,

image-510474-1642516740

চকরিয়ায় সালিশবৈঠকের কথা বলে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে পা বিচ্ছিন্ন করে দিল সন্ত্রাসীরা

হাওর বার্তা ডেস্কঃ কক্সবাজারের চকরিয়ায় সালিশবৈঠকের কথা বলে ডেকে নিয়ে নুরুল হুদা (৬৩) নামে এক ব্যবসায়ীর ওপর হামলা চালিয়েছে দুষ্কৃতকারীরা।

ধারালো অস্ত্র দিয়ে হাত-পা ও মাথায় এলোপাতাড়ি কুপিয়ে গুরুতর আহত করা হয় ওই ব্যবসায়ীকে।

সোমবার দুপুরে উপজেলার বদরখালী ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড কুতুবনগরপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত নুরুল হুদাকে উদ্ধার করে প্রথমে চকরিয়া সরকারি হাসপাতালে নেওয়া হলে অবস্থার অবনতি হওয়ায় সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন।

নুরুল হুদার অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় সোমবার রাতেই তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয় বলে নিশ্চিত করেন আহতের শ্যালক আবদুল হামিদ।

এদিকে ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে স্থানীয় আবদুর রহমানের পুত্র দোস্ত মোহাম্মদকে আটক করেছে চকরিয়া থানা পুলিশ। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন চকরিয়া থানার ওসি চন্দন কুমার চক্রবর্তী।

নুরুল হুদার ছেলে জসিমউদ্দিন বলেন, তিন-চার মাস আগে দোস্ত  মোহাম্মদের ছোটভাই সরওয়ার ও জসিমের বড়ভাই রহিমের মধ্যে তুচ্ছ ঘটনা কেন্দ্র করে বাগবিতণ্ডা হয়েছিল।

ওই ঘটনার রেশ ধরে বিভিন্ন সময় সরওয়ার, নুর মোহাম্মদ বদ ও রুহুল আমিন বিদেশ থেকে তাদের দেখে নেবে বলে হুমকি দিয়ে আসছিল। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী ১১ জুলাই জোহরের নামাজের পরে সালিশবৈঠকের কথা বলে কৌশলে তাদের বাড়িতে ডেকে নিয়ে আমার বাবাকে হত্যার উদ্দেশ্যে এ হামলা চালিয়েছিল সন্ত্রাসী দোস্ত মোহাম্মদ ও তার পরিবারের লোকজন।

এ ঘটনায় নুর মোহাম্মদের স্ত্রী রিপু (৩৮), রুহুল আমিনের স্ত্রী শাহানা (৩৫) এবং সরওয়ারের স্ত্রী কলিও (২৮) জড়িত বলে জানান তিনি।

এ ঘটনায় সোমবার রাতেই আহত নুরুল হুদার পুত্র জসিমউদ্দিন বাদী হয়ে আবদুর রহমানের ছেলে দোস্ত মোহাম্মদসহ অজ্ঞাতনামা আরও দুই-তিনজনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন।

চকরিয়া থানার ওসি চন্দন কুমার চক্রবর্তী বলেন, বদরখালীতে ব্যবসায়ীর ওপর হামলার খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে নুরুল হুদাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে এবং হামলায় জড়িত দোস্ত মোহাম্মদকে (৪২) গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর