,

1657343700172

করতোয়া নদী থেকে নিখোঁজ দুই বন্ধুর মরদেহ উদ্ধার

হাওর বার্তা ডেস্কঃ বগুড়ার শেরপুরে করতোয়া নদী থেকে নিখোঁজ দুই বন্ধুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার (৯ জুলাই) সকালে নদীর পৃথক স্থান থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহতরা হলেন- উপজেলার গাড়ীদহ ইউনিয়নের মহিপুর জামতলা গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে সাব্বির আহম্মেদ শিশির (১৭) ও শেরপুর শহরের বারোদুয়ারী হাটখোলা এলাকার মোজাফ্ফর হোসেনের ছেলে মো. সাম্মাম হোসেন ওরফে তাহমিদ (১৭)। তারা দুজন একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী। এর মধ্যে সাম্মাম স্থানীয় শেরউড ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ ও শিশির বগুড়া ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্র।

পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা জানান, শুক্রবার সকালে সাম্মাম ও শিশির একসঙ্গে ঘুরতে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হন। এরপর থেকেই নিখোঁজ হন তারা। স্বজনরা সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেন। কিন্তু কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। একপর্যায়ে শনিবার সকালে স্থানীয়রা ধড়মোকাম নামাপাড়া এলাকায় করতোয়া নদীর পাড়ে গেলে দুর্গন্ধ পান। পরে নদীর মধ্যে একটি ভাসমান মরদেহ দেখতে পান। এরপর থানায় খবর দিলে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করেন। পরে এটি সাম্মাম ওরফে তাহমিদের মরদেহ বলে শনাক্ত হয়।

এদিকে সাম্মামের মরদেহ উদ্ধারের তিন ঘণ্টা মাথায় গোপালপুর নামক স্থান থেকে শিশিরের মরদেহও উদ্ধার করা হয়।

শেরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম বলেন, উদ্ধার হওয়া মরদেহ দুটি নিখোঁজ সাম্মাম ও শিশিরের বলে স্বজনরা শনাক্ত করেছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর