,

Untitled-1

মিঠামইনে শিক্ষার্থীদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধকরণ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম অনুষ্ঠিত

রফিকুল ইসলামঃ নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ করতে কিশোরগঞ্জের হাওর উপজেলা  মিঠামইনের ধলাই-বগাদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ সোমবার (১০ জানুয়ারি) মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়নে ও নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধকরণ প্রকল্পের আওতায় প্রায় ১৫০ জন শিক্ষার্থীকে নিয়ে এ উদ্বুদ্ধকরণ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়।

ধলাই-বগাদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আলা উদ্দীন আহাম্মদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহিষারকান্দি নিজামিয়া মাতলুবুল দারুল উলুম আলিম মাদরাসার অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. ফায়জুল কবীর।

এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহকারী প্রোগ্রামার শাহ এমরান ও প্রোগ্রাম অফিসার রনজু আহমেদ এবং উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার মো. মিজানুর রহমান।

এছাড়া স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সদস্যবৃন্দ, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকবৃন্দ এবং স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।6
ধর্মীয় আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া উক্ত অনুষ্ঠানে জাতীয় সংগীত পরিবেশন, আলোচনা সভা, লিখিত ও মৌখিক কুইজ প্রতিযোগিতা, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ বিষয়ে রচনা প্রতিযোগিতা, সংশ্লিষ্ট বিষয় ভিত্তিক উপস্থিত বক্তৃতা, ৭ই মার্চের ভাষণ, কবিতা আবৃত্তি, বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক ডকুমেন্টারি প্রদর্শন করা হয়।

পরে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণ ও বিদ্যালয়ের লাইব্রেরির জন্য বই উপহার দেওয়া হয়।

আলোচনায় অংশ নিয়ে সহকারী শিক্ষক মো. গোলাম ফারুক বলেন, মহান স্বাধীনতা বাঙালি জাতির ইতিহাসে সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জন।

বিশেষ অতিথি শাহ এমরান বলেন, স্থানীয় পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা ও বাংলাদেশ সম্পর্কে নতুন প্রজন্মকে জানানো এ প্রকল্পের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য।

নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রূপকল্প ২০৪১ সালে উন্নত সমৃদ্ধ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে নিজেদের যোগ্য করে তোলার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, প্রকল্পটি শুরু হয় ২০১৭ সালে। কিশোরগঞ্জের ১৩টি উপজেলায় ৭৮টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এ প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত, যা অব্যাহতভাবে চলবে।

প্রধান অতিথি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. ফায়জুল কবীর বিজয় ছিনিয়ে আনা সংগ্রামের দিনগুলোর স্মৃতিচারণ করেন।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর