ঢাকা ০৯:৩০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পর পর তিন ছবি মুক্তি পাওয়া যে কোন নতুন শিল্পীর জন্য বিশাল প্রাপ্তি

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : ১১:০২:৫৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৭ অগাস্ট ২০১৫
  • ৩৯৩ বার

কোন ছবি মুক্তি পাওয়ার আগেই রেকর্ডসংখ্যক ছবির প্রধান নায়িকা হিসেবে কাজ শুরু করে ব্যাপক আলোচনার সৃষ্টি করা নায়িকা পরীমনির তিনটি বড় মাপের ছবি পর পর মুক্তি পাচ্ছে। ছবিগুলো হচ্ছে-এস এ হক অলিক পরিচালিত ‘আরো ভালবাসবো তোমায়’, ফারুক ওমর পরিচালিত ‘লাভার নাম্বার ওয়ান’ এবং নজরুল ইসলাম খান পরিচালিত ‘রানা প্লাজা’। তিনটি ছবি নিয়ে চলচ্চিত্রে ব্যাপক আশাবাদ। আশাবাদী পরীমনি নিজেও। আজকের ‘আলাপন’-এ তিনি বলেছেন তার আশাবাদের কথা। তার সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন মোহাম্মদ আওলাদ হোসেন
১৪ই আগস্ট ‘আরো ভালবাসবো তোমায়’, ২১শে আগস্ট ‘লাভার নাম্বার ওয়ান’ এবং ৪ঠা সেপ্টেম্বর ‘রানা প্লাজা’ মুক্তি পাবে। আপনার অনুভূতি কি?
¬পর পর তিনটি বড় ছবির মুক্তির অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না। বলতে পারেন এটা আমার সৌভাগ্য। তিনটি ছবিই বড় মাপের, বিশাল বাজেটের, সুন্দর গল্পের এবং প্রতিটি ছবিতেই আমার চরিত্র দারুণ। আর ছবি তিনটিতে আলাদা আলাদাভাবে আমার নায়ক সময়ের সেরা শাকিব খান, বাপ্পি চৌধুরী ও সাইমন। তাই সব মিলিয়ে ছবিগুলো নিয়ে আমি খুব আশাবাদী।
‘আরো ভালবাসবো তোমায়’ তো নির্ভেজাল প্রেমের গল্প?
শুধু নির্ভেজাল প্রেমেরই নয়, ছবিটি পারিবারিক গল্পেরও। দর্শক পরিবার-পরিজন নিয়ে একসঙ্গে বসে যে ছবি দেখতে পারেন ‘আরো ভালবাসবো তোমায়’ সেই ধরনের একটি ছবি। আরও বলতে চাই, যে সব কারণে ফ্যামিলি দর্শক সিনেমা দেখা ছেড়ে দিয়েছিল সেই ধরনের কোন কিছুই এই ছবিতে নেই। এক কথায় ‘আরো ভালবাসবো তোমায়’ একটি পরিপূর্ণ ছবি। দর্শক তৃপ্তি সহকারে ছবিটি দেখতে পাবেন।
লাভার নাম্বার ওয়ান?
রোমান্টিক অ্যাকশন ছবি। প্রেম ভালবাসা, অ্যাকশন, নাচ-গান, সবই আছে এই ছবিতে। দর্শকদের অবশ্যই ভাল লাগবে ছবিটি।
আর ‘রানা প্লাজা’?
‘রানা প্লাজা’ সম্পর্কে একটা কথাই বলবো, এই ছবি এমন একটি প্লাটফর্ম, যার মাধ্যমেই আমি আজকের পরীমনি। তাছাড়া ছবিটি আমার একটা স্বপ্নও।
অনেক সৌভাগ্য নিয়ে আপনার চলচ্চিত্রে আসা।
সেটা তো অবশ্যই। প্রথমত আমি কোন ছবি মুক্তির আগেই অনেক ছবির নায়িকা হিসেবে সুযোগ পেয়ে যাই। দ্বিতীয়ত, প্রথম ছবি মুক্তির এক মাসের মধ্যে আরেকটি ছবি মুক্তি পেয়ে যায়। তৃতীয়ত, পর পর তিনটি বড় মাপের ছবি মুক্তি পাচ্ছে। সৌভাগ্য ছাড়া এসব সম্ভব হতো না।
নিজেকে নিয়ে আশা কতটুকু?
অনেক আশা। কারণ এত নির্মাতা আমার ওপর বিশ্বাস রাখছেন, আমাকে নিয়ে ছবি বানাচ্ছেন, আমিও চেষ্টা করছি তাদের বিশ্বাসের মর্যাদা রাখতে। আমার বিশ্বাস, প্রতিটি ছবিতেই অনেক সাড়া পাবো। দর্শকদের ভালবাসা পাবো এবং তাতে করে নির্মাতাদের বিশ্বাসটাও বাড়বে।
অভিনেত্রী হিসেবে আপনার লক্ষ্য?
অনেক বড় মাপের অভিনেত্রী হওয়া। অন্যতম সেরা নায়িকা হওয়া। অনেকেই আমাকে কিশোরী ববিতা আপার সঙ্গে তুলনা করেন। আমি ববিতা আপার মতো শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী এবং পরিপূর্ণ নায়িকা হতে চাই।
ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার ব্যাপারে কোন বিষয়টি বেশি গুরুত্ব দেন?
তিনটি বিষয়-গল্প, পরিচালক এবং প্রযোজক। এই তিনটি সুন্দর সমন্বয় না হলে ভাল ছবি নির্মাণ সম্ভব নয়।
আপনার হাতে অনেক ছবি। কয়টার নাম মনে আছে?
যেগুলোর কাজ করছি প্রায় সবক’টির নামই মনে আছে। যেমন- আমার মুক্তি পেয়েছে- ‘ভালবাসা সীমাহীন’ ও ‘পাগলা দিওয়ানা’। মুক্তি পাবে ‘আরো ভালবাসবো তোমায়’, ‘লাভার নাম্বার ওয়ান’, ‘রানা প্লাজা’, ‘মহুয়া সুন্দরী’। শুটিং করছি-‘পুড়ে যায় মন’, ‘ইনোসেন্ট লাভ’, ‘ধুমকেতু’, ‘সোনাবন্ধু’, ‘আমার প্রেম আমার প্রিয়া’, ‘নদীর বুকে চাঁদ’, ‘নগর মাস্তান’, ‘মন জানে না মনের ঠিকানা’ এবং ‘মিশন ০০৭’।
এত ছবি, সবক’টিই কি ভাল হবে?
আমি তো আশাবাদী। কারণ সবাই ভাল ছবি বানাবার চেষ্টা করছেন। আমিও আমার সর্বোচ্চ মেধা দিয়ে চেষ্টা করছি অভিনয় করতে। আমার বিশ্বাস, যে লক্ষ্য নিয়ে আমি পরীমনি সিনেমায় এসেছি, এইসব ছবি আমার সেই লক্ষ্য পূরণ করবেই।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Haor Barta24

