,

আবার ডুবেছে মেঘনার উপকূল

হাওর বার্তা ডেস্কঃ লক্ষ্মীপুরের মেঘনা নদীর উপকূলীয় এলাকা আবার জোয়ারের পানিতে ডুবেছে। পূর্ণিমা এবং বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপের প্রভাবে নদীতে স্বাভাবিকের চেয়ে পানির উচ্চতা বৃদ্ধি পেয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) বিকেল ৩টার দিকে নদীতে জোয়ার শুরু হলে উপকূলীয় এলাকাগুলোতে পানি ঢুকতে শুরু করে। বিকেল ৫টার পর থেকে পানি নামতে শুরু করে।

উপকূলের বাসিন্দারা জানান, বুধবারের (১০ আগস্ট) জোয়ারের পানির চেয়ে বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) সৃষ্ট জোয়ারের পানির পরিমাণ বেশি ছিল। ফলে বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হওয়াসহ উঠান ও বসতঘরে পানি ওঠে।

তাদের অভিযোগ, বাঁধ নির্মাণ না হওয়ায় জেলার রামগতি ও কমলনগর উপজেলার মেঘনা তীরবর্তী অন্তত নয়টি ইউনিয়ন অরক্ষিত অবস্থায় আছে। বাঁধ নির্মাণের কাজে ধীরগতি হওয়ায় বার বার তাদের জোয়ারের পানিতে ডুবতে হচ্ছে। এতে নদী ভাঙনসহ ব্যাপক ক্ষতির শিকার হতে হচ্ছে উপকূলীয় বাসিন্দাদের। দ্রুত বাঁধ নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করার দাবি তাদের।

লক্ষ্মীপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী ফারুক আহমেদ  জানিয়েছেন, প্রতি অমাবস্যা এবং পূর্ণিমার জোয়ারে মেঘনা নদীতে স্বাভাবিকের চেয়ে দুই থেকে আড়াই ফুট পানি বৃদ্ধি পায়। এখন পূর্ণিমা এবং বঙ্গোপসাগরে প্রাকৃতিক দুর্যোগের সংকেত থাকায় জোয়ারের অতিরিক্ত পানি উপকূলে উঠে পড়েছে।

আগামী ১৫ তারিখ পর্যন্ত এ অবস্থা অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর