ঢাকা ০৮:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

উত্তরা থেকে টঙ্গী মেট্রোরেলের পাঁচ স্টেশন

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ০৬:৪৪:০০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪
  • ১৪ বার

ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এমএএন ছিদ্দিক জানিয়েছেন, রাজধানীতে এমআরটি-৬ লাইনের বর্ধিতাংশে উত্তরা উত্তর থেকে টঙ্গী রেলওয়ে স্টেশন পর্যন্ত মেট্রোরেলের মোট পাঁচটি স্টেশন হবে।

দিয়াবাড়ী বাজার, সোনারগাঁও জনপদ রোড পূর্ব, পশ্চিম, টঙ্গী বাজার, টঙ্গী রেলওয়ে স্টেশন- এই পাঁচ স্থানে হবে মেট্রোরেলের স্টেশন।

রোববার রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে এসব তথ্য জানান এমএএন ছিদ্দিক।

সাড়ে ৭ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের বর্ধিত লাইনটি চালু হলে টঙ্গী থেকে কমলাপুর পর্যন্ত যেতে সময় লাগবে ৪৮ মিনিট। এই লাইন চালু হলে আরও ৫ লাখ যাত্রী যাতায়াত করতে পারবেন।

এর আগে গত ১০ মে মেট্রোরেলের এমডি বলেছিলেন, ‘সাভারের আশুলিয়া পর্যন্ত মেট্রোরেল যাওয়ার কথা। কিন্তু নতুন পরিকল্পনা অনুযায়ী, টঙ্গী পর্যন্ত বর্ধিত হচ্ছে মেট্রোরেলের লাইন। এমআরটি লাইন-৬ নির্মাণের সময়ই দিয়াবাড়ি থেকে প্রায় এক কিলোমিটার পথ তৈরি করে রাখা হয়েছে ভবিষ্যতের কথা ভেবে। এরই মধ্যে বর্ধিত এ পথের সম্ভাব্যতা যাচাই চলছে। দ্রুতই নকশা চূড়ান্ত করে টেন্ডার প্রক্রিয়া শুরু হবে।’

তিনি বলেন, পরিকল্পনা ছিল পথটি আশুলিয়া পর্যন্ত নেওয়ার। তবে ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের কারণে নতুন এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, এটি টঙ্গী রেলস্টেশন পর্যন্ত যুক্ত করা হবে।

মেট্রোরেলের এমডি বলেন, মূলত টঙ্গী রেলস্টেশন এবং সড়ক জংশনকে সংযুক্ত করতে পারলে ওই অঞ্চলের মানুষের সুবিধা বাড়বে। এরই মধ্যে ফিজিবিলিটি স্ট্যাডি শুরু হয়েছে। এ পথ চালু হলে টঙ্গী থেকে কমলাপুর পর্যন্ত যাত্রাপথ হবে ৪৮ মিনিটের।

 

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

উত্তরা থেকে টঙ্গী মেট্রোরেলের পাঁচ স্টেশন

আপডেট টাইম : ০৬:৪৪:০০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এমএএন ছিদ্দিক জানিয়েছেন, রাজধানীতে এমআরটি-৬ লাইনের বর্ধিতাংশে উত্তরা উত্তর থেকে টঙ্গী রেলওয়ে স্টেশন পর্যন্ত মেট্রোরেলের মোট পাঁচটি স্টেশন হবে।

দিয়াবাড়ী বাজার, সোনারগাঁও জনপদ রোড পূর্ব, পশ্চিম, টঙ্গী বাজার, টঙ্গী রেলওয়ে স্টেশন- এই পাঁচ স্থানে হবে মেট্রোরেলের স্টেশন।

রোববার রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে এসব তথ্য জানান এমএএন ছিদ্দিক।

সাড়ে ৭ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের বর্ধিত লাইনটি চালু হলে টঙ্গী থেকে কমলাপুর পর্যন্ত যেতে সময় লাগবে ৪৮ মিনিট। এই লাইন চালু হলে আরও ৫ লাখ যাত্রী যাতায়াত করতে পারবেন।

এর আগে গত ১০ মে মেট্রোরেলের এমডি বলেছিলেন, ‘সাভারের আশুলিয়া পর্যন্ত মেট্রোরেল যাওয়ার কথা। কিন্তু নতুন পরিকল্পনা অনুযায়ী, টঙ্গী পর্যন্ত বর্ধিত হচ্ছে মেট্রোরেলের লাইন। এমআরটি লাইন-৬ নির্মাণের সময়ই দিয়াবাড়ি থেকে প্রায় এক কিলোমিটার পথ তৈরি করে রাখা হয়েছে ভবিষ্যতের কথা ভেবে। এরই মধ্যে বর্ধিত এ পথের সম্ভাব্যতা যাচাই চলছে। দ্রুতই নকশা চূড়ান্ত করে টেন্ডার প্রক্রিয়া শুরু হবে।’

তিনি বলেন, পরিকল্পনা ছিল পথটি আশুলিয়া পর্যন্ত নেওয়ার। তবে ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের কারণে নতুন এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, এটি টঙ্গী রেলস্টেশন পর্যন্ত যুক্ত করা হবে।

মেট্রোরেলের এমডি বলেন, মূলত টঙ্গী রেলস্টেশন এবং সড়ক জংশনকে সংযুক্ত করতে পারলে ওই অঞ্চলের মানুষের সুবিধা বাড়বে। এরই মধ্যে ফিজিবিলিটি স্ট্যাডি শুরু হয়েছে। এ পথ চালু হলে টঙ্গী থেকে কমলাপুর পর্যন্ত যাত্রাপথ হবে ৪৮ মিনিটের।