,

download (8)

সামান্য বৃষ্টিতে কলেজ মাঠে জলাবদ্ধতা, মাছ অবমুক্ত করে প্রতিবাদ

হাওর বার্তা ডেস্কঃ বৈশাখ মাসের হালকা বৃষ্টিতে সরকারি বাঙলা কলেজ মাঠে পানি জমে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। মাঠে পানি জমে থাকায় শিক্ষার্থী বিপাকে পড়েছেন। তারা খেলাধুলা এমনকি হাঁটাচলাও করতে পারছেন না। মাঠের এই বেহাল দশায় নিরুপায় হয়ে কলেজ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা অভিনব কায়দার মাছ অবমুক্ত করে প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

শনিবার (২৩ এপ্রিল) ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া এক ভিডিওতে দেখা যায়, ক্যাম্পাসের প্রবেশ গেটের সামনেই জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। সেখানে কলেজ ছাত্রলীগের কর্মীরা মাছ অবমুক্ত করছেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বাঙলা কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন পলাশ, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক তরিকুল ইসলাম রাহুল, ছাত্রলীগ নেতা হাফিজ হাওলাদারসহ অন্যান্যরা।

শিক্ষার্থীরা জানিয়েছেন, ক্যাম্পাসের লেক পরিষ্কার না করায় মশার উৎপাত দিন দিন বেড়েই চলেছে। এবার মাঠের পানি জমে থাকায় মশা আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছে ক্যাম্পাসের শিক্ষার্থীরা ও আশপাশের এলাকার মানুষজন। এই পানি জমে থাকলে এডিস মশার উৎপাত ব্যাপক আকারে বাড়তে পারেও বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

ফারুক আহমেদ নামে এক শিক্ষার্থী ওই ভিডিও’র নিচে লিখেন, এই মাছ বড় হবে। আমরা আর্থিকভাবে সচ্ছল হবো। তাহলে হলের গ্যাস সরবরাহ আর বন্ধ থাকবে না।

এমনকি কলেজের সাবেক-বর্তমান শিক্ষার্থীরা এ ভিডিও দেখে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কর্তৃপক্ষের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তারা অবিলম্বে মাঠের অবকাঠামো উন্নয়নের তাগিদ জানান।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায়ও সরেনি কলেজ মাঠের বৃষ্টির পানি। যেখানে কলেজ প্রশাসনের নজর নেই বললেই চলে। এ ছাড়া শনিবার জলাবদ্ধতার স্থানে যে মাছ অবমুক্ত করা হয়েছিলো সেগুলোরও হদিস মেলেনি।

রোববার (২৪ এপ্রিল) মারুফ আহমেদ নামে এক শিক্ষার্থীর পোস্ট করা ভিডিওতে দেখা যায়, তিনি কয়েকবার চেষ্টা করেও মাছ ধরতে পারেননি। একসময় হতাশা হয়ে জলাবদ্ধতা স্থান ত্যাগ করেন। অনেক শিক্ষার্থী প্রশ্ন তুলেছেন, অবমুক্ত করা মাছ কোথায় গেল?

কমেন্টে সাইফুল বাদশা নামে এক শিক্ষার্থী বলেছেন, এখানে কী কী মাছ পাওয়া যাবে। আবার অনেক শিক্ষার্থী নিজ ক্যাম্পাসে মাছ ধরার সুযোগ না পাওয়ায় আক্ষেপ প্রকাশ করেন।

কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন পলাশ বলেন, সামান্য বৃষ্টিতে মাঠে পানি জমে যায়। এতে করে মশার উপদ্রব বেড়ে গিয়েছে। ছাত্ররা মাঠে খেলতে পারে না। এ ব্যাপারে কলেজ প্রশাসনের কোন দৃষ্টি নেই। তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করার জন্যই আমাদের এই প্রতিবাদ।

Print Friendly, PDF & Email

     এ ক্যাটাগরীর আরো খবর