,

স্ত্রী হত্যা মামলায় ২৫ বছর পর স্বামীর যাবজ্জীবন

হাওর বার্তা ডেস্কঃ মাদারীপুরের শিবচরে পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যার মামলার ২৫ বছর পর স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সোমবার দুপুরে সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ আদলতের বিচারক মো. ইসমাইল হোসেন এ আদেশ দেন। একই সময় আসামিকে ৫ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়েছে।

মামালার বিবরণে জানা যায়, ১৯৯৬ সালের ৫ ডিসেম্বর পারিবারিক কলহের জেরে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার উমেদপুর ইউনিয়নের রাম রায়েরকান্দি গ্রামের গোবিন্দ চন্দ্র পাল বালিশচাপা দিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে স্ত্রী মিলানী রানী পালকে। ঘটনার পর দিন শিবচর থানার থানার এসআই (উপপরিদর্শক) আব্বাস উদ্দিন বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের আসামি করে শিবচর থানায় একটি হত্যা মামলা করে। পরে থানার আরেক এসআই (উপপরিদর্শক) নাজমুল হক ভূঁইয়া ১৯৯৭ সালের ১ ফেব্রুয়ারি ২০ জন সাক্ষীর নামসহ গোবিন্দ চন্দ্র পালের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে।

এর পর আদালত মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা, মেডিকেল অফিসারসহ ৯ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন। দীর্ঘ বিচারকি প্রক্রিয়া শেষে দোষ প্রমাণ হওয়ায় গোবিন চন্দ্র পালকে স্ত্রী হত্যার দায়ের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন। একই সঙ্গে আরও ৫ হাজার টাকা জরিমানাও করেন আদালত।

মাদারীপুর আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট সিদ্দিকুর রহমান সিং জানান, ঘটনার পর একমাত্র আসামি গোবিন্দ চন্দ্র পাল পলাতক রয়েছে। স্ত্রী হত্যার দায়ে তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন আদালত। তাকে ধরতে পুলিশকে এরই মধ্যে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। নিহত মিলানী রানীর পালের সংসারে দুটি সন্তান রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর