ঢাকা ১২:১৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অভিন্ন লক্ষ্য সামনে রেখে মাঠে নামছে রিয়াল-বার্সা

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ০৩:৪০:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৫
  • ২৭০ বার

আগামীকাল থেকে আবারো জমে উঠছে ইউরোপিয়ান ফুটবল লীগের লড়াই। আর সেকারণেই খেলোয়াড়দের আবারো ক্লাব জার্সিতে দেখা যাবে। তবে জয়ের ধারায় ফেরার লক্ষ্য নিয়ে স্প্যানিশ ফুটবল লীগে খেলতে নামবে দুই জায়ান্ট বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বার্সা নিজ মাঠে রায়ো ভায়োকানোর বিরুদ্ধে খেলবে। আরকে জায়ান্ট রিয়াল আতিথেয়তা দেবে খেলবে লেভান্তের। বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ ছাড়াও একই দিন মাঠে নামছে আরো ছয়টি দল। এইবারের মুখোমুখি হবে সেভিয়া। আর মালাগার প্রতিপক্ষ হিসেবে খেলবে ভ্যালেন্সিয়া। অন্য আরও একটি ম্যাচে লড়বে রিয়াল বেটিস ও এস্পানিয়ল। নিজেদের সপ্তম ম্যাচে হোচট খেয়েছে বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ। সেভিয়ার কাছে ২-১ গোলে বার্সা হারলেও অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের সাথে ১-১ গোলে ড্র করে রিয়াল। তবে পয়েন্টের দিক দিয়ে কেউই কাউকে ছাড়িয়ে যেতে পারেনি। দু’দলেরই সংগ্রহে আছে সমান ১৫ পয়েন্ট করে। তবে গোল গড়ে এগিয়ে থাকায় পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে রিয়াল। আর চতুর্থ স্থানে রয়েছে বার্সেলোনা। ১৬ পয়েন্ট নিয়ে এককভাবে টেবিলের শীর্ষে রয়েছে ভিয়ারিয়াল। সেভিয়ার বিপক্ষে আগের ম্যাচে নিজেদের পুরোপুরিভাবে মেলে ধরতে পারেনি বার্সেলোনা। ফলে হারটা লজ্জার ছিলো মেসিবিহীন বার্সার। তবে অষ্টম রাউন্ডের ম্যাচ জিতে আবারো জয়ের ধারায় ফিরতে মরিয়া বার্সেলোনা। রায়ো ভায়েকানোর বিপক্ষে ম্যাচের আগে তেমনটাই জানালেন দলে কোচ লুইস এনরিকে, ‘আগের ম্যাচে আসলেই আমরা বাজে খেলেছি। যেভাবে পরিকল্পনা করা হয়েছিলো, কোন কিছুই ঠিকভাবে করেনি খেলোয়াড়রা। এ ছাড়া সেভিয়া দারুণ খেলেছে। বিশেষভাবে তাদের ডিফেন্ডাররা। তবে এসব এখন অতীত। রায়ো ভায়োকানোর বিপক্ষে ম্যাচ নিয়েই আমরা বেশি ভাবছি। ওই ম্যাচ নিয়েই পরিকল্পনা সাজিয়েছি। আমাদের লক্ষ্য জয়। আবারো জয়ের ধারায় ফিরতে চাই। একটি জয় দলের আত্মবিশ্বাস অনেকখানি বাড়িয়ে দেয়।’ ইনজুরির কারণে দলে নেই সেরা তারকা লিওনেল মেসি। তাই বার্সেলোনাকে গোলের স্বাদ দেয়ার দায়িত্ব নেইমার ও সুয়ারেজের ওপর। কিন্তু মেসি না থাকলে, কি হয় সেটা ইতোমধ্যে বুঝতে পেরেছে বার্সেলোনা। তবে রায়ো ভায়োকানোর বিপক্ষে ম্যাচের আগে আরও একটি দুঃসংবাদ শুনতে পারে বার্সা। তাহলো- ইনুজরির কারণে পরের ম্যাচে অনিশ্চিত সুয়ারেজ। ম্যাচ শুরুর আগে সুয়ারেজকে নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে বার্সেলোনা শিবির। সুয়ারেজকে খেলানোর জন্য মেডিকেল টিম সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছে জানিয়ে এনরিকে বলেন, ‘খুব বড় ইনজুরি নয় সুয়ারেজের। তবে ম্যাচে খেললেও বড় ধরনের সমস্যা হতে পারে তার। ম্যাচে তাকে খেলানোর জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করছে দলের মেডিকেল টিম।’ সুয়ারেজ না খেললে নেইমারের সাথে বার্সেলোনার আক্রমণভাগ সামলাবেন দুই তরুণ সান্দ্রো ও মুনীর এল হাড্ডাডি। বার্সেলোনার মতো জয়ের ধারায় ফিরতে চায় রিয়াল মাদ্রিদ। কারণ, আগের ম্যাচে এগিয়ে গিয়ে অ্যাথলেটিকোর সাথে ১-১ গোলে ড্র করে গ্যালাকটিকোরা। তবে লেভান্তের বিপক্ষে ম্যাচে নিজেদের সেরা রুপেই ফিরতে চায় রিয়াল। এমন লক্ষ্যই রিয়াল কোচ রাফায়েল বেনিতেজের। নিজ মাঠের সুবিধা নিয়ে লেভান্তেকে ধরাশায়ী করার লক্ষ্য বেনিতেজের। বেনিতেজ বলেন, ‘প্রতিপক্ষকে নিয়ে আমাদের ভাবনাটা খুবই কম। আমরা নিজেদের নিয়েই আপাতত বেশি ভাবছি। পরের ম্যাচে নিজেরা সেরাটা খেলতে পারলেই প্রতিপক্ষকে সহজেই ধরাশায়ী করতে পারবো। ম্যাচটি নিজ মাঠে হওয়ায় আমরাই বেশি সুবিধা পাব। জয়ের ধারায় আবারো ফিরতে চাই। প্রতিপক্ষের বিপক্ষে আক্রমণাত্মক ফুটবলই প্রদর্শন করাই আমাদের লক্ষ্য।’

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

অভিন্ন লক্ষ্য সামনে রেখে মাঠে নামছে রিয়াল-বার্সা

আপডেট টাইম : ০৩:৪০:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৫

আগামীকাল থেকে আবারো জমে উঠছে ইউরোপিয়ান ফুটবল লীগের লড়াই। আর সেকারণেই খেলোয়াড়দের আবারো ক্লাব জার্সিতে দেখা যাবে। তবে জয়ের ধারায় ফেরার লক্ষ্য নিয়ে স্প্যানিশ ফুটবল লীগে খেলতে নামবে দুই জায়ান্ট বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বার্সা নিজ মাঠে রায়ো ভায়োকানোর বিরুদ্ধে খেলবে। আরকে জায়ান্ট রিয়াল আতিথেয়তা দেবে খেলবে লেভান্তের। বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ ছাড়াও একই দিন মাঠে নামছে আরো ছয়টি দল। এইবারের মুখোমুখি হবে সেভিয়া। আর মালাগার প্রতিপক্ষ হিসেবে খেলবে ভ্যালেন্সিয়া। অন্য আরও একটি ম্যাচে লড়বে রিয়াল বেটিস ও এস্পানিয়ল। নিজেদের সপ্তম ম্যাচে হোচট খেয়েছে বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ। সেভিয়ার কাছে ২-১ গোলে বার্সা হারলেও অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের সাথে ১-১ গোলে ড্র করে রিয়াল। তবে পয়েন্টের দিক দিয়ে কেউই কাউকে ছাড়িয়ে যেতে পারেনি। দু’দলেরই সংগ্রহে আছে সমান ১৫ পয়েন্ট করে। তবে গোল গড়ে এগিয়ে থাকায় পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে রিয়াল। আর চতুর্থ স্থানে রয়েছে বার্সেলোনা। ১৬ পয়েন্ট নিয়ে এককভাবে টেবিলের শীর্ষে রয়েছে ভিয়ারিয়াল। সেভিয়ার বিপক্ষে আগের ম্যাচে নিজেদের পুরোপুরিভাবে মেলে ধরতে পারেনি বার্সেলোনা। ফলে হারটা লজ্জার ছিলো মেসিবিহীন বার্সার। তবে অষ্টম রাউন্ডের ম্যাচ জিতে আবারো জয়ের ধারায় ফিরতে মরিয়া বার্সেলোনা। রায়ো ভায়েকানোর বিপক্ষে ম্যাচের আগে তেমনটাই জানালেন দলে কোচ লুইস এনরিকে, ‘আগের ম্যাচে আসলেই আমরা বাজে খেলেছি। যেভাবে পরিকল্পনা করা হয়েছিলো, কোন কিছুই ঠিকভাবে করেনি খেলোয়াড়রা। এ ছাড়া সেভিয়া দারুণ খেলেছে। বিশেষভাবে তাদের ডিফেন্ডাররা। তবে এসব এখন অতীত। রায়ো ভায়োকানোর বিপক্ষে ম্যাচ নিয়েই আমরা বেশি ভাবছি। ওই ম্যাচ নিয়েই পরিকল্পনা সাজিয়েছি। আমাদের লক্ষ্য জয়। আবারো জয়ের ধারায় ফিরতে চাই। একটি জয় দলের আত্মবিশ্বাস অনেকখানি বাড়িয়ে দেয়।’ ইনজুরির কারণে দলে নেই সেরা তারকা লিওনেল মেসি। তাই বার্সেলোনাকে গোলের স্বাদ দেয়ার দায়িত্ব নেইমার ও সুয়ারেজের ওপর। কিন্তু মেসি না থাকলে, কি হয় সেটা ইতোমধ্যে বুঝতে পেরেছে বার্সেলোনা। তবে রায়ো ভায়োকানোর বিপক্ষে ম্যাচের আগে আরও একটি দুঃসংবাদ শুনতে পারে বার্সা। তাহলো- ইনুজরির কারণে পরের ম্যাচে অনিশ্চিত সুয়ারেজ। ম্যাচ শুরুর আগে সুয়ারেজকে নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে বার্সেলোনা শিবির। সুয়ারেজকে খেলানোর জন্য মেডিকেল টিম সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছে জানিয়ে এনরিকে বলেন, ‘খুব বড় ইনজুরি নয় সুয়ারেজের। তবে ম্যাচে খেললেও বড় ধরনের সমস্যা হতে পারে তার। ম্যাচে তাকে খেলানোর জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করছে দলের মেডিকেল টিম।’ সুয়ারেজ না খেললে নেইমারের সাথে বার্সেলোনার আক্রমণভাগ সামলাবেন দুই তরুণ সান্দ্রো ও মুনীর এল হাড্ডাডি। বার্সেলোনার মতো জয়ের ধারায় ফিরতে চায় রিয়াল মাদ্রিদ। কারণ, আগের ম্যাচে এগিয়ে গিয়ে অ্যাথলেটিকোর সাথে ১-১ গোলে ড্র করে গ্যালাকটিকোরা। তবে লেভান্তের বিপক্ষে ম্যাচে নিজেদের সেরা রুপেই ফিরতে চায় রিয়াল। এমন লক্ষ্যই রিয়াল কোচ রাফায়েল বেনিতেজের। নিজ মাঠের সুবিধা নিয়ে লেভান্তেকে ধরাশায়ী করার লক্ষ্য বেনিতেজের। বেনিতেজ বলেন, ‘প্রতিপক্ষকে নিয়ে আমাদের ভাবনাটা খুবই কম। আমরা নিজেদের নিয়েই আপাতত বেশি ভাবছি। পরের ম্যাচে নিজেরা সেরাটা খেলতে পারলেই প্রতিপক্ষকে সহজেই ধরাশায়ী করতে পারবো। ম্যাচটি নিজ মাঠে হওয়ায় আমরাই বেশি সুবিধা পাব। জয়ের ধারায় আবারো ফিরতে চাই। প্রতিপক্ষের বিপক্ষে আক্রমণাত্মক ফুটবলই প্রদর্শন করাই আমাদের লক্ষ্য।’