মিং।

তারা বাংলা বিভাগ চালুর ব্যাপারে ঢাবি কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা কামনা করেন। উপাচার্য চীনের বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা বিভাগ চালুর ক্ষেত্রে সম্ভাব্য সব সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

এ বিষয়ে শিগগিরই একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের ব্যাপারেও তারা ঐকমত পোষণ করেন।

চীনের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে উপাচার্য বলেন, বাংলা বিভাগ চালুর মাধ্যমে দু’দেশের মধ্যে বিরাজমান বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ভবিষ্যতে আরও জোরদার হবে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

জনপ্রিয় সংবাদ

চীনের বিশ্ববিদ্যালয়ে চালু হচ্ছে বাংলা বিভাগ

আপডেট টাইম : ০৩:৩১:৩১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২০ মে ২০১৫

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সহায়তায় চীনের বেইজিং ফরেন স্টাডিজ ইউনিভার্সিটিতে আগামী বছর থেকে চালু হচ্ছে বাংলা বিভাগ।

বুধবার (২০ মে) বেইজিং ফরেন স্টাডিজ ইউনিভার্সিটির উপ-পরিচালক অধ্যাপক ড. মা লিন ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক আরেফিন সিদ্দিকের সঙ্গে এক সাক্ষাতে এ কথা জানান।

অধ্যাপক ড. মা লিন’র নেতৃত্বে দুই সদস্যের একটি দল ঢাবি উপাচার্যের সঙ্গে তার কার্যালয়ে সাক্ষাত করেন। প্রতিনিধি দলের অন্য সদস্য ছিলেন চীন আন্তর্জাতিক বেতারের বাংলা বিভাগের কো-অর্ডিনেটর ইয়াং ওয়েই মিং।

তারা বাংলা বিভাগ চালুর ব্যাপারে ঢাবি কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা কামনা করেন। উপাচার্য চীনের বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা বিভাগ চালুর ক্ষেত্রে সম্ভাব্য সব সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

এ বিষয়ে শিগগিরই একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের ব্যাপারেও তারা ঐকমত পোষণ করেন।

চীনের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে উপাচার্য বলেন, বাংলা বিভাগ চালুর মাধ্যমে দু’দেশের মধ্যে বিরাজমান বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ভবিষ্যতে আরও জোরদার হবে।