জনপ্রিয় সংবাদ

পর পর তিন ছবি মুক্তি পাওয়া যে কোন নতুন শিল্পীর জন্য বিশাল প্রাপ্তি

আপডেট টাইম : ১১:০২:৫৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৭ অগাস্ট ২০১৫

কোন ছবি মুক্তি পাওয়ার আগেই রেকর্ডসংখ্যক ছবির প্রধান নায়িকা হিসেবে কাজ শুরু করে ব্যাপক আলোচনার সৃষ্টি করা নায়িকা পরীমনির তিনটি বড় মাপের ছবি পর পর মুক্তি পাচ্ছে। ছবিগুলো হচ্ছে-এস এ হক অলিক পরিচালিত ‘আরো ভালবাসবো তোমায়’, ফারুক ওমর পরিচালিত ‘লাভার নাম্বার ওয়ান’ এবং নজরুল ইসলাম খান পরিচালিত ‘রানা প্লাজা’। তিনটি ছবি নিয়ে চলচ্চিত্রে ব্যাপক আশাবাদ। আশাবাদী পরীমনি নিজেও। আজকের ‘আলাপন’-এ তিনি বলেছেন তার আশাবাদের কথা। তার সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন মোহাম্মদ আওলাদ হোসেন
১৪ই আগস্ট ‘আরো ভালবাসবো তোমায়’, ২১শে আগস্ট ‘লাভার নাম্বার ওয়ান’ এবং ৪ঠা সেপ্টেম্বর ‘রানা প্লাজা’ মুক্তি পাবে। আপনার অনুভূতি কি?
¬পর পর তিনটি বড় ছবির মুক্তির অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না। বলতে পারেন এটা আমার সৌভাগ্য। তিনটি ছবিই বড় মাপের, বিশাল বাজেটের, সুন্দর গল্পের এবং প্রতিটি ছবিতেই আমার চরিত্র দারুণ। আর ছবি তিনটিতে আলাদা আলাদাভাবে আমার নায়ক সময়ের সেরা শাকিব খান, বাপ্পি চৌধুরী ও সাইমন। তাই সব মিলিয়ে ছবিগুলো নিয়ে আমি খুব আশাবাদী।
‘আরো ভালবাসবো তোমায়’ তো নির্ভেজাল প্রেমের গল্প?
শুধু নির্ভেজাল প্রেমেরই নয়, ছবিটি পারিবারিক গল্পেরও। দর্শক পরিবার-পরিজন নিয়ে একসঙ্গে বসে যে ছবি দেখতে পারেন ‘আরো ভালবাসবো তোমায়’ সেই ধরনের একটি ছবি। আরও বলতে চাই, যে সব কারণে ফ্যামিলি দর্শক সিনেমা দেখা ছেড়ে দিয়েছিল সেই ধরনের কোন কিছুই এই ছবিতে নেই। এক কথায় ‘আরো ভালবাসবো তোমায়’ একটি পরিপূর্ণ ছবি। দর্শক তৃপ্তি সহকারে ছবিটি দেখতে পাবেন।
লাভার নাম্বার ওয়ান?
রোমান্টিক অ্যাকশন ছবি। প্রেম ভালবাসা, অ্যাকশন, নাচ-গান, সবই আছে এই ছবিতে। দর্শকদের অবশ্যই ভাল লাগবে ছবিটি।
আর ‘রানা প্লাজা’?
‘রানা প্লাজা’ সম্পর্কে একটা কথাই বলবো, এই ছবি এমন একটি প্লাটফর্ম, যার মাধ্যমেই আমি আজকের পরীমনি। তাছাড়া ছবিটি আমার একটা স্বপ্নও।
অনেক সৌভাগ্য নিয়ে আপনার চলচ্চিত্রে আসা।
সেটা তো অবশ্যই। প্রথমত আমি কোন ছবি মুক্তির আগেই অনেক ছবির নায়িকা হিসেবে সুযোগ পেয়ে যাই। দ্বিতীয়ত, প্রথম ছবি মুক্তির এক মাসের মধ্যে আরেকটি ছবি মুক্তি পেয়ে যায়। তৃতীয়ত, পর পর তিনটি বড় মাপের ছবি মুক্তি পাচ্ছে। সৌভাগ্য ছাড়া এসব সম্ভব হতো না।
নিজেকে নিয়ে আশা কতটুকু?
অনেক আশা। কারণ এত নির্মাতা আমার ওপর বিশ্বাস রাখছেন, আমাকে নিয়ে ছবি বানাচ্ছেন, আমিও চেষ্টা করছি তাদের বিশ্বাসের মর্যাদা রাখতে। আমার বিশ্বাস, প্রতিটি ছবিতেই অনেক সাড়া পাবো। দর্শকদের ভালবাসা পাবো এবং তাতে করে নির্মাতাদের বিশ্বাসটাও বাড়বে।
অভিনেত্রী হিসেবে আপনার লক্ষ্য?
অনেক বড় মাপের অভিনেত্রী হওয়া। অন্যতম সেরা নায়িকা হওয়া। অনেকেই আমাকে কিশোরী ববিতা আপার সঙ্গে তুলনা করেন। আমি ববিতা আপার মতো শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী এবং পরিপূর্ণ নায়িকা হতে চাই।
ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার ব্যাপারে কোন বিষয়টি বেশি গুরুত্ব দেন?
তিনটি বিষয়-গল্প, পরিচালক এবং প্রযোজক। এই তিনটি সুন্দর সমন্বয় না হলে ভাল ছবি নির্মাণ সম্ভব নয়।
আপনার হাতে অনেক ছবি। কয়টার নাম মনে আছে?
যেগুলোর কাজ করছি প্রায় সবক’টির নামই মনে আছে। যেমন- আমার মুক্তি পেয়েছে- ‘ভালবাসা সীমাহীন’ ও ‘পাগলা দিওয়ানা’। মুক্তি পাবে ‘আরো ভালবাসবো তোমায়’, ‘লাভার নাম্বার ওয়ান’, ‘রানা প্লাজা’, ‘মহুয়া সুন্দরী’। শুটিং করছি-‘পুড়ে যায় মন’, ‘ইনোসেন্ট লাভ’, ‘ধুমকেতু’, ‘সোনাবন্ধু’, ‘আমার প্রেম আমার প্রিয়া’, ‘নদীর বুকে চাঁদ’, ‘নগর মাস্তান’, ‘মন জানে না মনের ঠিকানা’ এবং ‘মিশন ০০৭’।
এত ছবি, সবক’টিই কি ভাল হবে?
আমি তো আশাবাদী। কারণ সবাই ভাল ছবি বানাবার চেষ্টা করছেন। আমিও আমার সর্বোচ্চ মেধা দিয়ে চেষ্টা করছি অভিনয় করতে। আমার বিশ্বাস, যে লক্ষ্য নিয়ে আমি পরীমনি সিনেমায় এসেছি, এইসব ছবি আমার সেই লক্ষ্য পূরণ করবেই।