,

lokkhipur-20220708101015

জামাইয়ের পিটুনিতে হাসপাতালে সাবেক শ্বশুর

হাওর বার্তা ডেস্কঃ লক্ষ্মীপুরে মনির হোসেন নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে তার সাবেক শ্বশুর নুরনবীকে (৫৫) পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার (৭ জুলাই) সন্ধ্যায় সদর উপজেলার চরশাহী ইউনিয়নের জনতা ডিগ্রি কলেজের সামনে মনির ও তার অনুসারীরা এ হামলা চালায়। পরে রাত ১০টার দিকে তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন স্বজনরা।

আহত নুরনবী সদর উপজেলার চরশাহী ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামের চা-দোকানি। তার হাতে-পায়ে ও বাম চোখসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

ভুক্তভোগীর পরিবারের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ৩ বছর আগে প্রেম করে নুরনবীর মেয়ে মুন্নি আক্তার ও অভিযুক্ত মনির বিয়ে করেন। তাদের সংসারে এক বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। এর মধ্যে মনির অন্য এক নারীর সঙ্গে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে মুন্নি বিষয়টি বুঝতে পারেন। এতে পারিবারিক কলহ বেড়ে যায়।

এ কারণে পরে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। বিবাহ বিচ্ছেদের পর থেকেই মনির তাদের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। একাধিকবার মুন্নিদের বাড়িতে লোকজন নিয়ে তিনি হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছেন।

এদিকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নুরনবী নোয়াখালীর সাধুরহাট থেকে কোরবানির গরু কিনে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে জনতা ডিগ্রি কলেজের সামনে অনুসারীদের নিয়ে মনির তার ওপর হামলা করেন। এ সময় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তার শরীরের বিভিন্ন অংশে জখম করা হয়। এক পর্যায়ে লোকজন আসতে দেখে তারা পালিয়ে যায়।

মুন্নি আক্তার বলেন, মনির পরকীয়ায় লিপ্ত ছিলেন। আমি জানতে পেরে বাধা দিলে আমার ওপর নির্যাতন চালানো হয়। এজন্য পারিবারিকভাবে আমাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। ওই ক্ষোভ থেকেই তিনি আমার বাবার ওপর হামলা করেছেন।

বক্তব্য জানতে মনিরের ফোন নম্বরে একাধিকবার কল করলেও বন্ধ পাওয়া যায়।

এ ব্যাপারে চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পরিবারের লোকজনকে অভিযোগ দেওয়ার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর