ঢাকা ১২:০৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিটি নির্বাচনে সাংবাদিক হয়রানির ঘটনা ঘটেনি

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ০৩:১৪:৫১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২০ মে ২০১৫
  • ৩০৯ বার
নির্বাচন কমিশনের রিপোর্টে প্রিসাইডিং অফিসাররা জানিয়েছেন, কোন অনিয়ম হয়নি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে। এবার পুলিশ তদন্ত দলকে জানালো, সিটি নির্বাচনে সাংবাদিক হয়রানির কোন ঘটনা ঘটেনি!  ‘সাংবাদিকদের বাধা দেওয়া হয়নি’ জানিয়ে তদন্ত কমিটির কাছে শপথও করেছেন একজন পুলিশ কর্মকর্তা!
রাজধানীর সেগুনবাগিচার বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ে বুধবার বেলা ১১টায় তদন্ত কমিটি ২০ পুলিশ কর্মকর্তার বক্তব্য শোনে। একই সঙ্গে তাদের কাছ থেকে লিখিত বক্তব্য নেওয়া হয়। এদের মধ্যে ৮ জন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও ১২ জন পুলিশের উপ-পরিদর্শক ছিলেন।
ঢাকার অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ আনিছুর রহমানকে (সার্বিক) আহ্বায়ক করে ঢাকা উত্তর-দক্ষিণ সিটির জন্য তিন সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের যুগ্ম-কমিশনার রেজাউল করিম (ক্রাইমস এ্যান্ড অপারেশন) ও নির্বাচন কমিশনের উপ-সচিব আবদুল অদুদ।
গত রোববার তদন্ত কমিটি প্রথম দফায় ৩০টি ভোটকেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তার বক্তব্য শোনে। ওই দিন প্রিসাইডিং অফিসাররা তদন্ত কমিটিকে জানিয়েছিলেন, ভোটকেন্দ্রে এমন কিছু ঘটেনি, সব স্বাভাবিকই ছিল।
নির্বাচন কমিশনের উপ-সচিব আবদুল অদুদ জানান, “২৪ মে সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও পর্যবেক্ষকদের বক্তব্য শোনা হবে। এ ছাড়া ২৮ মে ভুক্তভোগী সাংবাদিকের বক্তব্য শোনা হবে।”
Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

সিটি নির্বাচনে সাংবাদিক হয়রানির ঘটনা ঘটেনি

আপডেট টাইম : ০৩:১৪:৫১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২০ মে ২০১৫
নির্বাচন কমিশনের রিপোর্টে প্রিসাইডিং অফিসাররা জানিয়েছেন, কোন অনিয়ম হয়নি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে। এবার পুলিশ তদন্ত দলকে জানালো, সিটি নির্বাচনে সাংবাদিক হয়রানির কোন ঘটনা ঘটেনি!  ‘সাংবাদিকদের বাধা দেওয়া হয়নি’ জানিয়ে তদন্ত কমিটির কাছে শপথও করেছেন একজন পুলিশ কর্মকর্তা!
রাজধানীর সেগুনবাগিচার বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ে বুধবার বেলা ১১টায় তদন্ত কমিটি ২০ পুলিশ কর্মকর্তার বক্তব্য শোনে। একই সঙ্গে তাদের কাছ থেকে লিখিত বক্তব্য নেওয়া হয়। এদের মধ্যে ৮ জন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও ১২ জন পুলিশের উপ-পরিদর্শক ছিলেন।
ঢাকার অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ আনিছুর রহমানকে (সার্বিক) আহ্বায়ক করে ঢাকা উত্তর-দক্ষিণ সিটির জন্য তিন সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের যুগ্ম-কমিশনার রেজাউল করিম (ক্রাইমস এ্যান্ড অপারেশন) ও নির্বাচন কমিশনের উপ-সচিব আবদুল অদুদ।
গত রোববার তদন্ত কমিটি প্রথম দফায় ৩০টি ভোটকেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তার বক্তব্য শোনে। ওই দিন প্রিসাইডিং অফিসাররা তদন্ত কমিটিকে জানিয়েছিলেন, ভোটকেন্দ্রে এমন কিছু ঘটেনি, সব স্বাভাবিকই ছিল।
নির্বাচন কমিশনের উপ-সচিব আবদুল অদুদ জানান, “২৪ মে সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও পর্যবেক্ষকদের বক্তব্য শোনা হবে। এ ছাড়া ২৮ মে ভুক্তভোগী সাংবাদিকের বক্তব্য শোনা হবে।”