,

image-577214-1658869178

মহম্মদপুরে দিন-ক্ষণ দিয়ে সংঘর্ষ, আহত-২০

 হাওর বার্তা ডেস্কঃ মাগুরার মহাম্মদপুরে গ্রাম্য আধিপত্য নিয়ে দু’পক্ষের লোকজন দিনক্ষণ দিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়েছে। এতে কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন এবং একপক্ষের সাতটি বাড়িঘর ভাঙচুর করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে উপজেলার পলাশবাড়িয়া ইউনিয়নের কালিশংকরপুর এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী আয়ুব হোসেন জানান, কালিশংকরপুর এলাকায় গ্রাম্য আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আলতু মোল্যা ও পান্নু মোল্যার সমর্থকদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে মনমালিন্য চলছিল।

গত সোমবার সন্ধ্যায় লাহুড়িয়া হাট থেকে ফেরার পথে কালিশংকরপুর এলাকায় পান্নুর সমর্থক ওহাব ও আজিজারকে আলতু মোল্যার সমর্থকরা মারধর করে।

এ ঘটনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে উভয়পক্ষের লোকজন উত্তেজিত হয়ে মঙ্গলবার সকালে মারামারির দিন-তারিখ ঠিক করে।

পরে ওই ঘটনার জের ধরে মঙ্গলবার সকাল ৭ টার দিকে আলতুর নেতৃত্বে ৫০-৬০ জন সমর্থক নিয়ে পান্নুর সমর্থক এরশাদ, শরিফুল, নজরুলের উপর হামলা করে এবং বাড়িঘর ভাংচুর করে।

বিষয়টি মুহূর্তের মধ্যে এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে পান্নুর সমর্থকরা সংগঠিত হয়ে উভয়পক্ষের সমর্থকরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

এ সময়ে উভয় পক্ষের ২০ জন ব্যাক্তি আহত হয় এবং ৭ টি ঘর-বাড়িতে ভাংচুরের করা হয়। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

আহতদের মধ্যে নজরুল, আমিনুর, হাফিজার, মনিরুল, শরিফুল , ইরান, ওয়াদুদ, ইকবাল, নজরুলকে নড়াইল হাসপাতালে, সাইদ মোল্যা, আক্তার মোল্যা, শিবলি, দেলোয়ার, নাজমুল-ইছহাক মোল্যাকে মাগুরা, নড়াইল এবং মহম্মদপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এছাড়া বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
বিষয়টি নিয়ে আলতু মোল্যা ও পান্নু মোল্যার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তারা পলাতক থাকায় তাদের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

মহম্মদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি (অ:দ:) মোঃ আশরাফুল ইসলাম জানান, ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। পরবর্তীতে সংঘর্ষ এড়াতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর